সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ হারাতে পারে তারকা বোলারকে, এখনও দোলাচলে সিদ্ধান্ত 1
২০১৬ এর আইপিএল চ্যাম্পিয়ন সানরাইজার্স হায়দরাবাদ

বাংলাদেশের সিম বোলিং তারকা মুস্তাফিজুর রহমান সম্ভবত এবারের আইপিএলে থাকছেন না। বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার সঙ্গে একদিনের সিরিজ চলায় তিনি এখন শ্রীলঙ্কায়। সেখান থেকেই বাংলাদেশের এক সংবাদ সংস্থাকে তিনি একথা জানান।

আইপিএলের আগে বড় ধাক্কা খেল কে কে আর, সানরাইজার্স হায়দরাবাদ!

মুস্তাফিজুরের এই কথায় চাপে পড়েছে আইপিএলের গতবারের চ্যাম্পিয়ন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। গত মরশুমে সানরাইজার্সের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পিছনে ওতোপ্রোতভাবে যুক্ত ছিলেন এই তারকা বোলার। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য প্রবীন বোলিং তারকা আশিষ নেহরা আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন আইপিএলে সানরাইজার্সে তাঁকে গোটা টুর্নামেন্টে দেখা যাবেনা। কারণ তিনি জাতীয় দলের হয়ে কিছু করে যেতে চান। নেহরার পর মুস্তাফিজুর না থাকায় রীতিমত চিন্তায় পড়েছে সানরাইজার্স।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দিকে তাকিয়েই আইপিএলে খেলতে নাও পারে আশিষ নেহরা

২১ বছর বয়সী বাংলাদেশী এই বোলার আগের মরশুমে সানরাইজার্সের হয়ে ১৬ ম্যাচে ১৭টি উইকেট নেয়। তাঁর ইকনমি রেট ছিল ৭ এর কম। যা আইপিএলের মত খেলায় দুরন্ত প্রদর্শন। ডেথ ওভারের এক উপযোগী বোলার মুস্তাফিজুর রহমান। বেশিরভাগ সময়ে চোটে আক্রান্ত এই বোলার এখনও চোটের সমস্যায় ভুগছেন। এছাড়া শ্রীলঙ্কা সফর শেষ করার পর আয়ারল্যান্ডে গুরুত্বপূর্ণ সফর রয়েছে বাংলাদেশের। তার কিছুদিন পরই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। ফলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড আইপিএলের জন্য মুস্তাফিজুরকে এখনও ছাড়পত্র দেয়নি। মুস্তাফিজুর বলেন, “আমি আইপিএল থেকে অনেক কিছু শিখেছি। কিন্তু আমার মনে হয় এই বছর আইপিএলে আমি থাকতে পারব না। আমি এখনও বোর্ডের অনুমতির জন্য অপেক্ষা করছি।”

শুধুমাত্র বোর্ডের অনুমতিই নয়। তিনি নিজেও বিশেষ সুস্থ নেই বলেই জানালেন অফ ও লেগ কাটার বোলিংয়ের এই যুবরাজ। তিনি বলেন, “আমি নিজেই বুঝতে পারছি না আমি আদৌ ভালভাবে খেলতে পারব কিনা। এই সপ্তাহের প্রথমে ফিরলেও, আমি নিজের চেনা ছন্দে নেই। তাই মাসরাফি ভাই (মাসরাফি মোর্তাজা) আমায় পরামর্শ দেন এবছর আইপিএল না খেলতে। বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক খেলাও রয়েছে সামনে।”

এদিকে সানরাইজার্সের এক আধিকারিক বলেন, “মুস্তাফিজুর আইপিএলের প্রথম দিকের কয়েকটা ম্যাচ হারাবে ঠিকই। তবুও আমরা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অনুমতি পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছি।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *