মিলে গেল প্রেমিকার ভবিষ্যতবানী, ক্রিজে বীরের ভূমিকায় স্মিথ 1
স্টিভ স্মিথ ও তাঁর বান্ধবী ড্যানি উইলিস

ওয়াটসন, ক্লার্ক, মিচেল জনসন ছাড়াই এক নব্য অস্ট্রেলিয়া, ভারতের মাটিতেই খেলবে চারটি টেস্ট ম্যাচের সিরিজ। দলনেতা স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, সন মার্শ ও মিচেল স্টার্ক ছাড়া তেমন অভিজ্ঞ খেলোয়ার নেই দলে। এদিকে, দুরন্ত ফর্মে টিম বিরাট। সদ্য দেশের মাটিতেই টেস্টে বধ করেছে ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশকে। কাজেই এই সফরে যে চমক অপেক্ষা করছে তা অবিসম্ভাবী ছিল। আবার এই চমকে আরও কিছুটা রঙ চড়িয়ে দিয়েছিল টেস্ট শুরু হওয়ার আগে অজি দলনায়ক স্টিভ নিজেই। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি ভারতকে ৪-০ তে হারাবার হুঙ্কার দেন। সব মিলিয়ে এই সফর জমে ওঠার রসদের অভাব ছিল না। আর নাটকে ভরা এই সিরিজে তৈরি হল, বাইশ গজের বাইরের আর এক নাটক।অস্ট্রেলিয়া সফরের দরুন ভারতের গুরুত্বপূর্ণ অতিথি ড্যানি উইলিস। প্রথমদিনে হসপিটালিটি বক্সের বাইরে দাঁড়িয়ে তিনি যে ভবিষ্যতবানী করলেন, তা দ্বিতীয় দিনেও মিলে গেল হুবুহু।
কে এই অতিথি? ড্যানি অজি ক্রিকেটের মহামহিম স্টিভ স্মিথের প্রেমিকা। সিডনির মাকোয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন নিয়ে পড়ার সময়ই আলাপ হয় স্মিথের সঙ্গে। তাঁর কাছ থেকেই জানা গেল, কঠিন অবস্থাতেও অজি অধিনায়কের হার না মানার গাঁথা। ড্যানি বলেন, ‘স্মিথি মানষিকভাবে অনেক শক্তিশালী। চাপের মুখে লড়াই করতে জানে।দলের দায়িত্বই ওর সেরা ক্রিকেটটা বার করে আনছে।’ পুনের ঘূর্ণি পিচে প্রথম দিনেই অস্ট্রেলিয়ার ৯ উইকেট পড়ে যায়। দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই মাত্র ২৬০ রানে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস শেষ হয়।এই ইনিংসে স্মিথের সংগ্রহ মাত্র ২৭ রান। ড্যানিকে অস্ট্রেলিয়া দলের কোণঠাসা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, তাঁদের দলের বোলাররা ঘুরে দাঁড়াবেই। হলও সেটা। মাত্র ১০৫ রানে শেষ হল ভারতীয় ইনিংস।চাপ তখনও কাটেনি অস্ট্রেলিয়ার। ব্যাট করতে নেমে আবার দ্রুত উইকেট হারায় অজিরা। কিন্তু ড্যানির কথা অনুযায়ী এবার দেখা গেল স্টিভ স্মিথের এক নতুন রূপ।দ্বিতীয় দিনের শেষে স্মিথ এখনও ক্রিজে। সংগ্রহ ৫৯ রান। চাপের মুখে কীভাবে হয় এই ভোলবদল, তা হয়ত শুধুমাত্র কাছের মানুষটিই জানেন। যেমন জানেন স্মিথির ড্যানি।
শুধুমাত্র একজন স্পোর্টস পারসনের প্রেমিকা নয়, নিজেও একজন স্পোর্টস পারসন হতে চেয়েছিলেন, জানা গেল ড্যানির কাছ থেকেই। তিনি বলেন, ‘আমি সাঁতারু ছিলাম। এক সময় ওয়াটার পোলোও খেলেছি। ভেবেছিলাম পেশাদার সাঁতারু হব। কিন্তু পড়াশোনার চাপে সেভাবে সময় দিতে পারি না’। ড্যানির পাশাপাশি আরও কিছু অজি ক্রিকেটারদের সঙ্গিনীরা এসেছেন ভারত সফরে। যেমন, ডেভিড ওয়ার্নারের স্ত্রী ক্যান্ডিস, জস হ্যাজ্লউডের বান্ধবী কেরিনা মারফি, ম্যাথু ওয়েডের স্ত্রী জুলিয়া, মিচেল মার্শের পার্টনার ইসাবেল প্ল্যাট। এদিকে স্মিথ যখন ক্রিকেট দলকে নেতৃত্ব দিতে ব্যস্ত, তখন মাঠের বাইরে একই রকমভাবে কেরিনা, ক্যান্ডিসদের নেতৃত্ব দিলেন ড্যানি।তাঁর মুখেই জানা গেল, মুম্বইয়ে প্রস্তুতি ম্যাচের সময় ক্রিকেটারদের প্রিয়জনদের মুম্বই শহর, গেটওয়ে অব ইন্ডিয়া ঘুরে দেখিয়েছেন ড্যানি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *