পুনের পিচ বুমেরাং হল ভারতের কাছে 1
জয়ের পর উচ্ছ

পুনেতে ভারতীয় দলের সোচনীয় হারের পর অনেকেই পুনের পিচকে কাঠগড়ায় তুলেছেন। আবার অনেকেই মনে করছেন, শুধুমাত্র খারাপ ব্যাটিংয়ের জন্যই কোহলিদের নতি স্বীকার করতে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার কাছে। কিন্তু দীর্ঘ ১৩ বছরে এই পরাজয় কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না দেশের ক্রিকেট প্রেমীমহল। বিশেষ করে ভারত যেখানে আইসিসি টেস্ট ক্রিকেট র্যা ঙ্কিং-এ শিরোস্থানে আছে।আর তাই সবকিছু বিচার করে কার্যত মূল ভিলেনের ভুমিকা মানা হচ্ছে পুনের শুকনো, রুক্ষ পিচকে।
ভারতীয় ক্রিকেটের সুবর্ণ সময়ে এমন লজ্জাজনক হার বেশকিছু প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। এই পরাজয়ের পোস্টমর্টাম করতে গিয়ে প্রথমেই মাথায় আসে, অশ্বিন জাডেজার স্পিনের ভেলকি দেখানোর জন্য, পিচ কিউরেটরকে কোহলি নিজেই কী এই নির্দেশ দিলেন? শনিবার ম্যাচে ভরাডুবির পর এক সাংবাদিকের এই প্রশ্নে কোহলি বলেন, ‘পিচের ব্যাপারে আমি কাউকে কিছু বলিনি।’ তাহলে কার অঙ্গুলিহেলনে এমন একতরফা পিচ বানানো হল প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। সদ্য সমাপ্ত ইংল্যান্ড সিরিজেও পুনেতে খেলা হয়েছে। কিন্তু তখনও পিচ এমন বিশ্বাসঘাতকতা করেনি কোহলি, রাহুল, রাহানেদের সঙ্গে। তাই প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।
সূত্রের খবর, পুনে টেস্ট শুরু হওয়ার চারদিন আগে থেকেই পিচে জল দেওয়া বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। ফলে পুনের মত গরম জায়গায় তীব্র রোদে মাটি পুরোপুরিভাবে শুকিয়ে রুক্ষ হয়েগিয়েছিল। এরফলে টেস্টের প্রথমদিন থেকেই বল স্পিন ও বাউন্স করছিল ভালই। অজি অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ পিচ দেখেইযথার্থভাবেই তা অনুমান করে নিয়েছিলেন। তাই বেশ দেখেশুনে ব্যাটিং করে এক সম্মানজনক স্কোর দাঁড় করান। দ্বিতীয় ইনিংসেও একই রণনীতর উপরই ভরসা করেন তিনি। পিচ অনুযায়ী স্মিথের এই রণনীতি উপযুক্ত ছিল। যেটার অভাব ছিল ভারতীয় ব্যাটিংয়ে। তার ওপর ওক্যাফির দূর্দান্ত স্পেল ভারতীয় কফিনে শেষ পেরেকটা গেঁথে দেয়। উদীয়মান অধিনায়ক হিসেবে কোহলির বিরাট নাম হলেও পুনের বাজিটা জিতলেন স্মিথই।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *