অবশেষে সেই স্পেশ্যাল দিনটি চলে এলো যুবরাজ সিংয়ের কাছে। নিজের একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ৩০০তম ম্যাচ খেলার পথে এগিয়ে এলেন তিনি। এদিন এজবাস্টনে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ম্যাচে ভারত মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচের মাধ্যমে ৩০০-তম একদিনের আর্ন্তজাতিক ম্যাচ খেলার নজির গড়ে ফেললেন যুবি। ২০০০ সালে নাইরোবিতে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেই অভিষেক হয়েছিল যুবরাজের। তারপর থেকে ভারতের এই নামজাদা অলরাউন্ডার ক্রিকেটারকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। গোটা দুনিয়া জুড়ে সাফল্যের সঙ্গে ক্রিকেট খেলে তিনি নিজেকে আলাদা এক উচ্চতায় তুলে নিয়ে গিয়েছেন। ২০১১ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে ট্রফি জয়ের পাশাপাশি ভারতীয় দলকে ধারাবাহিকভাবে ব্যাট এবং বল হাতে ভরসা দিয়ে যুবি নিজের নামের প্রতি সুবিচার করেছিলেন। পাশাপাশি সে বিশ্বকাপে নজরকাড়া ক্রিকেট খেলে সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার জিতেছিলেন।

এখানে দেখুনঃ নিজেকে ভাগ্যবান বলে মনে করেন যুবরাজ, কিন্তু কেন? কারণটা জানলে চোখ দিয়ে জল চলে আসবে

চোট এবং অফ ফর্মের কারণে দীর্ঘদিন তিনি জাতীয় দলের বাইরে থেকে গিয়েছিলেন। যদিও ঘরোয়া ক্রিকেটে ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলার সুবাদে ফের তিনি জাতীয় দলে খেলার ডাক পান। চলতি বছরের জানুয়ারিতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতীয় দলের হয়ে শতরান হাঁকিয়ে সবাইকে নিজের উপস্থিতি টের পাইয়ে দেন যুবরাজ। সেবারে ১২৭ বলে ১৫০ রানের একটি ইনিংস খেলে বসেন। ২০১১ সালের বিশ্বকাপের পর ওটাই ছিল যুবির প্রথম শতরান। ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওই সিরিজের নজরকাড়া পারফরম্যান্স করেই চলতি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দলেও নিজের জায়গা পাকা করেন তিনি।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যাট হাতে আবারও ঝলসে ওঠে তাঁর ব্যাট। ৩২ বলে অনবদ্য ৫৩ রানের ইনিংস খেলে বসেন তিনি। পাকিস্তান ম্যাচে যুবি অসাধারণ ব্যাট করতে সক্ষম হলেও, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে গ্রুপের পরের দুটি ম্যাচে সেভাবে কিছু করে দেখাতে পারেননি তিনি। যদিও ক্রিকেটভক্তদের বিশ্বাস, এজবাস্টনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় সেমিফাইনালে নিজের ৩০০-তম ওয়ান ডে ম্যাচের দিনে বিস্ফোরক একটা ইনিংস খেলে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেবেন।

নতুন মাইলস্টোন স্পর্শ করার জন্য যুবিকে এরইমধ্যে অনেকেই অভিন্দন জানিয়েছেন। সে তালিকায় লক্ষ্মণ, সেহওয়াগ আগেই ঢুকে পড়েছিলেন। এবার তাতে নুতন করে যুক্ত হলো প্রিন্স অফ ক্যালকাটা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নাম। একদা জাতীয় দলের সতীর্থ এবং অধিনায়ক সৌরভ এদিন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইট ট্যুইটারে যুবরাজকে ৩০০তম ম্যাচ খেলার শুভেচ্ছা জানিয়ে লেখেন, “তোমার এই সাফল্যে আমি গর্বিত। ৩০০টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলা বিরাট ব্যাপার। অবসর নেওয়ার আগে তোমার হাতে একটা বিশ্বকাপ দেখতে চাই।”

সৌরভ গাঙ্গুলি ও যুবরাজ সিং-এর পুরানো একটি ছবি

এখানে দেখুনঃ ৩০০-তম ওয়ানডের আগে যুবরাজকে কি বললেন সহবাগ, দেখলে চোখে জল আসবে…

  • SHARE

    আরও পড়ুন

    খুশির খবর: বিরাটকে নিয়ে সংশয় জারি, কিন্তু বুমরাহের পর এই ভারতীয় খেলোয়াড়ও হলেন তৃতীয় টেস্টের জন্য ফিট

    খুশির খবর: বিরাটকে নিয়ে সংশয় জারি, কিন্তু বুমরাহের পর এই ভারতীয় খেলোয়াড়ও হলেন তৃতীয় টেস্টের জন্য ফিট
    ভারতীয় দল এবং ইংল্যান্ড দলের মধ্যে পাঁচ টেস্ট ম্যাচের সিরিজের তৃতীয় ম্যাচ আগামি ১৮ আগস্ট থেকে ট্রেন্টব্রিজ...

    এই প্লেয়ার আইপিএলে পান নি কোনও দল, এখন টিএনপিএলে করলেন সবচেয়ে বেশি রান

    এই প্লেয়ার আইপিএলে পান নি কোনও দল, এখন টিএনপিএলে করলেন সবচেয়ে বেশি রান
    আইপিএলের নিয়মেই তামিলনাড়ু প্রীমিয়ার লীগ খেলা হয়। টিএনপিএলের ২০১৮ মরশুম রবিবার শেষ হল। টিএনপিএলের এই মরশুমের চ্যাম্পিয়ন...

    বেন স্টোকের মামলায় আদালত শোনল নিজের রায়, জেনে নিন ছাড়া পেলেন নাকি মিলল সাজা

    বেন স্টোকের মামলায় আদালত শোনল নিজের রায়, জেনে নিন ছাড়া পেলেন নাকি মিলল সাজা
    ভারতীয় দল আর ইংল্যান্ডের মধ্যে পাঁচ টেস্ট ম্যাচের সিরিজ ইংল্যান্ডের মাটিতেই খেলা হচ্ছে। বর্তমানে ইংল্যান্ড দল এই...

    ভারত বনাম ইংল্যান্ড: গৌতম গম্ভীর এই ভারতীয় খেলোয়াড়কে করলেন ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাওয়া লজ্জাজনক হারের জন্য দায়ী

    ভারত বনাম ইংল্যান্ড: গৌতম গম্ভীর এই ভারতীয় খেলোয়াড়কে করলেন ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাওয়া লজ্জাজনক হারের জন্য দায়ী
    ভারত আর ইংল্যান্ডের মধ্যে চলা টেস্ট সিরিজে ভারত প্রথম দুটি টেস্ট হেরে গিয়েছে, আর এই দুই ম্যাচ...

    ভিডিয়ো: দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ থেকে ছিটকে যাওয়া শিখর ধবন তৃতীয় টেস্ট ম্যাচের আগে করছেন এমন কিছু যে দলে জায়গা পাওয়া নিশ্চিত

    ভিডিয়ো: দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ থেকে ছিটকে যাওয়া শিখর ধবন তৃতীয় টেস্ট ম্যাচের আগে করছেন এমন কিছু যে দলে জায়গা পাওয়া নিশ্চিত
    প্রথম টেস্ট ম্যাচে খারাপ প্রদর্শনের কারণে লর্ডস টেস্ট ম্যাচ থেকে ছিটকে যাওয়া শিখর ধবন জিমে কড়া মেহেনত...