বিসিসিআইকে বুড়ো আঙুল, মাঠে নামছেন শ্রীসন্থ 1

বিশেষ প্রতিবেদন: ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে অনেকদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে ভারতের ফার্স্ট বোলার এস শ্রীসন্থ। যদিও খেলায় ফেরার চেষ্টায় কোনও খামতি নেই তাঁর। গড়াপেটার জন্য বিসিসিআই তাঁকে আজীবন নির্বাসনে পাঠিয়ে দিয়েছে। এবার অবশ্য ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এই নিদানকে একপ্রকার চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ফের মাঠে নামছেন শ্রীসন্থ। ১৯ ফেব্রুয়ারি এরনাকুলাম স্পোর্টস ক্লাবের হয়ে প্রথম ডিভিশনের দু’দিনের একটি লিগের ম্যাচে খেলবেন এই ভারতীয় পেসার। উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে স্কটল্যান্ডের গ্লেনরথস ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে খেলার ব্যাপারে ভারতীয় বোর্ড তাঁকে ‘এনওসি’ দিতে অস্বীকার করে।

বাংলাদেশের স্পিন-পরামর্শদাতা হচ্ছেন এই কিংবদন্তি ভারতীয় স্পিনারটি

কেরলের ক্লাবের হয়ে খেলা নিয়ে শরীসন্থ বলেন, ‘আমাকে যে নির্বাসিত সেটা বিসিসিআই কোন সরকারী চিঠি দিয়ে জানায়নি। তাহলে আমাকে কেন খেলতে দেওয়া হবে না?’ এরই সঙ্গে তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমি যখন তিহার জেলে ছিলাম তখন একটি সাসপেনশনের চিঠি পেয়েছিলাম। তবে যে কোন সাসপেনশন হয় ৯০ দিনের। বিসিসিআই আমার নির্বাসনের কথা শুধুমাত্র মিডিয়ার সামনেই বলেছে। সরকারীভাবে কোন চিঠি এই বিষয়ে দেওয়া হয়নি। আমি এতদিন ধরে না খেলে বোকামি করেছি। এখন বুঝতে পারছি আমাকে নিয়ে কী চলছে।’

ভিডিও – শেষ পর্যন্ত আম্পায়ারের ওপরই ক্ষেপে গেলেন বিরাট কোহলি

এ দিকে, শ্রীসন্থের মাঠে ফেরার খবর কানে পৌঁছোয় বিসিসিআইয়ের। সঙ্গে সঙ্গে বোর্ডের তরফ থেকে এক কর্তা হুঁশিয়ারি দিয়ে দেয়, যে ক্লাব তাঁকে খেলার সুযোগ দেবে, সেই ক্লাবকেও নির্বাসিত করা হবে। তবে এরনাকুলাম স্পোর্টস ক্লাব এই ভারতীয় পেস বোলারকে খেলানোর ব্যাপারে বদ্ধপরিকর। ক্লাবের এই পাশে থাকাকে কুর্নিশ জানিয়ে শ্রীসন্থ বলেন, ‘আমাকে মাঠে ফেরানো নিয়ে ওরা খুব উত্তেজিত এবং খুশি। যদিও আমার ওপর সরকারীভাবে কোন নির্বাসন নেই, তাও আমার আইনজীবিরা আমার মাঠে নামা নিয়ে কোন সমস্যা তৈরি হলে তা মোকাবিলা করার জন্য তৈরি হচ্ছে। যদি ওরা সত্যিই আমাকে ব্যান করতে চায়, তাহলে অবশ্যই চিঠি দিতে হবে। আর সেটা না হলে আমি কেলবই। এতে বিতর্ক হলে হবে। আমার সঙ্গে একজন সন্ত্রাসবাদীর থেকেও খারাপ ব্যবহার করা হচ্ছে।’

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *