রাহানেকে বাদ দিয়ে কোন যুক্তিতে দলে লোকেশ রাহুল? - নির্বাচকদের কাছে কারণ জানতে চাইলেন গাভাস্কার 1

সাত অক্টোবর থেকে শুরু হতে চলা অস্ট্রেলিয়া বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজে তিনটি ম্য়াচের জন্য ভারতীয় দলে ওপেনার অজিঙ্কা রাহানেকে রাখেননি নির্বাচকরা। অথচ ওয়ান-ডে সিরিজে ভারতীয় দলের ব্য়াটসম্য়ানদের পারফরম্য়ান্সের দিকে চোখ রাখলে দেখা যাবে, প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক ম্য়াচটি বাদ দিলে পরের বাকি চারটি ম্য়াচে ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করেছেন এই ডান-হাতি ব্য়াটসম্য়ান। সেঞ্চুরি না পেলেও টানা চারটি অর্ধ-শতরান সিরিজে। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সত্ত্বেও রাহানেকে টি-২০ সিরিজ থেকে ব্রাত্য় রেখেছেন নির্বাচকরা। কোনও যুক্তিই এর পেছনে খাটে না। এজন্য়, গত বুধবার (চার অক্টোবর) ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বর্তমান নির্বাচক মণ্ডলীর নির্বাচকদের কড়া সমালোচনা করেছেন, প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক ও ব্য়াটিং লেজেন্ড সুনীল গাভাস্কার।

ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও হেড কোচ রবি শাস্ত্রীর প্রিয় পাত্র লোকেশ রাহুলকে কোন যুক্তিতে টি-২০ সিরিজের দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, তাও জানতে চেয়েছেন গাভাস্কার। তাঁর বক্তব্য়, লোকেশ রাহুলকে কেন দলে রাখা হয়েছে, সে প্রসঙ্গে নির্বাচকরা কোন যুক্তি খাটাতে চাইছেন, তা জানাতে হবে। একটি বেসরকারি টিভি চ্য়ানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সানি বলে বলেন, যে ছেলেটা পরপর চারটি ম্য়াচে হাফসেঞ্চুরি করল, তাকেই দলে জায়গা দেওয়া হলো না। কেন?” গাভাস্কার এরপর বলেন, কেএল রাহুল ভালো ক্রিকেটার। কিন্তু, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পাঁচ ম্য়াচের একদিনের সিরিজে একটাও ম্য়াচ খেলেনি ছেলেটা, তাকে দলে নেওয়া হলো কি করে? অথচ চারটে হাফসেঞ্চুরি করেও দলে রাহানের জায়গা হলো না।

ব্য়ক্তিগত কারণে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ থেকে স্পেশালিস্ট ওপেনার শিখর ধওয়ন ছুটি নেওয়ায় অজিঙ্কা রাহানেকে অস্ট্রেলিয়া সিরিজে ওপেনার ভূমিকায় নামতে দেখা যায়। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দলের হয়ে সবচেয়ে বেশি রান করা রাহানেকে শ্রীলঙ্কা সফরে খেলানো যায়নি সেভাবে। কারণ, প্রথম একাদশে জায়গা হচ্ছিল না। অথচ একের পর এক ম্য়াচে ব্য়র্থ হয়ে চলা রাহুলকে খেলিয়ে যাওয়া হয়েছিল। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ান-ডে সিরিজে ধওয়ানের অনুপস্থিতিতে রাহানের যেমন শিঁকে ছিঁড়েছে, তেমন দলে থেকেও প্রথম একাদশে একটি ম্য়াচেও ভারতীয় টিম ম্য়ানেজমেন্ট জায়গা করে দিতে পারেনি রাহুলকে। ওপেনারের ভূমিকায় সুযোগটা পুরো লুফে নিয়েছেন রাহানে। সিরিজে তাঁর রান ২৪৪ (৫, ৫৫, ৭০, ৫৩ ও ৬১)।  ফর্মে থাকা সত্ত্বেও কেন নির্বাচকরা তাঁকে টি-২০ দলে নিলেন না, অথচ রাহুলকে খেলাতে চাইছেন, সে যুক্তি কারও কাছে পরিষ্কার নয়। রাহানে হতাশ হলেও তিনি নির্বাচকদের সিদ্ধান্তকে সম্মান করেন বলে জানিয়েছেন। ভালো পারফর্ম করার পরেও বারবার এই ধরণের ঘটনা ঘটে চলেছে মুম্বইয়ের এই প্রতিভাবান স্টাইলিশ ব্য়াটসম্য়ানটির সঙ্গে। রাহানে  এপ্রসঙ্গে মুম্বইয়ে সাংবাদিকদের বলেন, হ্য়াঁ, আমরা অনেক ক্রিকেট ম্য়াচ খেলি সারা বছর। টিম ম্য়ানেজমেন্ট ও নির্বাচকরা সব সিদ্ধান্ত নেন। আমরা সেটাকে সম্মান করি। প্রতিদ্বন্দ্বিতার কথা যদি বলেন, এটা দরকার। তবেই না, আপনি আপনার সেরাটা দেবেন। দলে যাকেই সুযোগ দেওয়া হোক, সেই ভালো খেলবে। আমি সবসময় প্রতিযোগিতায় বিশ্বাস করি।

টি-২০ সিরিজের ভারতীয় দল – বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহ-অধিনায়ক), শিখর ধওয়ন, কেএল রাহুল, মণীশ পাণ্ডে, কেদার যাদব, দিনেশ কার্তিক, এমএস ধোনি (উইকেটরক্ষক), হার্দিক পান্ডিয়া, কুলদীপ যাদব, যুজবেন্দ্র চহল, জসপ্রীত বুমরাহ, ভুবনেশ্বর কুমার, আশিস নেহরা ও অক্ষর প্য়াটেল

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *