বিশেষ প্রতিবেদন: ‘হেলিকপ্টার শট’ খেলার জন্য গোটা পৃথিবীতে বিখ্যাত মহেন্দ্র সিং ধোনি। শুক্রবার তাঁর জম্মদিন। তিনি প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক, ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম মহাতারকা। ‘ক্যাপ্টেন কুল’ বলে পরিচিত এই সফল ক্রিকটারের ট্রেডমার্ক হল ‘হেলিকপ্টার শট। এ দিন ৩৬ বছরে পা দিলেন তিনি। এমনই একটা দিনে তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তাঁর এই হেলিকপ্টার শট আরও অনেকদিন দেখতে চাইছেন বীরেন্দ্র সহবাগ।

মহেন্দ্র সিং ধোনি ও বীরেন্দ্র সহবাগ

ভিডিওঃ মহেন্দ্র সিং ধোনির ৩৬তম জন্মদিন পালন

১৯৮১ সালের ৭ জুলাই রাঁচিতে জন্মগ্রহণ করেন ধোনি। অধিনায়ক হিসেবে ভারতকে খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছে দিয়েছিলেন তিনি। তার নেতৃত্বে ৩টি আইসিসি ট্রফি জিতেছে ভারত। তারপর আকস্মিক পদত্যাগ করেন অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে। বিরাট কোহলি হলেন অধিনায়ক। এরপরও নিয়মিতই দেখা যায় মাঠে কোহলিকে অনেক সিদ্ধান্ত স্থির করে দেন ধোনি। তার পরামর্শ পেয়ে কোহলি যেন হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন। এমন ছবি বারবার দেখা গিয়েছে।

মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং বিরাট কোহলি

সেই মহেন্দ্র সিং ধোনির জন্মদিনের শুভেচ্ছা বার্তায় ভাসল টুইটার। প্রিয় ক্রিকেটারকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুবরাজ সিং, রোহিত শর্মা, সুরেশ রায়না, গৌতম গম্ভীর, মুহাম্মদ কাইফ, আকাশ চোপড়া এবং ভিভিএস লক্ষ্মণের মত কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা। তবে চটকদার টুইটটা করেছেন বীরেন্দ্র সহবাগ। তিনি টুইটে লেখেন, “এটা সেই মানুষটার জন্য যিনি ভারতীয় ফ্যানদের অনেক আনন্দের মুহূর্ত এনে দিয়েছেন। শুভ জন্মদিন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তোমার হেলিকপ্টার শট আরও অনেকদিন উড়তে থাকুক এবং আমাদের আরও আনন্দ দিক।”

ভিডিওঃ আপনি যদি ধোনিকে ঘৃণাও করেন, এই ভিডিওটি দেখার পর আপনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়বেন।

ক্রিকেট দুনিয়া তো বটেই, মাহির জন্মদিনে শুভেচ্ছা বার্তা এসেছে বলিউড থেকেও। তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাড়া জাগানো ছবি ‘এম এস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’র নায়ক সুশান্ত সিং রাজপুত। আর ধোনির ভক্তরা তো প্রিয় নায়ককে ভরিয়ে দিচ্ছেন ভালোবাসায়। পাশাপাশি ধোনিকে নিয়ে বিভিন্ন সময় করা খারাপ মন্তব্যের বিরুদ্ধেও মুখ খুলেছেন তাঁর ভক্তরা।

২০০৪-০৫ এ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অভিষেক হয় ধোনির। কিন্তু শুরুটা ছিল একেবারে খারাপ ছিল। রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেছিলেন বিনা রানেই। তবে লড়াকু এই ক্রিকেটার নিজের লক্ষ্যকে ভুলে যাননি। এরপর বিশাখাপত্তনমে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১২৩ বলে ১৪৮ রানের অসাধারণ একটি ইনিংস খেলে সবার নজরে পড়েন। তারপর থেকে শুধুই এগিয়ে চলা।

২০০৮ ও ২০০৯ সালে একদিনের ক্রিকেটে আইসিসি প্লেয়ার অব দ্যা ইয়ারে ভূষিত হন তিনি। অধিনায়ক হিসেবে তার নেতৃত্বেই ২০০৭ সালে আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি-২০ কাপ জয়, ২০১১ সালের বিশ্বকাপ এবং ২০১৩ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয় করে ভারত।

SHARE

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বাধিক সেঞ্চুরির মালিক যে পাঁচ ক্রিকেটার

ক্রিকেটে একজন ব্যাটসম্যানের মানদণ্ড বিচার করার ক্ষেত্রে কোন ব্যাটসম্যান কত সংখ্যক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তাঁর ক্যারিয়ারে তা অতীব...

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে যে তিনটি মাইলফলক স্পর্শ করতে পারেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা

ঘরের মাটিতে জয়রথ যেন থামছেই না টিম ইন্ডিয়ার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাদা পোশাকে সিরিজ জয়ের পর রঙিন...

স্ট্যাটস: ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ: প্রথম ওয়ানডেতে হতে পারে সাতটি রেকর্ড, রোহিত আর ধবন ইতিহাস বইতে নথিভূক্ত করতে পারেন নিজের নাম

স্ট্যাটস: ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ: প্রথম ওয়ানডেতে হতে পারে সাতটি রেকর্ড, রোহিত আর ধবন ইতিহাস বইতে নথিভূক্ত করতে পারেন নিজের নাম
ভারতীয় দল আর ওয়েস্টইন্ডিজ দলের মধ্যে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ আগামিকাল ২১ অক্টোবর গুয়াহাটির মাঠে...

হ্যাপি বার্থ ডে সেহবাগ: এই ৫টি জিনিস প্রমান করে যে এখনও পর্যন্ত হয়নি বীরেন্দ্র সেহবাগের মত ব্যাটসম্যান

হ্যাপি বার্থ ডে সেহবাগ: এই ৫টি জিনিস প্রমান করে যে এখনও পর্যন্ত হয়নি বীরেন্দ্র সেহবাগের মত ব্যাটসম্যান
বিশ্বের সবচেয়ে আক্রামণাত্মক ওপেনার্সদের একজন বীরেন্দ্র সেহবাগ ৪০তম জন্মদিন পালন করছেন। ক্রিকেট জগত আর ওপেনিংকে নতুন পরিভাষা...

প্রত্যেক উইকেট নেওয়ার পর মিলত ১০ টাকা, ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পর রাতভর কেঁদেছিলেন এই খেলোয়াড়

প্রত্যেক উইকেট নেওয়ার পর মিলত ১০ টাকা, ভারতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পর রাতভর কেঁদেছিলেন এই খেলোয়াড়
নিজের দলের হয়ে উইকেট নিতে প্রত্যেক বোলারেরই ইচ্ছে থাকে। পাপু রায় এক এমন বোলার যার জন্য উইকেট...