মুখ খুললেন না সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, কারণটা জানলে অবশ্যই অবাক হবেন 1

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, শচীন তেন্ডুলকর, ভিভিএস লক্ষ্মণ সমৃদ্ধ বিসিসিআইয়ের উপদেষ্টা কমিটি ক’দিন আগেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ হিসেবে বেছে নেয় রবি শাস্ত্রীকে। পাশাপাশি জাতীয় দলের বোলিং কোচ হিসেবে জাহির খানের পাশাপাশি ব্যাটিং পরামর্শদাতা রূপে রাহুল দ্রাবিড়কে তারা বেছে নেয়। কিন্তু জাতীয় দলের প্রধান কোচ শাস্ত্রীর আপত্তিতে শেষমেশ বোর্ড তাঁরই পছন্দের সাপোর্ট স্টাফকে নিয়োগ করতে বাধ্য হল। সৌরভ, শচীন, লক্ষ্মণের দ্বারা তৈরি উপদেষ্টা কমিটির সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে শাস্ত্রীর পছন্দের ভরত অরুণকে কোহলিদের বোলিং কোচ এবং সঞ্জয় বাঙ্গারকে সহকারি কোচ হিসেবে (যিনি আসলে ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব পালন করবেন)নিয়োগ করতে হল বিসিসিআইকে। শাস্ত্রীর আবদারে বিসিসিআই শেষমেশ নিজেদের উপদেষ্টা কমিটির সিদ্ধান্ত ফিরিয়ে দিলেও, বর্তমান ভারতীয় দলে সদ্য নিযুক্ত বোলিং কোচ ভরত অরুণকে নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে নারাজ সিএবি প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

বোর্ডের উপদেষ্টা কমিটির ইচ্ছার বিরুদ্ধে গিয়ে নতুন বোলিং কোচ হিসেবে ভরত অরুণকে বেছে নেওয়ার পরই প্রিন্স অফ ক্যালকাটা সৌরভকে সে ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে এর আগে আমি অনেক কিছুই বলে ফেলেছি। এই মুহূর্তে এ ব্যাপারে নতুন কিছু আর বলতে চাই না।’ক’দিন আগে এই উপদেষ্টা কমিটির তিন সদস্য রবি শাস্ত্রীর পাশাপাশি জাহির, দ্রাবিড়কে জাতীয় দলে রাখার ব্যাপারে সুপারিশ করেন। খোদ সৌরভ জানিয়েছিলেন, জাহির জাতীয় দলের বোলিং কোচ হিসেবে ক্রিকেটারদের বছরে ১৫০ দিন সময় দিতে পারবেন। তবে বিসিসিআই এরইমধ্যে ভরত অরুণকে বোলিং কোচ এবং বাঙ্গারকে রবি শাস্ত্রীর সহকারি কোচ হিসেবে নিয়োগ করে ফেলে। এই অবস্থায় জাহির এবং দ্রাবিড়ের ভারতীয় সিনিয়র ক্রিকেট দলের কোচিংয়ে ভবিষ্যত অনেকটা অনিশ্চিত হয়ে গেল। এ ব্যাপারে বোর্ড সচিব অমিতাভ চৌধুরি অবশ্য বলেছেন, ‘এখনও পর্যন্ত এই দুই কিংবদন্তিকে নিয়ে বোর্ড কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছায়নি।’

বিসিসিআই সচিবের এমন উক্তির আগেই অবশ্য বোর্ড ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের পাশাপাশি বাকি সাপোর্ট স্টাফদের নাম সরকারিভাবে ঘোষণা করে দিয়েছে। আগামী ২৬ জুলাই থেকে শুরু হওয়া শ্রীলঙ্কা সফরে কোচিং করতে দেখা যাবে শাস্ত্রীর পছন্দের সাপোর্ট স্টার্ফদের। যেখানে বোলিং কোচের ভূমিকায় দেখতে পাওয়া যাবে ভরত অরুণকে। ব্যাটিং কোচের জায়গায় শাস্ত্রীর ডেপুটি সঞ্জয় বাঙ্গারকে। এবং ফিল্ডিং কোচ হিসেবে থাকবেন আর শ্রীধর। উল্লেখ্য, ভারতের অনূর্ধ্ব ১৯ দলের কোচিং করানোর সময় শাস্ত্রীর সঙ্গে দারুণ একটা সম্পর্ক তৈরি হয় ভরত অরুণের। এমনকি রবি শাস্ত্রী শেষবার যখন ভারতীয় ক্রিকেট দলের টিম ডিরেক্টর হিসেবে নিজের দায়িত্ব পালন করেছেন, তখনও এই ভরত অরুণ ভারতের বোলিং কোচ ছিলেন। এবার দেখার আগামী ২৬ জুলাই থেকে শ্রীলঙ্কায় শুরু হতে চলা সিরিজে শাস্ত্রীর কোচিংয়ে কেমন পারফরম্যান্স করে কোহলির টিম ইন্ডিয়া।

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published.