টেস্ট ক্রিকেটাররা যারা দলের হয়ে সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছে কিন্তু দলের অধিনায়কত্ব করেননি। 1

 

সমৃদ্ধ ক্রিকেট ইতিহাস দেখে বেশ কয়েকজন সূক্ষ্ম খেলোয়াড় এই খেলাটিকে  অনুগ্রহ করেছেন।তাদের ব্যাটিং, বোলিং বা অলরাউন্ড প্রদর্শন দিয়ে;খেলোয়াড়রা তাদের শক্তি দিয়ে শ্রোতাদের মনমুগ্ধ করেছেন।কিছু খেলোয়ারেরা এই খেলাটির সব ফর্ম্যাটে নিজেদের দুর্দান্ত ক্ষমতা দেখিয়ে নিজেদের কিংবদন্তি তৈরী করেছেন, আর কিছু সময়ের সঙ্গে ম্লান হয়ে গেছেন।

আসুন শীর্ষস্থানীয় পাঁচ টেস্ট ক্রিকেটারদের দিকে নজর দিন যিনি সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছেন কিন্তু তাদের দলের অধিনায়কত্ব করেননি:

৫.মুত্তিয়া মুরালিধরনঃ

টেস্ট ক্রিকেটাররা যারা দলের হয়ে সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছে কিন্তু দলের অধিনায়কত্ব করেননি। 2

শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি মুত্তিয়া মুরালিধরন তাঁর স্পিন ম্যাজিকের সাহায্যে ক্রিকেট প্রেমিদের মন্ত্রমুগ্ধ করেছিলেন। তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক উইকেট শিকারী জার সংখ্যা মোট ১৩৪৭টি , যার মধ্যে টেস্টে ৮০০ ও ওয়ানডেতে ৫৩৪ টি উইকেট রয়েছে। ১৯৯৬ সালে তিনি শ্রীলঙ্কা বিশ্বকাপজয়ী দলেরও একজন ছিলেন, কিন্তু কখনও অধিনায়ক হতে পারেননি। ঘটনাক্রমে, মুরালিধরন সেই ক্রিকেটার যিনি সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছেন – টেস্ট ক্রিকেটারদের তালিকায় পঞ্চম খেলেন – ১৩৩ – তবে কখনও তাঁর নেতৃত্ব দেননি।২০১০ সালে তিনি টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণ করেছিলেন, ২২ জুলাই ২০১০ এ তাঁর শেষ টেস্ট ম্যাচে শেষ বল থেকে ৮০০ তম এবং শেষ উইকেটটি নিবন্ধ করেছিলেন।তিনি শেষ টেস্ট ম্যাচটি খেলেন ভারতের বিরুদ্ধে এবং শেষ শিকার তার প্রগ্যান ওঝা।

৪.ভি ভি এস লখনঃ

টেস্ট ক্রিকেটাররা যারা দলের হয়ে সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছে কিন্তু দলের অধিনায়কত্ব করেননি। 3

ভিভিএস লক্ষ্মণ ছিলেন ভারতীয় টেস্ট লাইন আপের একটি গুরুত্বপূর্ন স্তম্ভ। তার অবিচলিত ভুমিকা রয়েছে একটি ইনিংস গড়বার জন্য ওপার্টনারসিপ গঠন করে ভারত দলকে ম্যাচ জিততে সাহায্য করেছেন। বিশ্ব ক্রিকেট ইতিহাসের পাতায় লক্ষ্মণ এর নাম স্বর্নাক্ষরে লেখা থাকবে। লক্ষ্মন দেশের হয়ে ১৩৪টি টেস্ট ম্যচ খেলে ৮৭৮১রান করেন,৪৫ গড় রেখে।তার টেস্ট ঝুলিতে ১৭টি শতরান ও ৫৬টি অর্ধশতরান আছে,কিন্তু কোনোদিন দলের অধিনায়কত্ব করেননি।।

৩.স্টুয়ার্ট ব্রডঃ

টেস্ট ক্রিকেটাররা যারা দলের হয়ে সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছে কিন্তু দলের অধিনায়কত্ব করেননি। 4

স্টুয়ার্ট ব্রড টেস্ট ইতিহাসের অন্যতম সফল বোলার। আসলে, খেলায় সবচেয়ে দীর্ঘতম ফর্ম্যাটে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বাধিক উইকেট শিকারীর তালিকায় তিনি কেবল জেমস অ্যান্ডারসনের পিছনে রয়েছেন। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে চলমান দ্বিতীয় টেস্টের একটি অংশ,ব্রডের নামে ৪৮৫ উইকেট রয়েছে তবে তার দীর্ঘ ও সফল ক্যারিয়ারে কখনও ইংলিশ দলের অধিনায়ক হননি।

২. শেন ওয়ার্নঃ

টেস্ট ক্রিকেটাররা যারা দলের হয়ে সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছে কিন্তু দলের অধিনায়কত্ব করেননি। 5

শেন ওয়ার্ন এই খেলায় সবচেয়ে বড় লেগ স্পিনার ছিলেন। তিনি স্পিনার হিসাবে প্রায় সমস্ত কিছুই অর্জন করেছিলেন তবে তাঁর কেরিয়ার বিতর্কিত হয়ে পড়েছিল। ওয়ার্ন তার জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন ১৪৫ টেস্টে, যেখানে তিনি ২৫ গড়ে 8০৮ উইকেট শিকার করেছেন, কিন্তু কখনও তাঁর নেতৃত্ব দিতে পারেননি। তাঁর অবিশ্বাস্য রেকর্ডে তিনি ৩৭ বার ৫উইকেটের রেকর্ড করেছেন।

১. জেমস অ্যান্ডারসন:

টেস্ট ক্রিকেটাররা যারা দলের হয়ে সর্বাধিক ম্যাচ খেলেছে কিন্তু দলের অধিনায়কত্ব করেননি। 6

ইংল্যান্ডের সিনিয়র ফাস্ট বোলার জেমস অ্যান্ডারসন তার বোলিংয়ের উজ্জ্বলতা নিয়ে সামনে থেকে জাতীয় দলের  বোলিংএর নেতৃত্ব অব্যাহত রেখেছেন তবে দীর্ঘ ও সফল ক্যারিয়ারে তিনি কখনও জাতীয় দলের নেতৃত্ব দেননি। অ্যান্ডারসন ২০০২ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন এবং তার পর থেকে ১৫১ টেস্ট, ১৯৪ ওয়ানডে এবং ১৯ টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন যথাক্রমে ৫৮৪, ২৬৯ এবং ১৮ উইকেট। টেস্টেও তিনি ইংল্যান্ডের হয়ে শীর্ষস্থানীয় উইকেট শিকারী, তবে জাতীয় দলের হয়ে তাঁর অবদানের পরেও অধিনায়কত্বের টুপি কখনও অর্জন করেননি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *