কোহলির বিরুদ্ধে উঠল জঘন্য অভিযোগ, পাশে দাঁড়ালেন দিল্লির এক ক্রিকেটার 1
ব্রাড হজ

ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির প্রতি অব্যাহত রইল অস্ট্রেলিয়ানদের আক্রমণ। অজি মিডিয়া ও প্রাক্তন ক্রিকেট তারকাদের রাস্তাতেই পা বাড়ালেন অজি ব্যাটসম্যান ব্রাড হজ। শেষ টেস্টে কোহলির মাঠে না থাকা নিয়ে তিনি মন্তব্য করেন। অবশ্য হজকে জবাব দিতে কোহলিকে কিছু করতে হয়নি। দিল্লির আরও এক জ্যেষ্ঠ ক্রিকেটার এই ঘটনায় একহাত নেন হজকে।

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে টেস্ট সিরিজে তৃতীয় টেস্টে ফিল্ডিং করতে গিয়ে কাঁধে চোট পান কোহলি। প্রথমদিনই চোট পেয়ে তিনি মাঠ ছেড়ে দেন। তবে নিজেকে কিছুটা সুস্থ করে তৃ্তীয় দিনে ব্যাট করতে নামেন ও দ্বিতীয় ইনিংসে ফিল্ডিংও করেন। এরপর সেই চোটের অবনতি হওয়ায়, ধর্মশালার নির্ণায়ক টেস্টে খেলতে পারেন নি কোহলি। ফাইনাল টেস্টে দলে না থাকার জন্য কোহলির কাছে কীসের গুরুত্ব বেশি সেই নিয়ে প্রশ্ন তুললেন অজি ব্যাটসম্যান হজ। কোহলির কাছে জাতীয় দলের থেকে বিলাসবহুল আইপিএলের গুরুত্বই বেশি। কার্যত এভাবেই কটাক্ষ করেন হজ।

কোহলির এই চোট নিয়ে এর আগেও অস্ট্রেলিয়ার দিক থাকে কটাক্ষ এসেছিল। ম্যাক্সওয়েল কোহলির কাঁধের চোটের অভিনয় করে নোংরা মানসিকতার পরিচয় দিয়েছিল। এবার তেমনই এক নোংরা উক্তি করে ফেললেন হজ। ফক্স স্পোর্টসকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে হজ বলেন, “আমার মনে হয় একজন অধিনায়ক হিসেবে ফাইনাল ম্যাচে কোহলির দলের পাশে থাকা উচিৎ ছিল।”

কোহলি সত্যিই চোটগ্রস্থ কী না সেই নিয়েও প্রশ্ন তোলেন এই তারকা। তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্ন করেন, “আপনার কী সত্যিই মনে হয় একজন খেলোয়ার হিসেবে ওর এই চোট সত্যিই গুরুতর!” পাশাপাশি তিনি অভিযোগ করেন, “টেস্ট না খেলে এক সপ্তাহ বাদে রয়্যাল চালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের হয়ে নেতৃ্ত্ব করাটা একটা নোংরা চিন্তাভাবনা।”

তবে কোহলির হয়ে হজকে যোগ্য জবাব দিয়েছেন দিল্লিরই আরেক ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর। ভারতের প্রাক্তন এই ওপেনার বলেন, “আমার মনে হয় না কোনও অধিনায়ক এরকম ভাবতে পারে। সেক্ষেত্রে কোহলিকে আমি ভালভাবেই চিনি, ও কখনই এমন ভাবতেই পারে না। আসলে কেউ কেউ নিজেকে মিডিয়ার সামনে টিকিয়ে রাখার জন্য কোহলির নামে কুৎসা করে শিরোনামে আসতে চাইছেন।”

একজন জ্যেষ্ঠ ক্রিকেটারের সহযোগীতা পাওয়ায় কোহলিকে নামতে হলনা তর্কের ময়দানে। অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তনদের এহেন উক্তিতে বোঝাই যাচ্ছে, পরাজয়টা এখনও মানতে পারেনি অস্ট্রেলিয়ানরা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *