৮৭ বছরের এই বৃদ্ধ মহিলা সমর্থকদের সঙ্গে দেখা করতে পৌঁছলেন বিরাট-রোহিত, হল ঠিক এমনটা

তোবড়ানো গাল, হুইল চেয়ারে বসা, দু গালে লেপা তিরঙ্গার রঙ, মুখে ভোঁপু আর হাতে তেরঙা পতাকা নিয়ে এজবাস্টনের মাঠে এক ৮৭ বছরের বৃদ্ধের উপর যখন প্রথমবার ক্যামেরার নজর পড়ে তো পুরো বিশ্ব এই বৃদ্ধা ভারতীয় দএল্র স্যানের ব্যাপারে জানার জন্য উৎসুক হয়ে ওঠে।

দর্শকাসনে বসা এই ৮৭ বছররের মহিলা ফ্যান

৮৭ বছরের এই বৃদ্ধ মহিলা সমর্থকদের সঙ্গে দেখা করতে পৌঁছলেন বিরাট-রোহিত, হল ঠিক এমনটা 1

প্রত্যেক সমর্থকের হাতে ভারতের পতাকা ছিল আর তারা ভারতীয় দলের জমিয়ে সমর্থন করছিলেন, তখন ম্যাচ চলাকালীন হঠাত করেই ক্যামেরা দর্শকাসনে বসা ৮৭ বছর বৃদ্ধা সমর্থকের উপর পড়ে।

চারুলতা প্যাটেল দেখতে দেখতে হয়ে গেলেন সোশ্যাল মিডিয়ার ফেস

যারপর তো বেশ কয়েকবার ক্যামেরাম্যান ভারতীয় দলের সবচেয়ে বয়স্ক ফ্যানের উপর বারবার দর্শকদের ধ্যান আকর্ষিত করান। আর দেখতে দেখতেই এই বয়স্ক ভারতীয় সমর্থক সোশ্যাল মিডিয়ায় আগুনের মত ভাইরাল হয়ে যান।

৮৭ বছরের এই বৃদ্ধ মহিলা সমর্থকদের সঙ্গে দেখা করতে পৌঁছলেন বিরাট-রোহিত, হল ঠিক এমনটা 2

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে খেলা হওয়া ম্যাচে ভারতীয় দল ২৮ রানে জয়ের সঙ্গেই এই বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে প্রবেশ করে ফেলেছে। ভারতীয় দলের সেমিফাইনালে পৌঁছনোর খুশি মাঠে উপস্থিত দর্শকদের মধ্যে পরিস্কার দেখা যাচ্ছিল।

রোহিত-বিরাট এই ৮৭ বছরের মহিলা ফ্যানের সোনহগে দেখা করতে দর্শকাসনে পৌঁছন

তো অন্যদিকে দর্শকাসনে বসা ৮৭ বছর বয়েসী চারুলতা প্যাটেল প্রত্যেকেরই হৃদয় জিতে নিয়েছেন। এই বয়স্কা মহিলা সমর্থককে নিয়ে উৎসাহ এমন ছিল যে ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি আর সহঅধিনায়ক রোহিত শর্মাও এই সমর্থককের সঙ্গে দেখা করতে নিজেদের ধরে রাখতে পারেননি।

ম্যাচ শেষ হওয়ার পর রোহিত শর্মা আর বিরাট কোহলি দুজনেই এই ৮৭ বছরের মহিলা সমর্থকের কাছে পৌঁছন আর তাকে না শুধু জড়িয়ে ধরেন বরং পা ছুঁয়ে আশির্বাদও নেন। এই অভূতপূর্ব দৃশ্য প্রত্যেককেই উৎসাহিত করে দেয়।

কে এই চারুলতা প্যাটেল?

৮৭ বছরের হুইল চেয়ারে মাঠে ম্যাচ দেখতে যাওয়া এই বয়স্কা মহিলার ব্যাপারে সকলেই চানতে চাইবেন তো আমরা আপনাদের জানিয়ে দিই যে চারুলতা প্যাটেলের জন্ম তাঞ্জানিয়াতে হয় কিন্তু তার মা বাবা ভারতীয় ছিলেন।

তার ক্রিকেট খেলা ভীষণই পছন্দের। সেই সঙ্গে তার সন্তানরা ইংল্যাণ্ডে কাউন্টি খেলেন। আর ভারতের প্রতি টান থাকার কারণে তিনি নিজের চাকরির মাঝেই সবসময়ই টিভিতে ভারতের ম্যাচ দেখতেন। আর এখন রিটায়ারমেন্টের পর মাঠে পৌ&ছে ভারতের ম্যাচ দেখেন। এই কথার খোলসা তিনি নিজের একটি ইন্টারভিউতে করেছেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *