জাতীয় দলে ফেরাই এখন মূল লক্ষ্য পাঠানের 1

আইপিএল নয়, তাঁর লক্ষ্য ভারতীয় দলে কামব্যাক করা। এভাবেই স্পষ্ট তাঁর মত জানিয়ে দিলেন ইরফান পাঠান। এবছর আইপিএল নিলামে ইরফান পাঠান ও ইশান্ত শর্মাকে কোনও ফ্রাঞ্চাইসি নেওয়ার আগ্রহ দেখায়নি। প্রতিবছর আইপিএলে নতুন নতুন মুখ উঠে আসে। এবছরও তার অন্যথা হয়নি। আনকোরা ক্রিকেটারদের নিলেও, কেন এই দুই তারকার প্রতি আগ্রহ দেখাল না কোনও ফ্রাঞ্চাইসি, সেই নিয়ে ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে। কিন্তু খোদ পাঠানই চান না এই মূহুর্তে এসব জল্পনায় মাথা ঘামাতে। তিনি সরাসরি জানিয়ে দিয়েছেন, জাতীয় দলের হয়ে না খেলতে পারাটাই তাঁকে বেশী কষ্ট দেয়। তাই অভ্যন্তরীন ক্রিকেটে ভাল ফল করে নির্বাচকদের দৃষ্টিতে আসতে চাইছেন তিনি।
আইপিএলে জায়গা না হলেও, আসন্ন বিজয় হাজারে ট্রফিতে বরোদার অধিনায়ক হিসেবে বাইশ গজে ফিরতে চলেছে অন্যতম এই অলরাউন্ডার তাঁর সহকারি হচ্ছেন দীপক হুডা। এবছরেই হতে চলেছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি।তার দল এখনও নির্বাচিত করা হয়নি। তাই বিজয় হাজারেতে দারুন পারফর্ম করে জাতীয় দলে জায়গা করে নিতে চাইছেন পাঠান। এক স্যোশাল নেটওয়ার্কিং সাইটে তিনি নিজে পোস্ট করে জানান, আইপিএল নয়, জাতীয় দলের হয়ে খেলতে না পারাটাই তাঁকে বেশি কষ্ট দেয়।
২০০৮-এ কিংগস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে আইপিএলে অভিষেক হয় পাঠানের। এরপর ২০১২-১৩’তে বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার দিল্লির হয়ে খেলেছিলেন। এর পরের দু’বছর, অর্থাৎ ২০১৪-১৫ খেলেন হায়দ্রাবাদের হয়ে। চেন্নাই সুপার কিংসে এই তারকা জায়গা পেলেও, দলের হয়ে বাইশ গজে তাঁকে দেখা যায়নি। ভারতের হয়ে ২০০৩-এ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে যে সাংঘাতিক স্যুইং লক্ষ করা গিয়েছিল পাঠানের বলে, সেইভাবেই আবারও জাতীয় দলে ফিরে আসতে চান তিনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *