দেখুন : যুবরাজ সিংয়ের অবিস্মরণীয় এই কীর্তি কার্যত ভেঙে ফেলছিলেন ক্যারিবিয়ান ওপেনার এভিন লুইস 1

২০০৭ টি২০ বিশ্বকাপে ইতিহাস তৈরি করে দিয়েছিলন ভারতের কিংবদন্তী ক্রিকেটার যুবরাজ সিং। ইংল্যান্ডের তারকা পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডের এক ওভারে ছয়টি ছক্কা মেরেছিলেন যুবরাজ। এরপর বেশ কয়েকবার এই নজির গড়ে উঠলেও যুবরাজের এই কীর্তি চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। আর এবার সেই কীর্তির পুনরাবৃত্তি হতে চলেছিল আবু ধাবি টি ১০ লিগে।

On this day, 13 years ago, Yuvraj Singh smashed six sixes in an over off  Stuart Broad | Cricket News | Zee News

শনিবার আবুধাবি টি ১০ ​​ক্রিকেট টুর্নামেন্টে মারাঠা আরবীয়দের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওপেনার এবং ক্রিস গেইলের ওপেনিং সঙ্গী এভিন লুইস একই ওভারে পাঁচটি ছক্কা মারেন। এই ঝলমলে ইনিংসের জোরে তাঁর দল দিল্লি বুলস নয় উইকেটে মারাঠার বিরুদ্ধে একতরফা জয় অর্জন করেছিল। আবু ধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে খেলা এই ম্যাচে মারাঠা আরাবিয়ান্স নির্ধারিত ১০ ওভারে ৮৭ রান করেছিলেন। জবাবে লুইসের ইনিংসের ভিত্তিতে মাত্র পাঁচ ওভারেই লক্ষ্য মাত্রাটি অর্জন করে দিল্লির এই ফ্র্যাঞ্চাইজি দল।

Evin Lewis 5 Sixes: Latest News, Photos and Videos on Evin Lewis 5 Sixes -  ABP Live

লুইস তাঁর এই নিজের ইনিংসে মাত্র দুটি বাউন্ডারি মারেন, কিন্তু সাতটি দীর্ঘ ছক্কা মারেন। এই সময়ে, তিনি মাত্র ১৬ বলে ৫৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছেন। এভিন লুইসের এই এক ওভারে পাঁচ ছক্কার শিকার হন বাংলাদেশের পেসার বোলার মুখতার আলি, তাঁর ওভারকে লক্ষ্য করে এভিন লুইস মোট ৩৩ রান করেছিলেন।  তিনি ছাড়াও ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অলরাউন্ডার রবি বোপারাও মাত্র ১২ বলে পাঁচটি বাউন্ডারির সাহায্যে অপরাজিত ২৮ রানের ইনিংসটি করেন।বলা বাহুল্য যে, ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার যুবরাজ সিং ২০০৭ সালে ইংরেজ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডের এক ওভারে ছয়টি ছক্কা মেরেছিলেন।

এই ম্যাচে মারাঠা আরবীয়দের শুরুটা খুব খারাপ ছিল না। দলের প্রথম ধাক্কা ইনিংসের প্রথম ওভারেই এসেছিল, যখন উইকেটরক্ষক আবদুল শাকুর অ্যাকাউন্ট না খুলেই আউট হয়ে গিয়েছিলেন। দলের পক্ষে জাভেদ আহমেদ ১৯ বলে ২৪ রান করেন এবং অধিনায়ক মোসাদ্দেক হুসেন ২২ বলে ৩৫ রান করেন। দিল্লির হয়ে আহমেদ ভট্ট, ফিদেল এডওয়ার্ড এবং আলি খান একটি করে উইকেট নিয়েছিলেন। ১০ ওভারে ৮৮ রানের লক্ষ্য নিয়ে শুরু হওয়া, গুরবাজ মুখতার সস্তার প্যাভিলিয়নে ফেরার ফলে দিল্লির শুরুটা ভাল ছিল না। কিন্তু এর পরে ইভিন লুইস এবং রবি বোপারা দুরন্ত ইনিংস খেলায় দলকে আর কোনও ক্ষতির মুখে পড়তে হয়নি। ৯ উইকেট জয় পেতে সফল হয়েছিল দিল্লি বুলস।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *