জার্মানির জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পেয়ে সবাইকে চমকে দিলেন এই ভারতীয় ক্রিকেটারটি! 1

অধিকাংশ ভারতীয় ছেলেদের মত তামিলনাড়ুর ভেঙ্কটরামন গনেশনের ক্রিকেটের প্রতি ভালোবাসা ছোটবেলা থেকেই। ২০০৬ সাল পর্যন্ত তামিলনাড়ুতে জুনিয়র লেভেলে রবিচন্দ্রন অশ্বীন, দীনেশ কার্তিক, মুরলি বিজয় এবং লক্ষ্মীপতি বালাজিদের সঙ্গে খেলেছেন গনেশন। খেলেছেন নিজ রাজ্যের প্রথম ডিভিশন লিগেও। ২০১২ সালে তথ্যপ্রযুক্তির চাকরি পেয়ে গনেশন চলে আসেন জার্মানিতে। তারপর থেকে সেখানেই বসবাস শুরু করেন তিনি। কিন্তু ক্রিকেটের প্রতি তাঁর ভালোবাসা সেই আগের মতই ছিল। আর এবার সেই জার্মানির হয়েই মাঠে নামার সুযোগ এসেছে গনেশনের সামনে। আইসিসির ডিভিশন ওয়ান ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশীপ, যেটি আগামী ১১ জুন থেকে শুরু হতে চলেছে নেদারল্যান্ডসে, সেখানে জার্মানির হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবেন গনেশন।

Image result for bcci logo

স্বাভাবিকভাবেই উচ্ছ্বসিত গনেশন একটি সংবাদ মাধ্যমে বলেন, ‘আমি খুব আনন্দিত এবং উত্তেজিত। এরকম যে হতে পারে, সেটার প্রত্যাশা করিনি কখনোও। ২০০৬ সালে পারিবারিক কিছু কারণে ক্রিকেট খেলা ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছিলাম। এখন অবশ্য আমি এক দেশের জাতীয় দলের সদস্য। একজন অপেশাদার ক্রিকেটার হয়ে, কোনও দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা সহজ কাজ নয়। এই বিষয়ে আমার পরিবার আমাকে সবসময়ই উৎসাহ দেয়। পরিবারের সদস্যদের সাহায্য ছাড়া কখনোই এই জায়গায় আসতে পারতাম না। তাদের জন্য একজন আইটি কর্মী এবং ক্রিকেটার হিসাবে ‘ব্যালেন্স’ করে চলতে পারি।’

ফুটবল পাগল জার্মানিতে তিনি কিভাবে ক্রিকেটে এলেন? তা নিয়ে বলতে গিয়ে গনেশন আরও বলেন, ‘ইন্টরনেটে সার্চ করে দেখলাম, এখানে কয়েকটি ক্লাব ৫০ এবং ২০ ওভারের ক্রিকেট খেলে। বছর দু’য়েক আগেই ভেবেছিলাম, জার্মানিতে ক্রিকেট খেলার সুযোগ রয়েছে। তখন থেকেই নিজের ফিটনেস ঠিকঠাক রাখার জন্য প্রচুর খাটাখাটনি করেছি। পরে  ‘ডাসেলডরফ ব্ল্যাকক্যাপস ক্রিকেট ক্লাবের’ হয়ে খেলার সুযোগ পাই। তারপরে সেখানকার রাজ্য দল ‘ওয়েস্টার্ন ঈগল’-এর হয়ে ভালোই খেলি। গতবছর ন্যাশনাল ক্যাম্পে একটি অনুশীলন ম্যাচে শতরান করার পরেই নির্বাচকদের নজরে পড়ি।’

এরই সঙ্গে গনেশন বলেন, ‘আমাদের এই জার্মানি দলের অধিনায়কও একজন ভারতীয়। ওর নাম-ঋষি পিল্লাই। প্রতিযোগিতায় জার্মানি ছাড়া রয়েছে অস্ট্রিয়া, ফ্রান্স, বেলজিয়াম, সুইডেন ও নরওয়ে। যারা চ্যাম্পিয়ন হবে তারা ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট লিগ ডিভিশন-৫-এ খেলার সুযোগ পাবে।’ গনেশন জানাচ্ছেন, জার্মানিতে তাঁরা অ্যাস্ট্রোটার্ফ পিচে খেলেন, নেদারল্যান্ডসে প্রতিযোগিতায় টার্ফ উইকেটে খেলাটাই তাদের কাছে মু্খ্য চ্যালেঞ্জ হতে যাচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *