কটুক্তির পাল্টা জবাব দিয়ে ফের স্ত্রীর সঙ্গে ট্যুইটারে শামি 1

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে স্ত্রী হাসিন জাহানের পোশাক নিয়ে সম্প্রতি ভারতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম পেসার মহম্মদ শামিকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছিলেন তাঁর ভক্তরাই৷সেদিনই অবশ্য ফেসবুকে নিজের ওয়ালে ভক্তদের সমালোচনার কড়া জবাব দিয়ে সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে দিয়েছিলেন তিনি৷আর এদিন সেই ট্যুইটারে নববর্ষে স্ত্রীর সঙ্গে কাটানো একটা সুন্দর মুহূর্তের খোলামেলা ছবি আবারও পোস্ট করলেন শামি।সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন সেই সব সমালোচকদের উদ্দেশ্যে টিটকারিতে ভরা লম্বা একটা বানী।

ক’দিন আগেই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে তাঁর স্ত্রী হাসিন জাহানের সঙ্গে একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন শামি৷ ছবিতে মেরুন রঙের স্লিভলেস পোশাকে দেখা গিয়েছিল হাসিনকে৷ আর এতেই আপত্তি তোলেন মুহাম্মদ শামির ভক্তদের পাশাপাশি বিশেষ একটি সম্প্রদায়ের বেশ কিছু মানুষ৷ ফেসবুকে তীব্র সমালোচনা করা হয় ভারতীয় ক্রিকেট দলের এই পেসারকে৷তাঁর স্ত্রীর কী ধরনের পোশাক পরা উচিত, সে বিষয়ে অনেকে রীতিমতো পরামর্শও দেন৷ অনেকে জানিয়েছিলেন,মুশলীম সম্প্রদায়ের নারীদের এ ধরনের পোশাক শোভা দেয় না৷ এমনকী হাসিন আদৌ মুশলীম কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলে তোলেন শামির ফলোয়াররা। এরপর তিনি ক্ষোভে ফেটে পড়ে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে লিখেছিলেন, ‘সকলেরই জীবনে ঘর জোটে না৷ কিছু সৌভাগ্যবানই এর মালিক হতে পারে৷ জ্বলতে থাকো৷ এরা দু’জন আমার জীবন এবং জীবনসঙ্গী৷ কী করতে হবে না হবে আমি খুব ভালভাবে জানি৷ আমাদের নিজের অন্তরে উঁকি মেরে দেখা উচিত, আমরা কতটা ভাল। ’

http://bengali.sportzwiki.com/1718/hot-pics-of-dhonis-girl-friend/

ফেসবুকে স্ত্রীর সঙ্গে ছবি পোস্ট করে সমালোচনার মুখে পড়া এই বাংলার  পেসারটি অবশ্য পরবর্তী সময়ে এই ইসু্তে ক্রীড়া জগতের অনেককেই নিজের পাশেই পেয়েছিলেন। শামির পাশে দাঁড়িয়েছেন ভারতের ক্রিকেটার মহম্মদ কাইফও। শামির সমালোচনাকে অযৌক্তিক বলে দাবি করেছেন তিনি। আর এদিন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে ফের নিজের স্ত্রীর সঙ্গে আগের চেয়ে বেশি খোলামেলা আরও একটি ছবি পোস্ট করলেন তিনি।পাশাপাশি নিজের ধর্মান্ধদের সমর্থকদের উদ্দেশ্যে টিটকিরির সুরে একটি বার্তা দিলেন। যেখানে তিনি লিখেছেন, ‘আমার কেউ সঙ্গী নেই। আমারও কেউ নেই। আমিও কারোর নই।কিন্তু তোমাকে দেখার পর বলতে পারি, এই পৃথিবীতে আমার নিজের আছে কেউ।শুভ নববর্ষ।’

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *