মা বাস কন্ডাক্টর, ছেলে একার হাতে জেতাল ভারতকে অনুর্ধ্ব ১৯ এশিয়াকাপ, শচীনকে করেছিলেন ৯ বছর বয়েসে আউট 1

ভারতীয় জুনিয়র ক্রিকেট দল অনুর্ধ্ব ১৯ এশিয়াকাপের ফাইনাল ম্যাচে শনিবার দুর্দান্ত প্রদর্শন করে একটা দারুন রোমাঞ্চকর ম্যাচে বাংলাদেশের অনুর্ধ্ব ১৯ দলকে ৫ রানে হারিয়ে অনুর্ধ্ব ১৯ এশিয়া কাপ খেতাব জিতে নিয়েছে। ভীষণই লো স্কোরিং ম্যাচে ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৯ দল বোলারদের দুর্দান্ত প্রদর্শন সপ্তমবার ইউথ এশিয়াকাপ খেতাব জিতল।

ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৯ দলের জয়ের নায়ক থেকেছেন অথর্ব অঙ্কোলেকর

মা বাস কন্ডাক্টর, ছেলে একার হাতে জেতাল ভারতকে অনুর্ধ্ব ১৯ এশিয়াকাপ, শচীনকে করেছিলেন ৯ বছর বয়েসে আউট 2

ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৯ দল এশিয়া কাপের এই খেতাবি ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে মাত্র ১০৬ রানের স্কোরই করতে পারে কিন্তু বোলাররা দুর্দান্ত প্রদর্শন করে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব ১৯ দলকে ১০১ রানে অলআউট করে ৫ রানের রোমাঞ্চকর জয় হাসিল করে। ভারতীয় জুনিয়র দলের এই জয়ের নায়ক মহারাষ্ট্রের তরুণ স্পিন বোলার অথর্ব অঙ্কোলেকর থেকেছেন যার স্পিনের সামনে বাংলাদেশী ব্যাটসম্যানরা সম্পূর্ণ ব্যর্থ প্রমানিত হন আর এই ফাইনাল ম্যাচে অথর্ব ৫ উইকেট নিয়ে জয়ে বিশেষ ভূমিকা পালন করেন।

অথর্বর জীবন সংঘর্ষপূর্ণ, বাবা ৯ বছর বয়েসে মৃত, মা সরকারী বাস কন্ডাক্টর

মা বাস কন্ডাক্টর, ছেলে একার হাতে জেতাল ভারতকে অনুর্ধ্ব ১৯ এশিয়াকাপ, শচীনকে করেছিলেন ৯ বছর বয়েসে আউট 3

মহারাষ্ট্রের তরুণ স্পিন বোলার অথর্ব দুর্দান্ত প্রদর্শন করে পুরো টুর্নামেন্টে নিজের স্পিনার কামাল দেখিয়েছেন। অথর্ব ফাইনাল ম্যাচে ৮ ওভার বল করে ২৮ রান দিয়ে ৫ উইকেট হাসিল করে তো অন্যদিকে পুরো টুর্নামেন্টে তিনি ৪ ম্যাচে ১২ উইকেট নিয়েছেন। ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৯ দলকে এশিয়া কাপ জেতাতে সবচেয়ে বড়ো যোগদান দেওয়া অথর্বর শৈশবের গল্প আর ক্রিকেটে এতদূর পৌঁছনোর পথ ভীষণই সংঘর্ষপূর্ণ থেকেছে। মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা অথর্বর মা মুম্বাইতে একজন সরকারী বাস কন্ডাক্টর আর তার রোজগারের সংসার চলে। তো অন্যদিকে অথর্বর বাবা বিনোদ অঙ্কোলেকর ২০১০ এই মারা যান। যার পর মায়ের কড়া লড়াই আর মেহনতের দমে অথর্ব এই পর্যন্ত পৌঁছেছেন।

অথর্বর অনুর্ধ্ব ১৯ দলে নির্বাচিত হওয়ার পর শুভেচ্ছার বন্যা

মা বাস কন্ডাক্টর, ছেলে একার হাতে জেতাল ভারতকে অনুর্ধ্ব ১৯ এশিয়াকাপ, শচীনকে করেছিলেন ৯ বছর বয়েসে আউট 4

অথর্বর বাবা বিনোদ অঙ্কোলেকরের মৃত্যুর পর মা বৈদেহী সংসার সামলান শুরুতে বৈদেহী নিজের পরিবারের ভরণ পোষণ করার জন্য বাচ্চাদের টিউশনি পড়াতেন। এরপর স্বামী সরকারী বাস কন্ডাক্টর হওয়ার কারণে বৈদেহী তার চাকরি পান। বৈদেহী দেবী নিজের এই কড়া সংঘর্ষের ভরসাতেই ছেলেকে ক্রিকেটে এগিয়ে নিয়ে যান। গতমাসেই যখন অথর্ব ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৯ দলে নির্বাচিত হয়েছিল তো তার মায়ের কাছে আত্মীয় স্বজন আর পরিচিতদের প্রায় ৪০ হাজার শুভেচ্ছা বার্তা এসেছিল।

শচীন তেন্ডুলকরকে ৯ বছর বয়েসে করেছিলেন আউট

মা বাস কন্ডাক্টর, ছেলে একার হাতে জেতাল ভারতকে অনুর্ধ্ব ১৯ এশিয়াকাপ, শচীনকে করেছিলেন ৯ বছর বয়েসে আউট 5

অথর্বর জীবনের গল্প ভীষণই ইন্টারেস্টিং। অথর্ব ৯ বছর আগে ভারতীয় দলের কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান শচীন তেন্ডুলকরকে নিজের ৯ বছর বয়েসেই স্পিনের জাদুতে আউট করার সফলতা অর্জন করেছিলেন। ১৮ বছর বয়েসী অথর্ব অঙ্কোলেকর মুম্বাইয়ের রিজভি কলেজের সেকেন্ড ইয়ারের ছাত্র। গতমাসেই অনুর্ধ্ব ১৯ দলে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে তিনি এখনো পর্যন্ত ৭টি ম্যাচ খেলেছেন যার মধ্যে তিনি ১৫টি উইকেট হাসিল করেছেন। তার স্বপ্ন যে একদিন তিনি ভারতীয় দলের হয়ে খেলবে। তিনি নিজের বাবাকে এই সময় সবচেয়ে বেশি মিস করেন। যিনি অথর্বর মতে তার শৈশবের দিনে তাকে ব্যাট গিফট করতেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *