শোয়েব আকতারের প্রশ্নের জবাব সেহবাগ জানালেন ভারত যাবে না ফাইনালে

এই মুহূর্তে ইংল্যাণ্ড আর ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের আতিথেয়তায় চলা আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯ এ প্রত্যেকেই ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে হতে চলা ১৬ জুনের ম্যাচের প্রতীক্ষা করছেন। এই ম্যাচের অপেক্ষা পুরো ক্রিকেট জগতের রয়েছে যারা এর উপর দৃষ্টি রেখে চলেছেন।

ভারত পাক ম্যাচ নিয়ে শোয়েব বীরুর চ্যাটিং

শোয়েব আকতারের প্রশ্নের জবাব সেহবাগ জানালেন ভারত যাবে না ফাইনালে 1

এই অবস্তায় ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে হতে চলা ম্যাচ নিয়ে দুই দলেরই প্রাক্তন খেলোয়াড়রাও নিজের নিজের দলকে সমর্থন করছেন। এর মধ্যে পাকিস্তানের শোয়েব আকতার নিজের ইউটিউব চ্যানেলে বীরেন্দ্র সেহবাগের ইন্টারভিউ নিয়েছেন।
এই ইন্টারভিউতে শোয়েব বেশ কিছু প্রশ্ন করেছেন যার বীরেন্দ্র সেহবাগ জবাব দিয়েছেন যার মধ্যে ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে হতে চলা ম্যাচ নিয়ে নিজেদের মধ্যে কথাবার্তাও রয়েছে।

বীরু ভারতীয় দলকে মানেন না খেতাবের দাবীদার

শোয়েব আকতারের প্রশ্নের জবাব সেহবাগ জানালেন ভারত যাবে না ফাইনালে 2

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দলকে ফেবারিট মনে করা হচ্ছে, এই কথা শোয়েব আকতার মেনে নিয়েছেন কিন্তু তিনি এটা নিয়ে সেহবাগকে প্রশ্ন করেছেন যে ফেবারিট হওয়ার কারণে ভারতের উপর চাপের কথা মানো কি না, যা নিয়ে সেহবাগ বলেছেন,

“দেখুন ফেবারিটের কথা যদি বলো তো অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচের পর কেউ ফেবারিট বলে দিয়েছে কিন্তু আমার দৃষ্টিতে তো এখনো দুটি দল ফেবারিট একটা ইংল্যান্ড আর অন্যটা অস্ট্রেলিয়া। কারণ সেমিফাইনালে এই দুই দলের সামনে যখন আপনি ১০০ ওভারের ক্রিকেট ভাল খেলতে না পারো তো আপনি এদের হারাতে পারবেন না, তা সে ভারত হোক বা পাকিস্তান বা দক্ষিণ আফ্রিকা। যে কোনো দলকে সেই দিন খেলা ভীষণই জরুরী কারণ আমি এখনো বলছি ভারতীয় দল ফেবারিট নয় যারা কাপ জিততে পারে, কিন্ত আমাদের দল সেমিফাইনাল পর্যন্ত অবশ্যই যাবে। সেমিফাইনালে ইংল্যাণ্ড বা অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে না খেলে তো আমাদের দল ফাইনালে অবশ্যই যাবে”।

বীরুর দৃষ্টিতে এই হল চারটি সেমিফাইনালিস্ট দল

শোয়েব আকতারের প্রশ্নের জবাব সেহবাগ জানালেন ভারত যাবে না ফাইনালে 3

এই প্রশ্নের পর শোয়েব আকতার বীরেন্দ্র সেহবাগকে তার চার সেমিফাইনালিস্ট দলের ব্যাপারে প্রশ্ন করলে বীরু বলেন,

“দেখুন আমি প্রথমে যে প্রেডিক্ট করেছি তাতে তো ইন্ডিয়া, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া আর নিউজিল্যাণ্ড রয়েছে। পাকিস্তান যেভাবে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজ হেরেছে তাতে আমার মনে হয় না যে এই দল ভাল করবে কিন্তু আপনি যেভাবে প্রেডিক্ট করেছিলেন যে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে পাকিস্তান ধুয়ে দেবে তো তেমনই পাকিস্তান করেছে। এই আক্রণে পাকিস্তানকে বলা হয় যে তারা বড়ো আনপ্রেডিক্টেবল দল। কখন ওরা ভালো প্রদর্শন করে দেয় আর কখন ওরা কোনো বড়ো দলকে হারিয়ে দেয় সেটা কেউ জানে না। যেভাবে পাকিস্তান ইংল্যাণ্ডকে হারিয়েছে তো আমি চাইব যে নিউজিল্যাণ্ডের জায়গায় পাকিস্তানকে রাখি কিন্তু আমি প্রেডিক্ট করে ফেলেছি”।

তো এই বিষয়ে শোয়েব আকতার নিজের প্রেডিকশন করে বলেন যে,
আমার মনে হয় যে এটা ভারত, পাকিস্তান, ইংল্যান্ড আর অস্ট্রেলিয়ার টুর্নামেন্ট। শোয়েব তারপর প্রশ্ন করেন যে ইংল্যাণ্ড প্রেসারে কখনো ভাল খেলে না তো বীরুও এটা মনে করেন যে ইংল্যাণ্ড আর নিউজিল্যাণ্ড প্রেসার নিতে পারে না”।

ইংল্যাণ্ড দল বদলে গিয়েছে এখন থাকবে না প্রেসার

শোয়েব আকতারের প্রশ্নের জবাব সেহবাগ জানালেন ভারত যাবে না ফাইনালে 4

তো সেহবাগ এটা নিয়ে বলেন যে,

“এটা আগের মত ইংল্যাণ্ড দল নয় যে প্রেসার সহ্য করতে পারে না।এটা নতুন দল আর বদলে গিয়েছে। ২০১৫ বিশ্বকাপের পর থেকে ইংল্যাণ্ডের পরিসংখ্যান তুলে দেখলে দেখা যাবে এটা খুব উন্নত হয়ে গিয়েছে। বিশেষ করে দুজন খেলোয়াড়ের প্রদর্শন দেখেন তো যে প্রেসার ইংল্যাণ্ড চোক করত সেটা বদলে দিয়েছে,তারা হলেন ওপেনার জেসন রয় আর নীচে বাটলার। আমি এ কথায় সহমত যে বেন স্টোকসের জায়গায় বাটলারের আসা উচিৎ। আমার মনে হয় যে ও এমনটা এই কারণে করছেন যে এমএস ধোনির যে ভূমিকা ভারতীয় দলে তেমনই জোস বাটলারকে এই দল ফিনিশারের ভূমিকা দিয়েছে। আপনি ম্যাচ ভাল ফিনিশ করতে পারেন। বেন স্টোকস পাঁচ নম্বরে আসছে, আর জোস বাটলার ছ নম্বরে আসছেন কিন্তু আপনি বলেছেন যে বাটলার আগে আসলে তো ও দেড়শো রান করার ক্ষমতা রাখেন, তার মধ্যে সেই ক্ষমতা রয়েছে। বিশ্বকাপে আমরাও ধোনিকে নিয়ে সেটাই করতাম যে ও ২০-২২ ওভার টিকে যান তো তা সে যে কোনো উইকেট পড়ুক ধোনিকে পাঠানো হবে। তো এই ভাবে ২৫ ওভার বাকি থাকলে তো ইংল্যাণ্ড জোস বাটলারকে পাঠাতে পারে।”

ভারত-পাকের মধ্যে হবে না সেমিফাইনাল্ম্যাচ

শোয়েব আকতারের প্রশ্নের জবাব সেহবাগ জানালেন ভারত যাবে না ফাইনালে 5

শোয়েব আকতার আগে প্রশ্ন করেন যে বীরেন্দ্র সেহবাগের কিমনে হয় যে এখানে ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে সেমিফাইনাল হবে। তো সেহবাগ এটা নিয়ে বলেন যে,

“নাহ আমার তা মনে হয় না কারণ আপনি ইংল্যাণ্ডকেই বলছেন তো যদি আপনি পাকিস্তানকে বলেন তো ওরাও ৩১০ রান চেজ করতে পারে না। এই ভয় আমার ভারতীয় দলকে নিয়েও রয়েছে, যে ভারতীয় দলও যখন চেজ করবে তো তারাও সেটা করতে পারবে না। আমার মনে হয় না যে আমরাওচেজ করতে পারব। এমনিতেও আমরা টপ ৩র উপর নির্ভরশীল যে ওরা কখন রান করবে। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধেও আমরা ৩৬০ রানের লক্ষ্য তাড়া করেছি কিন্তু তাও আমরা টপ থ্রি ব্যাটসম্যানের জন্য জিতেছি। একবার বিরাট আর শিখর সেঞ্চুরি করেছেন তো একবার রোহিত আর বিরাট সেঞ্চুরি করেছেন। সেই কারণে আমরা ভারতে দুবার ৩৬০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে পেরেছি। ভারতীয় দলের ৩২০-৩২৫ রান তাড়া করতে নামলেই মুশকিলে পড়ে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *