AUSvsBAN:ম্যাচে হল মোট ১৬টি ঐতিহাসিক রেকর্ড, ডেভিড ওয়ার্নার করলেন রেকর্ড বৃষ্টি 1

আইসিসি একদিনের বিশ্বকাপে আজ অস্ট্রেলিয়া আর বাংলাদেশের দল মুখোমুখি হয়েছিল। এই ম্যাচে টসে জিতে অস্ট্রেলিয়া প্রথমে ব্যাট করে ৩৮১/৫ রানের বিশাল স্কোর খাড়া করে। দলের হয়ে ডেভিড ওয়ার্নার সবচেয়ে বেশি ১৬৬ রান করেন। বাংলাদেশের দলের সামনে ম্যাচ জেতার জন্য ৩৮২ রানের লক্ষ্য ছিল। বাংলাদেশ এই লক্ষ্যের জবাবে মাত্র ৩৩৩/৮ রানই করতে পারে আর এই ম্যাচে ৪৮ রানে হেরে যায়। দলের হয়ে উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম অপরাজিত সেঞ্চুরি ইনিংস খেলেন।

এক নজর দেখে নেওয়া যাক এই ম্যাচে হওয়া প্রধান কিছু রেকর্ডসের দিকে:

AUSvsBAN:ম্যাচে হল মোট ১৬টি ঐতিহাসিক রেকর্ড, ডেভিড ওয়ার্নার করলেন রেকর্ড বৃষ্টি 2

১. এই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার দল ৩৮১/৫ রান করে। একদিনের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কোনো দলের এটা দ্বিতীয় সবচেয়ে বড়ো স্কোর। প্রথম স্কোর ৩৮৬/৬ ইংল্যাণ্ড করেছিল বাংলাদেশের বিরুদ্ধে।

২. অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার দলের এটি দ্বিতীয় সবচেয়ে বড়ো স্কোর। তাদের প্রথম বড়ো স্কোর ৪১৭/৬ ছিল আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ২০১৫য়।

৩. অস্ট্রেলিয়ার করা ৩৮১/৫ বাংলাদেশ আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে একদিনের ইতিহাসের সবচেয়ে বড়ো স্কোর। এর আগে তাদের বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বড়ো স্কোর ৩৬১/৮ ছিল যা অস্ট্রেলিয়া ২০১১য় ঢাকার মাঠে করেছিল।

৪. অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারণ ফিঞ্চ আজকের ম্যাচে এই বছর একদিনের বিশ্বকাপে নিজের এক হাজার রান পূর্ণ করেছেন। এই উপলব্ধী হাসিল করা ফিঞ্চ এই বছরের প্রথম ব্যাটসম্যান হলেন। অ্যারণ ফিঞ্চ এই বছর ওয়ানডেতে ১৯টি ইনিংসে ১০৩০ রান করেছেন।

AUSvsBAN:ম্যাচে হল মোট ১৬টি ঐতিহাসিক রেকর্ড, ডেভিড ওয়ার্নার করলেন রেকর্ড বৃষ্টি 3

৫. অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার এই ম্যাচে ১৬৬ রানের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি ইনিংস খেলেন। ওয়ানডের ইতিহাসে এটা ষষ্ঠবার হল যখন ওয়ার্নার ১৫০+ স্কোর করলেন।

৬. ডেভিড ওয়ার্নারের এটি একদিনের আন্তর্জাতিকে ১৬তম অন্যদিকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রথম সেঞ্চুরি ছিল।

৭. ডেভিড ওয়ার্নারের ১৬৬ রান একদিনের বিশ্বকাপে যে কোনো অস্ট্রেলিয়ার দ্বারা খেলা দ্বিতীয় সবচেয়ে বড়ো ইনিংস। প্রথম স্থানেও রয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার যিনি ১৭৮ রানের ইনিংস খেলেছিলেন আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে।

৮. এই ম্যাচে ডেভিড ওয়ার্নার ১৬ রান করেছেন, এটি অস্ট্রেলিয়া আর বাংলাদেশের মধ্যে ম্যাচে একদিনের ইতিহাসের দ্বিতীয় সবচেয়ে বড়ো ইনিংস। প্রথম স্থানে শেন ওয়াটসনের (১৮৫*) নাম রয়েছে।

AUSvsBAN:ম্যাচে হল মোট ১৬টি ঐতিহাসিক রেকর্ড, ডেভিড ওয়ার্নার করলেন রেকর্ড বৃষ্টি 4

৯. ডেভিড ওয়ার্নার একদিনের বিশ্বকাপের ইতিহাসের প্রথম এমন খেলোয়াড় হলেন যিনি দুবার ১৫০+ স্কোর করেছেন। এই ম্যাচের আগে ২০১৫ বিশ্বকাপে ওয়ার্নার আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ১৭৮ রান করেছিলেন।

১০. ডেভিড ওয়ার্নারের এটি ১৬তম সেঞ্চুরি। এই বিষয়ে ওয়ার্নার গিলক্রিস্টের ১৬টি সেঞ্চুরিকে ছুঁলেন।

১১. ওয়ানডেতে ১৬টি সেঞ্চুরি করতে ওয়ার্নার ১১০টি ইনিংসের মুখোমুখি হন। ওয়ানডেতে তিনি সবচেয়ে দ্রুত ১৬টি সেঞ্চুরি করা তৃতীয় খেলোয়াড় হলেন। তার আগে হাসিম আমলা (৯৪) আর বিরাট কোহল (১১০)র নামে রয়েছে।

১২. এই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া প্রথম আর দ্বিতীয় উইকেটের জন্য সেঞ্চুরি পার্টনারশিপ করেছে। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এটা চতুর্থবার যখন কোনো দল এক ম্যাচে প্রথম আর দ্বিতীয় উইকেটে সেঞ্চুরি পার্টনারশিপ করল।

AUSvsBAN:ম্যাচে হল মোট ১৬টি ঐতিহাসিক রেকর্ড, ডেভিড ওয়ার্নার করলেন রেকর্ড বৃষ্টি 5

১৩. শাকিব আল হাসান এই টুর্নামেন্টে নিজের ৪০০ রান পূর্ণ করলেন। বাংলাদেশের ইতিহাসে তিনি সবচেয়ে প্রথম এমন খেলোয়াড় হলেন যিনি কোনো এক টুর্নামেন্টে ৪০০ বা তার বেশি রান করলেন।

১৪. সৌম্য সরকার এই ম্যাচে ৫৮ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন। একদিনের ক্রিকেটে বোলার হিসেবে এটি তার সর্বশ্রেষ্ঠ প্রদর্শন।

১৫. ডেভিড ওয়ার্নার বিশ্বের প্রথম এমন খেলোয়াড় হলেন যিনি আলাদা আলাদা ৬টি দলের বিরুদ্ধে ১৫০+ স্কোর করেছেন। ডেভিড ওয়ার্নার শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ১৬৩, আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ১৭৮, দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ১৭৩, নিউজিল্যাণ্ডের বিরুদ্ধে ১৫৬ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১৭৯ আর বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ১৬৬ রনা করেছেন।

১৬. মুশফিকুর রহিম এই ম্যাচে ১০২* রান করেছেন। ওয়ানডেতে রহিমের এটি সপ্তম অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম সেঞ্চুরি।

AUSvsBAN:ম্যাচে হল মোট ১৬টি ঐতিহাসিক রেকর্ড, ডেভিড ওয়ার্নার করলেন রেকর্ড বৃষ্টি 6

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *