হটাৎই অবসর ঘোষণা করলেন অস্ট্রেলিয়ার এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান! 1

হটাৎই অবসর ঘোষণা করলেন অস্ট্রেলিয়ার এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান! 2

ভিক্টোরিয়ান বুসরাঙ্গার গুরুত্বপূর্ণ অংশ অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান রব কুইনি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট হতে অবসর নিয়েছেন, এর আগে অবশ্য ২০১৭-১৮ সালের শেফল্ডি শিল্ড ট্রফির জন্য দলে সুযোগ পান নি। কুইনির প্রশংসা করে ভিক্টোরিয়া ক্রিকেটের ম্যানেজার সাউন গ্রাফ এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ” রব কুইনি তার পুরো ক্যারিয়ার জুড়ে ই ভিক্টোরিয়ান ক্রিকেটের জন্য তার অসাধারন ভূমিকা রেখেছেন। ” তিনি আরো বলেন তার এই অসাধারন ক্রিকেটের জন্য ত্যাগ ও দক্ষতা ভিক্টোরিয়ান পরিবার ধারন করে। ভিক্টোরিয়ানের ঘোষিত দলের তালিকায় দেখা যায় এবার ম্যাথু ওয়েডের পরিবর্তে দলটির অধিনায়ক করা হয়েছে পিটার হ্যান্ডসকম্ব। গ্রাফ আরো বলেন, ” এ মৌসুমে আমরা আমাদের কয়েকজন সিনিয়র অভিজ্ঞ খেলোয়ারকে হারিয়েছি, তবে আমরা বেশ ভাগ্যবান কারন গত দুবছর ধরে খেলে এমন কয়েকজন তরুণ তবে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন খেলোয়ার আমাদের রয়েছে যারা জানে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে কি করে সফল হতে হয় তা জানে।

অন্য দিকে অলরাউন্ডার মার্কাস এর মধ্যে ই ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ায় নাম লিখিয়েছে আর সাবেক টেস্ট এবং স্লো বোলার মিশেল বিয়ারও দলে উপেক্ষিত হয়েছেন। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী জেমস সাউদারল্যান্ড পুত্র উইল সাউদারল্যান্ড দল ভুক্ত হয়েছে। গ্রাফ আরো বলেন, ” এবার দলে তরুনদের অন্তর্ভুক্তিতে দলকে আরো শক্তিশালী করেছে। প্রাদেশিক দলটি তাদের ইতিহাসের সবচেয়ে শক্তিশালী ও সফল দল করেছে।” রব কুইবি যখন দলটির গুরুত্বপূর্ণ অবস্থায় ছিল তখন দলটি গত দশকে পাচ বার শেফিল্ড শিল্ড ট্রফি জয় করেছিল। ২০১২ সালে টেস্ট অভিষেক হলে দুই টেষ্টে তিন ইনিংসে নয় রানের বেশি করতে না পারায় টেস্ট ক্যারিয়ার দীর্ঘায়িত হয় নি কুইবির।

এটা উল্লেখ যোগ্য ব্যাপার যে দলটি ২০০৯ ও ২০১০ সালে যেমন টানা দুবার শেফিল্ড শিল্ড ট্রফি জিতেছে তেমনি ২০১৫; ২০১৬ এবং ২০১৭ সালে টানা তিনবার জয় করেছে শিরোপা। ভদ্র লোকের খেলা ক্রিকেটের উন্নয়নে অবদান রাখা কুইবি ইতিমধ্যে বিল লরি মেডেল (২০১০ – ২০১২) জিতে নিয়েছেন এবং পেয়েছেন ২০১২ সালে প্রদেশের সেরা খেলোয়ার হিসেবে পেয়েছেন অ্যালান বোর্ডার পদকের মনোনয়ন ও। “আমরা কুইবের ভবিষ্যতের জন্য শুভ কামনা করছি এবং আমাদের ক্রিকেটে তার অবদানের জন্য তাকে ধন্যবাদ ” বলে শেষ করেন গ্রাফ। ৯৬ টি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ৩৬. ৮৪ গড়ে ৫৬৭৪ রান করেন, যার মধ্যে আছে ১১ টি শতক ও ৩৫ টি অর্ধ শতক। এছাড়াও ৭৮ টি লিস্ট এ ম্যাচ ও ৭৮ টি টিটুয়েন্টি ম্যাচও খেলেন তিনি।

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *