ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ, প্রথম টি-২০: ম্যাচ জেতার পর নিজের বয়ানে রোহিত শর্মা জিতে নিলেন ক্রিকেটপ্রেমীদের মন

ভারত আর ওয়েস্টইন্ডিজের মধ্যে টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচ আজ কলকাতার ইডেন গার্ডেনে খেলা হয়েছে। এই ম্যাচে অধিনায়ক রোহিত শর্মা প্রথমে টসে জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নেন। ভারত এই ম্যাচে তাদের দুই তরুণ প্লেয়ার খলিল আহমেদ এবং ক্রুণাল পান্ডিয়াকে অভিষেক করার সুযোগ দিয়েছে। অন্যদিকে ওয়েস্টইন্ডিজও আজ তাদের তিনজন প্লেয়ারকে অভিষেক করার সুযোগ দিয়েছে। ভারত অধিনায়ক রোহিত শর্মা ভারতীয় প্লেয়ারদের পাশাপাশি ওয়েস্টইন্ডিজের তরুণ জোরে বোলার অশেন থমাসেরও জমিয়ে প্রশংসা করেন।

ভারত হাসিল করল জয়

ভারত দীনেশ কার্তিক (অপরাজিত ৩১রান, ৩৪বল,৩টি চার,১টি ছক্কা) আর আন্তর্জাতিক কেরিয়ারের প্রথম টি ২০ খেলা ক্রুণাল পান্ডিয়ার (অপরাজিত ২১ রান, ৯ বল, ৩টে চার) দ্রুত আর বুদ্ধিদীপ্ত পার্টনারশিপের সৌজন্যে ইডেন গার্ডেনে ওয়েস্টইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হারিয়ে এই সিরিজে ১-০ এগিয়ে গিয়েছে।
ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ, প্রথম টি-২০: ম্যাচ জেতার পর নিজের বয়ানে রোহিত শর্মা জিতে নিলেন ক্রিকেটপ্রেমীদের মন 1
ভারতের কাছে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পেয়ে ওয়েস্টইন্ডিজ দল কুলদীপ যাদবের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সুবাদে ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১০৯ রানই তুলতে পারে। ম্যান অফ দ্য ম্যাচ কুলদীপ যাদব নির্ধারিত ৪ ওভারে ১৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন। জবাবে ভারত খারাপ শুরুয়াত সত্বেও ১৭.৫ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্য হাসিল করে নেয়।

তরুণ খেলোয়াড়রা প্রস্তুত
ভারত বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ, প্রথম টি-২০: ম্যাচ জেতার পর নিজের বয়ানে রোহিত শর্মা জিতে নিলেন ক্রিকেটপ্রেমীদের মন 2
ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে কথা বলতে গিয়ে রোহিত শর্মা বলেন,

“ বল হাতে ব্যতিক্রমী পারফর্মেন্স। সিমারদের জন্য প্রচুর সুযোগ ছিল, এমনকী স্পিনারদের জন্য, কিন্তু এটা খুব সহজ ছিলনা। সবমিলিয়ে প্রত্যেক বিভাগেই সামান্য চিন্তা চিল। শুরু থেকেই আমরা ভালো বল করেছি- ভালো জায়গায় বল রেখেছি। পরিস্থিতির দুর্দান্ত ব্যবহার করেছি। জানতাম রান তাড়া করা সহজ হবে না। আশা করছি আমাদের ভুল থেকে আমরা শিক্ষা নেব। ওশানে থমাস সত্যিই দুর্দান্ত প্রতিভা। যদি ও ভালো জায়গায় বল রাখে, তাহলে ব্যাটসম্যানদের জন্য তাকে আক্রমণ করা খুব সহজ হয়না। উচ্চতার অ্যাডভান্টেজ তাকে আলাদাভাবে ধারালো করেছে। ওকে ভবিষ্যতের জন্য শুভেচ্ছা জানাচ্ছি কিন্তু আমাদের বিপক্ষে নয়। ক্রুণাল এবং খলিল আহমদেও দুর্দান্ত প্রতিভা। ক্রুণাল — আমি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সে ওকে গত ২ -৩ বছরে খুব কাছ থেকে দেখেছি। ও যখন বল করতে আসে পোলার্ড ব্যাট করছিল।ওই একমাত্র বোলার যে পোলার্ডের বিরুদ্ধে বল করতে চাইছিল। এই ছেলেরা যে কোনও চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি। অধিনায়কের জন্য যথেষ্ট উৎসাহব্যঞ্জক যখন এরকম দেখা যায়। যদি ওরা ওদের স্কিল নিয়ে কাজ করা চালু রাখে, ভারত নিশ্চিতভাবেই তার বেনিফিট পাবে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *