চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে যাওয়ার এখনও কোনও নিশ্চয়তা নেই ভারতের, তবুও দল বাছলেন প্রাক্তন এই তারকা 1
ভারতীয় ক্রিকেট দল

আর মাত্র একমাসের কিছু বেশি সময় গড়ালেই শুরু হতে চলেছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। কিন্তু আইসিসি ও বিসিসিআইয়ের মধ্যে রাজস্ব বন্টনের নতুন মডেল নিয়ে যে টানাপোড়েন চলছে, তাতে ভারত আদৌ এই টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করবে কী না সন্দেহ রয়েছে। এই সন্দেহ আরও বেড়েছে সম্প্রতি দুবাইতে হওয়া আইসিসির বৈঠকের পর। সেখানে ৯-১ ভোটে বিসিসিআইয়ের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে এই নিয়ামক সংস্থার সদস্যরা। ফলে বিশ বাঁও জলে কোহলিদের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির যাত্রা।

আইসিসির বার্ষিক সাধারণ সভায় নাক কাটল বিসিসিআইয়ের, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারতের না থাকার সম্ভাবনা প্রবল

সরকারি মহলের এই টানাপোড়েনে অবশ্য তেমন কোনও ছাপ পড়েনি, দেশের ক্রিকেট মহলে। এখনও প্রাক্তণ ক্রিকেটাররা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জ্বরে কাঁপছে। তাই এবার ভারতের বেপরোয়া ওপেনার বীরেন্দ্র সহবাগ ঘোষণা করে ফেললেন, তাঁর বাছাই করা ১৫ জনের ভারতীয় দলের নাম। সমস্ত দল চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য ১৫ জনের দলের নাম ইতিমধ্যেই জমা দিয়েছে আইসিসির কাছে। কিন্তু এই বিষয়ে ২৫শে এপ্রিল চূড়ান্ত সময়সীমা পেরিয়ে গেলেও এখনও ১৫ জনের দলের নাম দাখিল করেনি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তাই ভারতের দল কী হতে পারে সেই নিয়ে বেশ উৎসাহের পারদ চড়েছে। কয়েকদিন আগেই অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তণ অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক ভারতের সম্ভাব্য দলের নাম ঘোষণা করেছেন, সেই দলে শিখর ধবন ও হার্দিক পান্ডিয়া সসম্মানে জায়গা করে নিয়েছেন।

ক্লার্কের দলে জায়গা করে নিলেও সহবাগের দলে ঠাঁই হয়নি দীর্ঘদিন ফর্মের বাইরে থাকা ভারতীয় ওপেনার শিখর ধবনের। এছাড়া গৌতম গম্ভীরকেও বীরু চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দলে রাখেনি। এই বছর আইপিএলে গৌতম গম্ভীর দারুণ ফর্মে রয়েছেন। অনেক তরুণ প্রতিভাবান ক্রিকেটারকে পিছনে ফেলে ধারাবাহিকভাবে ভাল খেলছেন তিনি। এইজন্য এখনও পর্যন্ত আইপিএলে সবথেকে বেশি রানের অধিকারি কেকেআর অধিনায়ক। এই ফর্মের জন্য অনেকেই মনে করছেন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে এই বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটারের জায়গা হতে পারে। কিন্তু সহবাগ এটা মনে করেন না।

এদিকে, চোট সারিয়ে ইতিমধ্যেই মাঠে ফিরেছেন ভারতের ওপেনার রোহিত শর্মা। আইপিএলের শেষ ম্যাচে ভারতের অন্য আরও এক ওপেনার শিখর ধবনের দূর্দান্ত ইনিংস দেখে তাঁকে রোহিতের সঙ্গেই ওপেন করতে দেখা যেতে পারে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে এমনটাই মনে করা হচ্ছিল। কিন্তু ভারতের এই প্রাক্তণ ওপেনার ধবনকে কোনওভাবেই তাঁর নির্বাচিত দলে রাখেননি। বরং রোহিতের সঙ্গে অজিঙ্ক রাহানেকে ওপেন করাতে চান তিনি। এরপর আবশ্যকভাবেই রেখেছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। তারপর অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান যুবরাজ সিংহ ও ভারতের প্রাক্তণ অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনিকে রেখেছেন নজফগড়ের নবাব।

যুব ক্রিকেটার হিসেবে বীরুর দলে রয়েছে রিষভ পান্থ এবং কেদার যাদব। তবে সহবাগের দলের এই জায়গায় কেকেআরের প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান মণীষ পান্ডের নাম নেই। এর পরের স্থানেই অলরাউন্ডার হিসেব হার্দিক পান্ডিয়া ও রবীন্দ্র জাডেজার নাম আছে এই দলে। বোলিং বিভাগে অবশ্য তেমন কোনও চমক নেই।

এবারে একবার দেখে নেওয়া যাক সহবাগের এই দলের সম্পূর্ণ চিত্রঃ

রোহিত শর্মা, অজিঙ্ক রাহানে, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), যুবরাজ সিংহ, এম এস ধোনি (উইকেটকিপার), রিষভ পান্থ, কেদার যাদব, হার্দিক পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাডেজা, রবীচন্দ্রণ অশ্বিন, য়ুযবেন্দ্র চাহল, উমেশ যাদব, ভুবনেশ্বর কুমার, জসপ্রীত বুমরাহ এবং মহম্মদ সামি।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে অংশগ্রহণ না করলে আখেরে ভারতীয় দলেরই ক্ষতি হবে, এমনটাই মনে করেন রাজীব শুক্ল

Leave a comment

Your email address will not be published.