ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজেই চার জায়গায় উন্নতি করতে হবে টিম ইন্ডিয়ার 1

ক্রিকেট বিশ্বে টেস্ট ক্রিকেটকে বলা হয় অভিজাত্বের খেলা। যা খেলার জন্য প্রয়োজন হয় আলাদা দক্ষতার। ক্রিকেটের দুই পরাশক্তি ইংল্যান্ড ও ভারতের মধ্যকার চলমান পূর্নাঙ্গ সিরিজে ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে টি-২০, ওয়ানডে এবং তিনটি টেস্ট। পাঁচ ম্যাচ টেস্ট সিরিজের তিন ম্যাচ থেকে প্রথম দুটি ম্যাচ ইংলিশরা জিতে নিলেও তৃতীয় ম্যাচে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় ভারত।

তবে এখনো টেস্ট সিরিজ জিততে হলে পরবর্তী দুটি ম্যাচ জিততে হবে। টেস্ট সিরিজ পকেটে পুরা যে খুব একটা সহজ হবেনা তা বোঝা যায় ঘরের মাটিতে ইংলিশদের বিস্ফোরক পারফরম্যান্স দেখলেই। টিম ইন্ডিয়ার সামনে এখনো সিরিজ জেতার যে সুযোগটি রয়েছে তা কাজে লাগাতে হলে কোন কোন জায়গায় উন্নতির প্রয়োজন রয়েছে তা একটু দেখে নেওয়া যাক।

৪। ওপেনিং জুটি

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজেই চার জায়গায় উন্নতি করতে হবে টিম ইন্ডিয়ার 2

ইংল্যান্ডের ঘরের মাঠে চলতি টেস্ট সিরিজের যে তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রতিটা ম্যাচেই ভারতীয় দলের ওপেনিং জুটি ছিল ব্যর্থ। প্রথম টেস্টে মুরলী বিজয় ও শিখর ধবন ওপেনিং করতে নামলে দুই ইনিংসেই উভয় ব্যাটসম্যান ছিলেন ব্যর্থ। দ্বিতীয় টেস্টে ধবনকে সাইড বেঞ্চে বসিয়ে বিজয়ের সাথে সুযোগ দেওয়া হয় কে এল রাহুলকে। এই টেস্টে বিজয় দুই ইনিংসেই রানের খাতা খোলার আগে সাজঘরে ফিরেন, আর রাহুল দুই ইনিংসে করেন মাত্র ১৮ রান। তৃতীয় টেস্ট ভারত ২০৯ রানের বিশাল ব্যবধানে জিতলেও এই ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ওপেনিং জুটি বিচ্ছিন্ন হয় দলীয় ৬০ রানে ও দ্বিতীয় ইনিংসেও কে এল রাহুল ব্যক্তিগত ৩৬ রান করে আউট হলে ওপেনিং জুটি ভাঙে প্রথম ইনিংসের মতই ষাট রানে।

তাই সামনের টেস্ট ম্যাচ দুটি জিততে হলে ওপেনিং জুটির মাটি কামড়ানো দীর্ঘ জুটি প্রয়োজন।

৩। স্লিপে ক্যাচ

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজেই চার জায়গায় উন্নতি করতে হবে টিম ইন্ডিয়ার 3

বর্তমান ভরত জাতীয় দলে নতুন এক বিষফোঁড়ার না নাম হল স্লিপে ক্যাচ মিস করা। কাকে রেখে কাকে পাঠানো হবে ওই পজিশনে ফিল্ডিং করার জন্য তা যেন বুঝে উঠতে পারছেন না খেলোয়াড় কিংবা কোচ কেউই। তৃতীয় টেস্টে জস বাটলার ব্যক্তিগত ৯৩ রানে স্লিপে ক্যাচ তুলে দেন কিন্ত তা তালুবন্দি করতে ব্যর্থ হল কোহলি। এই সুযোগে বাটলার হাঁকিয়ে নেন সেঞ্চুরি। অন্যদিকে প্রথম টেস্ট হারার পেছনে দায় রয়েছে এই স্লিপে ক্যাচ নিতে না পারা। আদিল রশিদ ও স্যাম কুরানের ক্যাচ মিস, কাল হয়ে দাঁড়ায় টিম ইন্ডিয়ার।

তবে আশার খবর হল তৃতীয় টেস্টে কে এল রাহুল স্লিপে দাঁড়িয়ে একাই ৬টি ক্যাচ নিতে সক্ষম হন। তাই টিম ম্যানেজম্যান্টের স্লিপ পজিশন নিয়ে আরো ভাবা উচিত।

২। মিডল অর্ডার থেকে আরো বড় সংগ্রহ

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজেই চার জায়গায় উন্নতি করতে হবে টিম ইন্ডিয়ার 4

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় টেস্ট ম্যাচ জেতার পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান রয়েছে দুই ইনিংসে কোহলির ৯৩ ও ১০৬ রানের। তাছাড়া প্রথম ইনিংসে রাহানে ও দ্বিতীয় ইনিংসে পুজারার ব্যাট থেকেও রান এসেছে। তবে তাদের মত সিনিয়র ক্রিকেটারদের কাছে আরো বেশি কিছু প্রত্যাশা করে ক্রিকেটভক্তরা।
অন্যদিকে হার্দিক পান্ডিয়ার ব্যাটিং পজিশন আরো একটু উপরে উঠিয়ে একটু পরখ করতেই পারে টিম ম্যানেজম্যান্ট। কিংবা ঋষভ পন্থ মাত্র একটি টেস্ট খেললেও তাঁকেও আরো উপরে ব্যাটিং করার সুযোগ দেওয়া যেতে পারে।

১। নো-বল সমস্যা

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজেই চার জায়গায় উন্নতি করতে হবে টিম ইন্ডিয়ার 5

গত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বুমরাহর করা নো-বল কতটা প্রভাব ফেলেছিল ম্যাচে তা দেখেছেন সবাই। অন্যদিকে ইংলিশদের বিপক্ষে চলমান টেস্ট সিরিজের তৃতীয় টেস্টে বুমরাহ ৫ উইকেট পেলেও রশিদকে বল করার পর রশিদ ক্যাচ আউট হয়, কিন্তু সেই বলটি ছিল নো-বল। ফলে ম্যাচের ফল পেতে সময় দীর্ঘায়িত হয় টিম ইন্ডিয়ার। তাছাড়া ভারত দলের আরেক পেসার ইশান্ত শর্মারও নো-বল নিয়ে রয়েছে সমস্যা।
তাই এদিকে বাড়তি নজর রাখা উচিত টিম ম্যানেজম্যান্টের।

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *