ভারতের কাছে পাওয়া হারের পর সরফরাজ আহমেদ পাকিস্তান দলকে বলেছিলেন এই কথা

পাকিস্তানের দল ইংল্যান্ড আর ওয়েলসে খেলা হওয়া আইসিসি একদিনের বিশ্বকাপের পর নিজেদের স্বদেশে ফিরে গিয়েছে। পাকিস্তানের দল যতই সেমিফাইনালে নিজের জায়গা পাকা না করতে পারুক কিন্তু দল নিজের উন্নত প্রদর্শনে সকলকে যথেষ্ট প্রভাবিত করেছে। পাকিস্তান দল এই টুর্নামেন্ট চলাকালীন নিজেদের খেলা ৯টি ম্যাচে পাঁচটি জয় হাসিল করেহচে অন্যদিকে তাদের তিনটি ম্যাচ হারতে হয়। একটি ম্যাচের ফলাফলা বৃষ্টির কারণ হতে পারেনি। পাকিস্তান দল ১১ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্টস টেবিলের পঞ্চম স্থানে ছিল।

ভারতের কাছে পাওয়া হারের পর মজবুত হয় পাকিস্তান

ভারতের কাছে পাওয়া হারের পর সরফরাজ আহমেদ পাকিস্তান দলকে বলেছিলেন এই কথা 1

বিশ্বকাপে পাকিস্তানের হয়ে ভাল প্রদর্শন করা বোলিং অলরাউন্ডার ইমাদ ওয়াসিমের এমনটা ধারণা যে পাকিস্তানের দল ভারতের কাছে হারের পর দারুণভাবে প্রত্যাবর্তন করতে সফল হয়। পাকিস্তান ফেরত আসার পর জিয়ো টিভির সঙ্গে বিশেষ কথাবার্তা চলাকালীন ইমদা ওয়াসিম বলেন,

“ভারতের কাছে পাওয়া হারের পর অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ আমাদের মজবুতভাবে প্রত্যাবর্তনের জন্য প্রেরিত করেছিলেন। মিটিংয়ে দলের অন্য খেলোয়াড়রা এখন জোরাদার প্রত্যাবর্তনের জন্য নিজের নিজের রায় দিয়েছিলেন”।

প্রসঙ্গত যে ভারত পাকিস্তানের মধ্যে ম্যাঞ্চেস্টারের মাঠে টুর্নামেন্টের ২২তম ম্যাচ খেলা হয়েছিল আর এই ম্যাচ বিরাট কোহলির সেনা ৮৯ রানে (ডাকওয়ার্থ লুইস নিয়মে) জিতে নিজের নামে করেছিল। ওয়ানডে বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ভারতের বিরুদ্ধে এটি লাগাতার সপ্তম হার ছিল আর এই হারের পর পাকিস্তানের পুরো দল আর অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের ভীষণই ঠাট্টা করা হয়েছিল।

দলের প্রদর্শন খুশি নন ইমাদ

ভারতের কাছে পাওয়া হারের পর সরফরাজ আহমেদ পাকিস্তান দলকে বলেছিলেন এই কথা 2

এই বিশ্বকাপে ইমাদ ওয়াসিম পাকিস্তানের হয়ে পাঁচটি ইনিংসে ৫৪ গড়ে মোট ১৬২ রান করেছিলেন, অন্যদিকে বোলার হিসেবে ছটি ম্যাচে মাত্র দুটিই উইকেট পেয়েছিলেন। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ইমাদ ওয়াসিম বিপরীত পরিস্থিতিতে অপরাজিত ৪৯ রান করে একার দলে পাকিস্তানকে জিতিয়েছিলেন। ইমাদ এই টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের প্রদর্শনে একদমই খুশি নন। একটি বয়ানে ইমাদ বলেন,

“আমার মতে যদি আপনি বিশ্বকাপ জিততে না পারেন, তো কম সে কম আপনাকে সেমিফাইনাল বা ফাইনালে তো জায়গা করা উচিত। এই কারণে আমি দলের আগে না যাওয়ায় নিরাশ”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *