রায়নার সাথে এই খেলোয়াড় পাবেন ভারতীয় দলে জায়গা! 1

রায়নার সাথে এই খেলোয়াড় পাবেন ভারতীয় দলে জায়গা! 2

যেহেতু ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট ঘোষনা দিয়েছে আগামী কয়েকটি সিরিজ পরীক্ষা নিরীক্ষা চালিয়ে বিশ্বকাপের আগে একটি শক্তিশালী দল তৈরী করবে তাই অস্ট্রেলিয়া সিরিজে কয়েকজন নতুন মুখ সুযোগ বলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। মানিশ পান্ডে, লোকেশ রাহুল, কুলদীপ যাদব এবং আরো কয়েকজন শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ম্যাচে, বিভিন্ন ভূমিকায় সুযোগ পেয়েছেন। যেহেতু শ্রীলঙ্কা সিরিজে কয়েকজন তরুণ খেলোয়ার সুযোগ পেয়েছে তাই অস্ট্রেলিয়া সফরে কয়েকজন সিনিয়র খেলোয়ার অস্ট্রেলিয়া সিরিজে সুযোগ পেতে পারেন। বিশ্বকাপের মত বড় আসরে সিনিয়র খেলোয়াররা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারেন এমন বিবেচনায় পাঁচ জন সিনিয়র খেলোয়ার অস্ট্রেলিয়া সিরিজে সুযোগ পেতে পারেন। তারা হলেন :

** ইশান শর্মা : বর্তমানে সবচেয়ে সিনিয়র পেসার হলেন ইশান শর্মা, বিশেষ করে একদিনের ক্রিকেটে বেশ কার্যকরী। ইংল্যান্ডের মাঠে শর্মার অভিজ্ঞতা কোহলী বাহিনীর জন্য কার্যকারী হতে পারেন। ইশান শর্মা দুটি টেস্ট সিরিজ ছাড়াও ২০১৩ সালে ধোনীর নেতৃত্বে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলেছিলেন ইংল্যান্ডে।

** অমিত মিশ্রা অমিত মিশ্রার মত দুর্ভাগা খেলোয়ার খুব কম ই আছেন। গত এক দশক বা তারও বেশি সময় ধরে ভারতের অন্যতম সেরা স্পিনার হয়েও হারবাজন সিং, রবীচন্দ্র আশ্বিন বা অন্যদের জন্য দলে সুযোগ পান নি। গত বছরে নিউজল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হলেও এরপরে আর তিনি সুযোগ পান নি।

** দিনেশ কার্তিক ঘরোয়া ক্রিকেটে অন্য সেরা ব্যাটসম্যান দিনেশ কার্তিক বিস্ময়কর ভাবে শ্রীলঙ্কা সিরিজে সুযোগ পসন নি। তামিলনাড়ু কে নেতৃত্ব দিয়ে তামিলনাড়ু কে এনে দিয়েছে ৫ম বারের মত বিজয় হাজারে ট্রফি, ফাইনালে বাংলার বিপক্ষে খেলেছেন ১১২ রানের ইনিস। ৫০ ওভারের এই ঘরোয়া টুর্নামেন্টে ৮৬.৭১ গড়ে নয় ম্যাচে করেছেন টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ৬০৭ রান। রনজি ট্রফিতে ৫৪.১৫ গড়ে করেছেন ৭০৪ রান। ৩৬ গড়ে ১৪ ম্যাচে আইপিএলে করেছেন ৩৬১ রান। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে কোন ম্যাচে সুযোগ না পেলেও ওয়েস্ট উইন্ডিজ সফরে খেলেছেন দুটি ওয়ানডে ম্যাচ।

** যুবরাজ সিং অতীতে বড় ম্যাচ বিশেষ করে আইসিসির আসরে তার অতীত সাফল্য বিবেচনা করে দল যুবরাজের বিষয় নিশ্চিতভাবে আরেক বার চেষ্টা করে দেখবে। এ বছরের শুরুতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১৫০ রানের ইনিংস আর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে দ্রুত গতির অর্ধ শতকে কথা বিবেচনায় অনায়াসে আরেকবার দলে সুযোগ পেতে পারেন যুবরাজ সিং। এছাড়া চার নম্বর নিয়ে ভারত যে সমস্যায় আছে তারও সমাধান হতে পারে যুবরাজের অন্তর্ভুক্তি।

** সুরেশ রায়না খুব বেশিদিন আগের কথা না যখন সুরেশ রায়না ছিলেন সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ভারতের অপরিহার্য সদস্য। ২০১৫ এর অক্টোবরের পর আর ওয়ানডে দলে সুযোগ না পেলেও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিনটি টিটুয়েন্টি ম্যাচে ব্যাটিং আর আইপিএলে ব্যাটিং মনে করিয়ে দেয় এখনো বড় ম্যাচের জন্য রায়না শেষ হয়ে যায় নি। ইংল্যান্ডে বিরুদ্ধে তিন টিটুয়েন্টিতে ১০৪ করে হয়েছিলেন তৃতীয় সর্বোচ্চ সংগ্রাহক। আর আইপিএলে ১৪ ম্যাচে ৪৪২ রান। তাই চার নাম্বারের জন্য ভারত উত্তর প্রদেশের এই ব্যাটসম্যানকেও বিবেচনা করতে পারে।

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *