বিসিসিআই নিল সিদ্ধান্ত, যদি রবি শাস্ত্রী অভিযোগ করেন তো মুশকিলে পড়তে পারেন এই তারকা

ভারতীয় দলের বিশ্বকাপে হারের পর বিসিসিআই প্রধান কোচের পাশাপাশি সাপোর্ট স্টাফের জন্যও আবেদন চেয়েছিল। এর জন্য আগে থেকেই দলের সঙ্গে যুক্ত প্রধান কোচ আর সাপোর্ট স্টাফরাও আবেদন করতে পারতেন। ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গারকে ছাড়া সকলেই আবারো নিযুক্ত করা হয়েছে। বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে এমএস ধোনিকে ৭ নম্বরে পাঠানোর সিদ্ধান্ত সঞ্জয় বাঙ্গারেরই ছিল বলে বলা হচ্ছে।

নির্বাচকরা বাছলেন সাপোর্ট স্টাফ

বিসিসিআই নিল সিদ্ধান্ত, যদি রবি শাস্ত্রী অভিযোগ করেন তো মুশকিলে পড়তে পারেন এই তারকা 1

ভারতীয় দলের প্রধান কোচ বাছার জন্য সিএসি তৈরি করা হয়েছিল। এর সদস্য হিসেবে ছিলেন কপিলদেব, অংশুমান গায়কোয়াড় আর শান্তা রঙ্গাস্বামী, কিন্তু সাপোর্ট স্টাফ নির্বাচন করা দায়িত্ব নির্বাচক প্রধানের ছিল। এমএসকে প্রসাদের নেতৃত্বাধীন নির্বাচক কমিটি ভরত অরুণকে আবারো বোলিং কোচ আর আর শ্রীধরকে ফিল্ডিং কোচ হিসেবে বেছে নিয়েছেন, কিন্তু তারা ব্যাটিং কোচের জন্য সঞ্জয় বাঙ্গারের জায়গায় বিক্রম রাঠোরকে ভাল হিসেবে মনে করেছেন।

দেবাং গান্ধীর উপর ক্ষুব্দ বাঙ্গার

বিসিসিআই নিল সিদ্ধান্ত, যদি রবি শাস্ত্রী অভিযোগ করেন তো মুশকিলে পড়তে পারেন এই তারকা 2

ভারতীয় দলের ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গার আর নির্বাচক দেবাং গান্ধীর মধ্যে ওয়েস্টইন্ডিজে পরিস্থিতি খারাপ হয়ে গিয়েছে। বাঙ্গার দ্বিতীয়বার ব্যাটিং কোচ না করার পর দেবাং গান্ধীকে তার হোটেলের কামরায় গিয়ে উল্টোপাল্টা বলেছেন। এই বিষয়ে বিসিসিআই আধিকারিক পিটিআইকে জানিয়েছেন,

“কাউকে বরখাস্ত করার পর নিরাশ হওয়া নিশ্চিত। কিন্তু উনি এটা কেন ভেবে নিলেন যে ওনাকে একটা এক্সটেনশনের গ্যারান্টি দেওয়া হয়েছি? শাস্ত্রী, অরুণ আর শ্রীধরের প্রদর্শন ভাল ছিল আর তাদের পদে বহাল রাখা হয়েছে। বাঙ্গারের প্রদর্শন খারাপ থেকেছে, তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাঙ্গারের কাছে দেবাং গান্ধীকে প্রশ্ন করার কোনো অধিকার ছিল না, যতই আমরা এতে কারণ হই কিন্তু ওর গান্ধীর উপর কোনো আক্ষেপ বা চেঁচামেচি করা উচিৎ হয়নি”।

আধিকারিক হিসেবে করতে হবে রিপোর্ট

বিসিসিআই নিল সিদ্ধান্ত, যদি রবি শাস্ত্রী অভিযোগ করেন তো মুশকিলে পড়তে পারেন এই তারকা 3

সঞ্জয় বাঙ্গারের বিরুদ্ধে যে কোনো অ্যাকশন নেওয়ার জন্য দেবাং গান্ধীকে আধিকারিক হিসেবে রিপোর্ট করতে হবে। অথবা দলের ম্যানেজার সুব্রহ্মনিয়ম বা কোচ রবি শাস্ত্রীকেও লিখিত রিপোর্ট দিতে হবে। ওই আধিকারিক জানিয়েছেন,

“দলের ম্যানেজার সুব্রহ্মনিয়মের নিজের রিপোর্টে অনিবার্যভাবে এই বিষয়ের স্পষ্ট করার আবশ্যকতা রয়েছে। কম সে কম প্রধান কোচ শাস্ত্রী যিনি বাঙ্গারের রিপোর্টিং হেড, তাকেও লিখিতভাবে নথিভুক্ত করার আবশ্যকতা রয়েছে যে এমন ঘটনা হয়েছে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *