চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ঠিক আগেই, বিসিসিআই আজীবন নির্বাসনে পাঠাল এই খেলোয়াড়কে! 1
এস শ্রীসন্থ

জোড় ধাক্কা পেল ভারতের নির্বাসিত পেস বোলার সান্তকুমারণ শ্রীসন্থের আবেদন। আইপিএলে ম্যাচ ফিক্সিং করার অপরাধে তাঁকে ক্রিকেট থেকে নির্বাসনে পাঠায় বিসিসিআই। এই নির্দেশ অনুযায়ী কোনও রকমের প্রতিযোগীতামূলক ক্রিকেটে তিনি অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। কিন্তু তার উপর আরোপিত এই নির্বাসন তুলে নেওয়ার জন্য শ্রীসন্থ কেরালা হাই কোর্টে এক আবেদন করেছিলেন এই বছরের গোড়ার দিকে। এবার সেই আবেদনেও কোনও কাজ হলনা।

বিশ্বকাপজয়ী অন্ধ ক্রিকেট দলকে আর্থিক অনুদান দিতে চায় শ্রীসন্থ

২০১৩ সালে আইপিএলের ম্যাচ ফিক্সিংয়ের জেরে রাজস্থান রয়্যালসের তিন ক্রিকেটারদের নির্বাসনে পাঠানো হয়, যাদের মধ্যে ছিলেন শ্রীসন্থও। শুধু মাত্র আইপিএল থেকেই নয়, যেকোনও ধরনের প্রতিযোগীতামূল ক্রিকেটই খেলতে পারবেন না এই খেলোয়াড়রা, এমনই ফতোয়া জারি করে বিবিসিআই। বহুদিন ক্রিকেট থেকে বাইরে থাকা শ্রীসন্থ বিদেশের টি টোয়েন্টি লিগ খেলার জন্য বিসিসিআইয়ের কাছে ছাড়পত্র চান। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দেয় ভারতীয় ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা। এরপর এই বছরের গোড়ার দিকে কেরালা হাইকোর্টে তাঁর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার জন্য এক আবেদন জানান এই বোলার। সেই কারনেই বিসিসিইকে এক নোটিস পাঠিয়েছিল কেরালা হাইকোর্ট। এবার সেই নোটিসেরই জবাব দিল বোর্ড।

বিসিসিআইয়ের এক কর্তা বলেন, “বিসিসিআই জানিয়ে দিয়েছে প্রতিযোগীতামূলক ক্রিকেটে শ্রীসন্থের উপর নিষেধাজ্ঞা সরানো হবে না। উনি এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার বিষয়ে কেরালার স্থানীয় আদালতে আবেদন করেছিল। আমাদের আইনি পরামর্শদাতা কোর্টকে এই কথা জানিয়ে দিয়েছে।” তিনি আরও বলেন, “দূর্ণীতির সঙ্গে কোনওভাবেই আপোষ করবে না বিসিসিআই। কোনও আদালতেই এটা বলা হয়নি শ্রীসন্থ দূর্ণীতির সঙ্গে যুক্ত ছিল না। এই দূর্ণীতির যোগ সরাসরি আন্ডারওয়াল্ডের সঙ্গে ছিল। যদিও নিম্ন আদালত সেটা পরে নাকচ করে দেন।”

এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ব্রিটেনের টি টোয়েন্টি লিগে খেলার সম্ভাবনা প্রায় হারিয়েই গেল শ্রীসন্থের। এবার তিনি কী পদক্ষেপ নেন সেটাই এখন দেখার।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *