RCBvsKKR: কেকেআরের বিরুদ্ধে পাওয়া জয়ের পুরো শ্রেয় বিরাট কোহলি এই খেলোয়াড়কে দিলেন

আরসিবি আর কেকেআরের মধ্যে আইপিএল ২০২০-র ২৮তম ম্যাচ শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলা হয়েছে। এই ম্যাচ নিজেদের দুর্দান্ত প্রদর্শনের সৌজন্যে আরসিবির দল ৮২ রানের বড় ব্যবধানে জিতে নিয়েছে। এই ম্যাচ জেতার সঙ্গেই আরসিবির দল পয়েন্টস টেবিলে ২টি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টসও অর্জন করে ফেলেছে।

শারজাহের স্বাভাবিক পিচ ছিল না

RCBvsKKR: কেকেআরের বিরুদ্ধে পাওয়া জয়ের পুরো শ্রেয় বিরাট কোহলি এই খেলোয়াড়কে দিলেন 1

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের অধিনায়ক টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন। শারজাহের পিচে প্রথমে ব্যাট করে আরসিবির দল ডেভিলিয়র্সের ৭৩ রানের ইনিংসের সাহায্যে ১৯৪ রান করে আর এই ম্যাচ ৮২ রানে জিতে নেয়। ম্যাচ শেষে ব্যাঙ্গালোরের অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলেন, “ও এই আইপিএলে ভালো ক্রিকেট খেলেছে। এখানে এসে সঠিক শুরু করা গুরুত্বপূর্ণ ছিল। যখন দলের প্রয়োজন হয়, তো খেলোয়াড়দের ভালো প্রদর্শন দেখে ভালো লাগে। মরিসের সঙ্গে বোলিং ইউনিট সকলেই অনেক বেশি শক্তিশালী হয়েছে। আমি এটা দেখে ভীষণ খুশি। টসে পিচ শারজাহের মতো স্বাভাবিক ছিল না। আমি জানতাম যে উইকেট স্লো হয়ে গিয়েছে আর আগেও আরও স্লো হতে চলেছে। একটা সুপার পাওয়ার ছেড়ে সকলেই ওই পিচে সংঘর্ষ করত। আমরা প্রায় ১৬৫-১৭০ রানের প্রস্তুতি নিয়েছিলাম”।

মানসিকতার উপর সবকিছু নির্ভর করে

RCBvsKKR: কেকেআরের বিরুদ্ধে পাওয়া জয়ের পুরো শ্রেয় বিরাট কোহলি এই খেলোয়াড়কে দিলেন 2

আরসিবি লাগাতার ভালো ক্রিকেট খেলছে। ফ্রেঞ্চাইজি ৭টির মধ্যে ৫টি ম্যাচ জিতে পয়েন্টস টেবিলে তৃতীয় স্থানে পৌঁছে গিয়েছে। এখন অধিনায়ক আগে নিজের দলের রণনীতির ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে বলেন,
“তিন সপ্তাহের শিবর আমাদের যথেষ্ট সাহায্য করেছে। আমরা নিজেদের রণনীতি নিয়ে স্পষ্ট ছিলাম যে আমরা মাঠে কী করতে চাই। সব মানসিকতার উপর নির্ভর করে। এটা ভীষণই পজিটিভ। যদি আপনার বোলিং ইউনিট মজবুত হয়, তো আপনার কাছে এই টুর্নামেন্টের গভীর পর্যন্ত যাওয়ার দুর্দান্ত সুযোগ রয়েছে। ও অবিশ্বসনীয় ছিল। আমার মনে হয়েছিল যে যখন আমি কিছু বল খেলে নেব তো স্ট্রাইক করা শুরু করে দেব। কিন্তু এবি মাঠে আসে আর নিজের তৃতীয় বলকে ভালোভাবে হিট করে”।

এমন পিচে এবি ডেভিলিয়র্সই করতে পারে স্কোর

RCBvsKKR: কেকেআরের বিরুদ্ধে পাওয়া জয়ের পুরো শ্রেয় বিরাট কোহলি এই খেলোয়াড়কে দিলেন 3

এবি ডেভিলিয়র্স এই ম্যাচে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেছেন। তিনি মাত্র ৩৩ বলে ৭৩ রান করে আরও একবার নিজেকে প্রমানিত করেছেন। ম্যাচ শেষ হওয়ার পর এবির ব্যাটিংয়ের প্রশংসা করে কোহলি বলেন, “ওই ধরণের পিচে একমাত্র এবিই এমনটা করতে পারে। এটা একটা বিশেষ ইনিংস ছিল। আমরা এবি ডেভিলিয়র্সের প্রতিভার কারণে ১৯৫ রানের বড় লক্ষ্য দিতে পেরেছি। সবসময় এমন জিনিস যার উপর আপনি ভাবনা চিন্তা করতে পারেন আর বলতে পারেন যে আপনি ঐ বিষয়গুলি নিয়ে উন্নতি করতে পারেন। এই গতিকে আমি আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই, আত্মসন্তুষ্ট হতে চাই না”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *