৪১ বছর বয়েসেও থামছে না এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানের ব্যাট, করলেন ৫৫তম সেঞ্চুরি

প্রত্যেক খেলোয়াড় ভারতের ঘরোয়া প্রতিযোগীতায় নিজের দুর্দান্ত প্রদর্শন দিতে চান। যাতে তারা নিজেদের প্রদর্শনের আধারে টিম ইন্ডিয়ায় নিজের জায়গা পাকা করতে পারেন। এই প্রতিযোগিতায় কিছু খেলোয়াড় এমনও রয়েছেন যারা টিম ইন্ডিয়ায় নিরাশাজনক প্রদর্শনের কারণে বাদ পড়ার পরও ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেন। রঞ্জি ট্রফির এটি ৮৪তম মরশুম। এই ট্রফিতে কিছু খেলোয়াড় এমন কৃতিত্বও করে দেখান যা দেখার একটা আলাদাই অনুভূতি হয়। এমনই এক কৃতিত্ব করে দেখিয়েছেন বিদর্ভ দলের দুর্দান্ত ব্যাটসম্যান ওয়াসিম জাফর। এই খেলোয়াড় নিজের ৪১তম জন্মদিনের আগেই নিজের ৫৫তম সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন।

জন্মদিনের আগে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি
৪১ বছর বয়েসেও থামছে না এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানের ব্যাট, করলেন ৫৫তম সেঞ্চুরি 1
এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান দ্রুতই তার ৪১তম জন্মদিন পালন করতে চলেছেন। এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানের প্রথম শ্রেণীর ম্যাচে ৫৫তম সেঞ্চুরির সাহায্যে বিদর্ভ গুজরাতের ৩২১ রানের জবাবে দুর্দান্ত শুরুয়াত করে রবিবার নাগপুরে রঞ্জি ট্রফির এলিট গ্রুপ এ ম্যাচ চলাকালীন তিন উইকেটে ২৩৮ রান তুলে ফেলেছে। এই ব্যাটসম্যান বিস্ফোরক ব্যাটিং করে ১২৬ রান করেছেন। তিনি নিজের এই ইনিংসে ১৭৬টি বল খেলে ১৩টি চার এবং দুটি ছক্কার সাহায্যে এই রান করেন।

সহঅধিনায়ক ফ্যাজ ফজলও গড়ে করেছেন পার্টনারশিপ
৪১ বছর বয়েসেও থামছে না এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানের ব্যাট, করলেন ৫৫তম সেঞ্চুরি 2
এই ম্যাচের মধ্যেই সহঅধিনায়ক ফ্যাজ ফজলএর সঙ্গে (৪৬) দ্বিতীয় উইকেটের জন্য ৮৪ আর গনেশ সতীশ (অপরাজিত ৪৫) এর সঙ্গে তৃতীয় উইকেটের জন্য জাফর ১৩৪ রানের দুর্দান্ত পার্টনারশিপ গড়েন। জানিয়ে দিই বিদর্ভ এখনো গুজরাটের থেকে ৮৩ রান পেছনে রয়েছে। কিন্তু এখনো তাদের কাছে ৭ উইকেট বাকি রয়েছে। কিন্তু গুজরাট এর আগে নিজের ২৬৩ রান থেকে ইনিংস আগে এগিয়ে নিয়ে যায়। তাদের হয়ে ধ্রুব রাওয়াল (৭৯), করুণ প্যাটেল (৫৫) হাফসেঞ্চুরি করেন। রবিবার কেতন প্যাটেল ১০৩ রান করেছিলেন। বিদর্ভের হয়ে আদিত্য সরওটে ৭১ রান দিয়ে চার উইকেট নেন।

প্রিয়ম গর্গের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি
৪১ বছর বয়েসেও থামছে না এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানের ব্যাট, করলেন ৫৫তম সেঞ্চুরি 3
অন্যদিকে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে আসা ইউপি দল মাত্র ২১ রানেই নিজেদের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট হারিয়ে ফেলে। এরপরই দলের অধিনায়ক অক্ষদীপ নাথ (১০৬) প্রিয়ম গর্গ (১১৩)এর সঙ্গে মিলে চতুর্থ উইকেটের জন্য ২০৭ রানের দুর্দান্ত পার্টনারশিপ গড়ে দলকে এই ম্যাচে ফিরিয়ে নিয়ে আসেন। শুধু তাই নয় দলকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি এই দুই ব্যাটসম্যান দুর্দান্ত সেঞ্চুরিও করেন। এর পর প্রিয়ম গর্গ (২০৬) রিংকু সিং (১৪৯) এর সঙ্গে মিলে পঞ্চম উইকেটের জন্য ২৫৫ রানের পার্টনারশিপ গড়ে ত্রিপুরাকে ব্যাকফুটে ঠেলে দেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *