ধোনির জায়গা নেওয়াটা বরাবর অত‍্যন্ত কঠিন একটি কাজ বলেই মনে করেন পার্থিব প‍্যাটেল 1

ইতিমধ্যে কেরিয়ারের সায়াহ্নে এসে দাড়িয়েছেন তিনি। যদিও দলে তার অভাব পুরনের কাজ অত‍্যন্ত কঠিন বলেই মনে করেন পার্থিব প‍্যাটেল।কারণ ভারতীয় ক্রিকেট দলে ধোনির বদলে সুযোগ করে নেওয়া বরাবর একটা কঠিন তা পার্থিব প‍্যাটেলের চেয়ে আর অন্য কেউ ভালো জানবে না। কারণ তিনি নিজেও একজন উইকেট কিপার এবং কেরিয়ারে একাধিক সময় দলে জায়গা পেতে বেগ পেতে হয়েছে তাকেও।

২০০২ সালে ভারতীয় ক্রিকেটে অভিষেক হয় পার্থিবের।এরপর যখন ধোনির অভিষেক হয় তখন ক্রমশ তার সুযোগ পাওয়া কঠিন হয়ে দাড়ায়। সম্প্রতি পার্থিব জানিয়েছেন তার এবং দীনেশ কার্তিকের কাছে এর পর দলে সুযোগ পাওয়াটা এক অত‍্যন্ত কঠিন কাজ হয়ে দাড়ায়।

ধোনির জায়গা নেওয়াটা বরাবর অত‍্যন্ত কঠিন একটি কাজ বলেই মনে করেন পার্থিব প‍্যাটেল 2

” যখন তুমি ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করতে চাও, তখন তোমায় ২৭ জন উইকেট কিপারের সাথে লড়াই করে সুযোগ করে নিতে হচ্ছে।দলের হয়ে ধোনি যা করেছে তা স্মরণীয় হয়ে থাকবে, এবং পরবর্তী প্রজন্মের কাছে তা শিক্ষনীয়।কারণ যিনি অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেয় তাদের কাছে কাজটা বরাবর কঠিন থাকে ।” ইতিমধ্যে ৩৪ এ পা দিয়েছেন পার্থিব।তবে এখনো ফের জাতীয় দলে ফেরার আশা ছাড়েননি গুজরাট অধিনায়ক।যদিও তিনি জানিয়েছেন এক্ষেত্রে নিজের উপর বাড়তি কোনও চাপ সৃষ্টি করতে চান না বরং খেলাটাকেই উপভোগ করতে চান।

” এখনই সবকিছু যে শেষ তা বলা যায়না কারণ আমার বয়স সবে ৩৪, তবে এই বিষয়টি নিয়ে ভাবনা – চিন্তা করে আমি নিজের উপর কোনও রকম অযথা চাপ সৃষ্টি করতে চাই না , বরং খেলাটা উপভোগ করতে চাই।কারণ আমি যদি এখনো রান করে যেতে পারি, তাহলে নির্বাচক এবং দল বিশ্বাস করতেই পারে যে আমি প্রত‍্যাবর্তন করতে পারি।”

ধোনির জায়গা নেওয়াটা বরাবর অত‍্যন্ত কঠিন একটি কাজ বলেই মনে করেন পার্থিব প‍্যাটেল 3

শুধু নিজের কথাই নন, এদিন পার্থিব জানান তিনি সাহায্য করতে চান উঠতি ক্রিকেটারদের।তার বক্তব্য, ” ইতিমধ্যে কেরিয়ারের ১৮-১৯ বছর অতিক্রম করেছি আমি।তাই স্বাভাবিক খেলাটা উপভোগ করার পাশাপাশি আমি তরুণ প্রজন্মকে সাহায্য করতে চাই যাতে তারা নিজেদের প্রমাণ করতে পারে।”

প্রসঙ্গত, বিজয় হাজারে ট্রফিতে দুরন্ত শুরু করেছে গুজরাট।জিতেছে তাদের প্রথম দুই ম‍্যাচ।ছন্দে আছে পার্থিব।মধ্যপ্রদেশের বিপক্ষে ম‍্যাচে তিনি করেছিলেন ৯০ বলে ৯৬ রান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *