এতদিন পর সত্য়িটা সামনে এল, কেনো সেদিন কোমরে তোয়ালে গুঁজে হঠাই বল করতে শুরু করেছিলেন কেরলের পেসার সান্থাকুমারণ শ্রীসন্থ। সব ঝামেলার সূত্রপাত ক্রিকেটার হিসেবে তাঁর অন্ধবিশ্বাসে। আর তা থেকেই এতবড় ভুল বোঝাবুঝি, অভিযোগের মাঝে কেরিয়ার প্রায় শেষ হয়ে যাওয়া। এত বড় অভিযোগের পেছনে যে এত সামান্য় কারণ, না শুনলে কেউ বিশ্বাসই করবেন না। অবশ্য় সবটাই শ্রীসন্থের দাবি। যাঁরা অন্ধবিশ্বাস মানেই তাঁরাই এই বক্তব্য়কে যুক্তিগ্রাহ্য় বলে ধরতব্য়ের মধ্য়ে আনবেন।
২০১৩ সালে আইপিএলের দু’টি ফ্র্য়াঞ্চাইজির বিরুদ্ধে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ ওঠে। চেন্নাই সুপার কিংস ও রাজস্থান রয়্য়ালসকে দোষী পাওয়ায় ২০১৫ সালের আইপিএলের পর দুই দলকেই দু’বছরের জন্য় সাসপেন্ড করে ভারতীয় ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)। ২০১৩ সালেই শ্রীসন্থসহ রাজস্থান ফ্র্য়াঞ্চাইজির তিন ক্রিকেটার বিরুদ্ধে স্পট-ফিক্সিং’য়ের অভিযোগ উঠেছিল। সে অভিযোগ প্রমাণ না হলেও ভারতীয় ক্রিকেটে শ্রীসন্থের জন্য় দরজা একেবারেই বন্ধ করে দিয়েছে বিসিসিআই। আদালত তাঁকে বেকসুর খালাস করে দিলেও বিসিসিআই কেরলের পেস বোলারটিকে নিয়ে নতুন করে ভাবনা-চিন্তা করেনি। আদালত নির্দোষ ঘোষণা করে দিলেও বিসিসিআই তাদের আগের অবস্থানেই অনড়। কিন্তু, দেশের হয়ে ক্রিকেট খেলতে মরিয়া শ্রী কেরালা হাইকোর্টে মামলা করেন। সেখানেও তাঁর পক্ষে রায় দিয়েছে আদালত। তবে, আদালতে রায়কে এখনও মানতে রাজি নয় বিসিসিআই। শ্রীসন্থের পক্ষে আদালত যে রায় দিয়েছে, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড তাকে চ্য়ালেঞ্জ করে উচ্চতর আদালতে যেতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। আগামী দিনে শ্রীসন্থের ক্রিকেট ভবিষ্য়ৎ কোন দিকে মোড় নিচ্ছে তা এখনও অনিশ্চিত। তবে, বাড়িতে নিজস্ব নেটে প্রাক্টিস শুরু করে দিয়েছেন কেরলের এই পেসার। ম্য়াচ ফিট হয়ে ওঠাই এখন লক্ষ্য় তাঁর।
আদালতে শ্রীসন্থের বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ দেখানো যেতে পারেনি যে তিনি দোষী। কিন্তু, প্রশ্নটা এখনও রয়ে গিয়েছে, শ্রী সেদিন হঠাৎ করে কোমরে তোয়ালে গুঁজে বল করতে কেন শুরু করলেন? একটি বেসরকারি বিদেশি সংবাদমাধ্য়মকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কয়েকদিন আগে কেরলের এই পেস বোলার সেই রহস্য়ের জট খোলেন। শ্রী’র মুখেই শুনে নেওয়া যাক তাঁর বক্তব্য়, ”ওঁরা বলছেন, জিজু (জনার্দন) বলেছে, শ্রীসন্থ (বুকিদের) ইশারা করতে হাতে আর্মব্য়ান্ড, নাহলে কোমরে তোয়ালে বা ওরকম কিছু জিনিস দেখাবে – আগে থেকেই ঠিক করা ছিল। কিন্তু, এসব তো আমার বহুদিনের অভ্য়েস। ক্রিকেট মাঠে প্রায় দিনই এমনটা করে থাকি। কারণ, আমার অ্য়ালান ডোনাল্ডকে খুব পছন্দ। তাই আমি ক্রিকেট মাঠে ওঁকে নকল করার চেষ্টা করি। এমনকী, ডোনাল্ডের মতো আমি মুখে জিঙ্ক অক্সাইড লাগিয়েও মাঠে নামতাম। তাহলে সেটাকেউ কি ওঁরা বুকিদের ইশারা করা বলবেন? ম্য়াচ-ফিক্সিং বলবেন? কুসংস্কারে বিশ্বাসী হওয়া কি অপরাধ? ওই দিন প্রথম ওভারে বল করার সময় আমি ওই ম্য়াচের আম্পায়ার কুমার ধরমসেনার কাছে অনুমতি চাই, কোমরে তোয়ালে গুঁজে বল করতে পারব কি না? কারণ, ডোনাল্ডের মতো কোমরে তোয়ালে গুঁজে বল করলে আমার আত্মবিশ্বাস বাড়ে। আমি স্টাম্পের একেবারে কাছে দাঁড়িয়ে অনুমতি চেয়েছিলাম। স্টাম্পে তো মাইক্রোফোন থাকে। ওতে তা ধরা পড়েছিল বলে আমার মনে হয়। আমি শুধু ডোনাল্ডকে নকল করতে গিয়েছিলাম। এর পেছনে অন্য় কোনও কারণ ছিল না।”

  • SHARE
    A sports enthusiast and a critic. Journalism is all about being unbiased to create positive influence from negative angle.

    আরও পড়ুন

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি
    তার ব্যাটিং প্রতিভা নিয়ে সন্দেহ নেই কারও। সকলেই একবাক্যে স্বীকার করে নিয়েছেন যে তিনি ব্যাটিংয়ের জিনিয়াস। তামাম...

    প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে সদ্য সমাপ্ত একদিনের সিরিজে যে যে রেকর্ড গড়লেন ভারত অধিনায়ক বিরাট

    তার শ্রেষ্ঠত্ব মেনে নিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের সকলেই। বিশ্বের সর্বকালের সেরা একদিনের ক্রিকেটার হিসেবে তাকে মেনেও নিয়েছেন সকলে।...

    আইপিএলের প্রথম ম্যাচে খেলতে পারবেন না এই দুই অস্ট্রেলীয়

    আর মাত্র দেড় মাস বাকি আইপিএল শুরুর। এই মুহুর্তে স্ট্রাটেজি বানাতে শুরু করে দিয়েছে সমস্ত ফ্রেঞ্চাইজিই। কিন্তু...

    পিএনবি কান্ডে পরোক্ষে নাম জড়ালো বিরাটের, পিএনবির সঙ্গে গাঁটছড়া ছিন্ন করার কথা ভাবছেন তিনি

    পিএনবি কান্ডে পরোক্ষে নাম জড়ালো বিরাটের, পিএনবির সঙ্গে গাঁটছড়া ছিন্ন করার কথা ভাবছেন তিনি
    এই মুহুর্তে পাঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাঙ্কের দুর্নীতিতে গোটা দেশই নড়ে গিয়েছে। ১১ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি এই মুহুর্তে...

    বিরাটের নামে বাজারে আসতে চলেছে গাড়ি, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা এই শিল্পপতির

    বিরাটের নামে বাজারে আসতে চলেছে গাড়ি, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা এই শিল্পপতির
    একের পর এক রেকর্ড ধুলিস্যাত হচ্ছে তার ব্যাটের ঘায়ে। বর্তমান প্রজন্মের কথা ছেড়ে দিলেও ইতিমধ্যেই তার নাম...