নখদন্তহীন নয়, বিপক্ষকে ক্ষমতা দেখানোর শক্তি এখনও রয়েছে আরসিবির, মানলেন এই অজি ক্রিকেটার 1
ক্রিস লিন

চোট পেয়ে বেশিরভাগ খেলোয়াড় দলের বাইরে বসে। বিরাট কোহলি বা এবি ডিভিলিয়ার্স চোট থেকে উঠেই কতটা স্বাভাবিকভাবে খেলতে পারবে তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। তবুও আরসিবি বিপক্ষকে হারানোর ক্ষমতা রাখে, এমনটাই মত কেকেআরের মিডল ওর্ডার ব্যাটসম্যান ক্রিস লিনের। তাঁর মতে আরসিবি দলটাই এবছর তৈরি হয়েছে বিপক্ষকে হারানোর জন্য।

বিরাট কোহলি না থাকায় লাভ হয়েছে সানরাইজার্সের, মানলেন শিখর ধবন

নিউটাউনের ফ্যানাটিক স্পোর্টস মিউজিয়ামে কলকাতা নাইট রাইডার্সের এক গ্যালারি উদ্বোধন করতে এসে বেশ ভাল মেজাজেই কথা অস্ট্রলিয়ান এই ব্যাটসম্যান। ক্রিস গেইল, শেন ওয়াটসনের মত অনেক ম্যাচ উইনার রয়েছে আরসিবিতে। কোহলিও কিছুদিনের মধ্যেই ফিরে আসবে। তাই আরসিবিকে হালকাভাবে নিতে নারাজ লিন। তিনি বলেন, “আরসিবির মজবুত ব্যাটিং লাইনআপকে ভেদ করা খুবই কঠিন। উচ্চমানের ক্রিকেটার, কোচিং কর্মীরা ওই দলকে জেতানোর দল হিসেবে তৈরি করেছে।” টুর্নামেন্টের প্রথম দিকে কোহলি না থাকায় আরসিবির খুব একটা ক্ষতি হবে তিনি মানেন না। বলেন, “এই লিগে ১৪টা করে ম্যাচ খেলবে প্রতিটা দল। সেখানে প্রথমের দু-তিনটে ম্যাচ এমন কিছু ফারাক তৈরি করবে না।” 

এই বছর কেকেআরও নতুন রকমের রণনীতি নিয়ে মাঠে নামছে বলেই জানান লিন। যত সম্ভব বেশি ডট বল খেলিয়ে রান রেটকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে চাইছে গৌতম গম্ভীর। লিন বলেন, “আমাদের পরিকল্পণা যত সম্ভব ডট বল খেলাও। এটা সত্যিই খুব কঠিন কাজ তবে যতটা বাউন্ডারি আমরা আটকাতে পারব ততটাই ম্যাচে জেতার সম্ভাবনা বেশি হবে।”

নতুন ধরনের পিচে খেলতে কীভাবে প্রস্তুত হচ্ছে কেকেআর, জানা গেল অধিনায়কের কাছেই

উমেশ যাদবের প্রথম কয়েকটা ম্যাচে না থাকাটা কেকেআরে যথেষ্ট প্রভাব ফেলবে মানছেন অজি ব্যাটসম্যান। এখন আইপিএলে পিচের চরিত্র বদলেছে। এই ধরনের পিচে উমেশের মত বোলার দারুণ কার্যকর হবে। লিনের মতে, “উমেশ প্রথমের দু’একটা ম্যাচে থাকবে না। ভারতীয় বোর্ড তাকে বিশ্রাম দিয়েছে। তবে উমেশ এই দলের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ।”

সদ্য বিগ ব্যাশ লিগে দ্রুত অর্ধশতরান করেছেন ক্রিস লিন। সেই সাফল্যে এখনও বেশ ভাল মেজাজে তিনি। নেট প্রাক্টিসেই সেটা ধরা পড়েছে। নিজে বিধ্বংসী ব্যাটিং করতে সক্ষম হলেও তাঁর ইউসুফ পাঠানের উপরই ভরসা বেশি। পাঁচ বা ছয় নম্বরে ব্যাট করতে নামা পাঠান শুধুমাত্র বিগ হিটের জন্যই বিখ্যাত। তাঁকে ওই জায়গায় নামানোই হয় তার জন্য বললেন লিন। পাঠানকে নিয়ে লিন বলেন, “ওর কাজই হল ওই জায়গায় ব্যাট করতে নেমে যত সম্ভব বেশি ছয় মারা। ও সেই কাজটাও খুবই ভালভাবে করে থাকে।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *