RRvsKKR: স্টিভ স্মিথের এই বড় ভুলের কারণে ৬০ রানে হারল রাজস্থান রয়্যালস

দুবাইয়ের মাঠে আজ রাজস্থান রয়্যালস আর কলকাতা নাইট রাইডার্সের আইপিএলের ৫৪তম ম্যাচ খেলা হয়েছে। যেখানে টসে জিতে রাজস্থান অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ প্রথম বল করার সিদ্ধান্ত নেয়। এরপর প্রথমে ব্যাট করে কলকাতা নাইট রাইডার্সের দল ১৯১ রান করে। যে লক্ষ্য তাড়া করতে পারেনি রাজস্থান রয়্যালস দল আর এই ম্যাচ ৬০ রানে হেরে যায়। এই ম্যাচে স্টিভ স্মিথের একটি বড় ভুল দলের হারের কারণ হয়।

কলকাতা খাড়া করে বড় স্কোর

RRvsKKR: স্টিভ স্মিথের এই বড় ভুলের কারণে ৬০ রানে হারল রাজস্থান রয়্যালস 1

টস হেরে কলকাতা প্রথমে ব্যাট করতে নেমেই নীতীশ রাণার উইকেট হারায়। এরপর শুভমান গিল ৩৬ রান করেন। অন্যদিকে রাহুল ত্রিপাঠিও দলের হয়ে ৩৯ রান করেন। তবে সুনীল নারিন এবং দীনেশ কার্তিক কোনো রানই করতে পারেননি। যে কারণে কলকাতার দলে মাঝের ওভারে সমস্যায় পড়ে। এরপর অধিনায়ক ইয়োন মর্গ্যান অপরাজিত ৬৮ রান করেন। অন্যদুকে অ্যান্দ্রে রাসেল ১১ বলে ২৫ রান করেন। শেষে প্যাট কমিন্সও দলের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ ১৫ রান যোগ করেন। রাজস্থানের হয়ে জোফ্রা আর্চার আর রাহুল তেওটিয়া ভীষণই ভালো বোলিং করেন।

RRvsKKR: স্টিভ স্মিথের এই বড় ভুলের কারণে ৬০ রানে হারল রাজস্থান রয়্যালস 2

জয় পেয়েই প্লে অফের দিকে এগিয়েছে কলকাতা

RRvsKKR: স্টিভ স্মিথের এই বড় ভুলের কারণে ৬০ রানে হারল রাজস্থান রয়্যালস 3

লক্ষ্য তাড়া করতে নামা রাজস্থান রয়্যালস দলের শুরুটাই ভীষণই খারাপ হয়। মাত্র ৩৭ রানেই তারা দলের ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে। বেন স্টোকস ১৮ রান করেন। অন্যদিকে স্টিভ স্মিথ, রবিন উথাপ্পা আর সঞ্জু স্যামসন দারুণভাবে ব্যর্থ হন। অন্যদুকে রিয়ান পরাগও প্রভাব ফেলতে ব্যর্থ হন। জোস বাটলার আজ এই ম্যাচে ৩৫ রান করেন। কিন্তু তিনিও দলের হার এড়াতে পারেননি। যে কারণেই রাজস্থান রয়্যালস দলকে ৬০ রানে হারের মুখে পড়তে হয়। এই হারের ফলেই রাজস্থান রয়্যালসের প্লে অফে যাওয়ার আশা একেবারেই শেষ হয়ে গিয়েছে। এই ম্যাচে রাজস্থান অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ সঠিকভাবে দল গঠন করতে পারেননি সেই সঙ্গে তিনি নিজের দলের বোলারদেরও সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারেননি, যা দলের হারের একটি বড় কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

RRvsKKR: স্টিভ স্মিথের এই বড় ভুলের কারণে ৬০ রানে হারল রাজস্থান রয়্যালস 4

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *