আবারো ভারতকে অপমান শাহিদ আফ্রিদির, উইং কমাণ্ডর অভিনন্দনকে নিয়ে করলেন এই অপমানজনক মন্তব্য

এই মুহূর্তে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের তারকা খেলোয়াড় শাহিদ আফ্রিদিকে রাজনীতির আখড়ায় ঝাঁপ দেওয়ার প্রস্তুতি নিতে দেখা যাচ্ছে। পাকিস্তান ক্রিকেটে কেরিয়ার শেষ হওয়ার পর এখন শাহিদ আফ্রিদির কাজকর্ম দেখে মনে হচ্ছে যে তিনি পাকিস্তানের রাজনীতিতে নিজের ভাগ্য পরীক্ষা করে দেখতে চান।

বারবার ভারতের বিরুদ্ধে বিষ উগড়ে দিচ্ছেন শাহিদ আফ্রিদি

আবারো ভারতকে অপমান শাহিদ আফ্রিদির, উইং কমাণ্ডর অভিনন্দনকে নিয়ে করলেন এই অপমানজনক মন্তব্য 1

তাই তো ক্রিকেটের লাইন থেকে সম্পূর্ণ দূরে সরে গত কিছু দিন ধরে আফ্রিদি ভীষণই রাজনৈতিক বয়ানবাজি করছেন। শাহিদ আফ্রিদি পাকিস্তানের রাজনৈতিক পরিস্থিতি দেখে ভারতের উপর বয়ান বাজি থেকে পেছু হটছেন না। গত কয়েকদিন আগেই ভারত আর ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে শাহিদ আফ্রিদি দারুণভাবে বিষ উগরে দিয়েছিলেন। যারপর তো তাকে ভারতে জমিয়ে ট্রোল করেছেন। কিন্তু শাহিদ আফ্রিদির ব্যবহারে কোনো পরিবর্তন হয়নি।

আজ উইং কম্যান্ডার অভিনন্দনকে নিয়ে করেছেন কমেন্ট

আবারো ভারতকে অপমান শাহিদ আফ্রিদির, উইং কমাণ্ডর অভিনন্দনকে নিয়ে করলেন এই অপমানজনক মন্তব্য 2

শাহিদ আফ্রিদি আরো একবার ভারতের বিরুদ্ধে জমিয়ে বিষ উগড়ে দিয়েছেন। আর এবার তো এবার তো তাকে রাজনীতির নাম নিয়ে ধর্মের পাঠ পড়াতে দেখা গেছে অন্যদিকে ভারতের উইং কম্যান্ডার অভিনন্দনকে নিয়েও খারাপ কথা বলেছেন। ভারতের বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন পাকিস্তানের সীমাতে গিয়েছিলেন কিন্তু আফ্রিদি তাকে টার্গেট বানিয়ে বলেছেন যে পাকিস্তানী ফৌজ অভিনন্দনকে উপর থেকে নীচে ফেলে দিয়েছে কিন্তু তা সত্ত্বেও ভারত তাকে হিরো বানিয়ে দিয়েছে।

আমরা যাকে উপর থেকে নীচে ফেলেছিলাম, ভারত তাকে সেখানে বানিয়েছে হিরো

আবারো ভারতকে অপমান শাহিদ আফ্রিদির, উইং কমাণ্ডর অভিনন্দনকে নিয়ে করলেন এই অপমানজনক মন্তব্য 3

পাকিস্তানের একটি টিভিতে কথাবার্তা চলাকালীন শাহিদ আফ্রিদি বলেছেন যে,

“পাকিস্তানের ফৌজ সবসময়ই পজিটিভ কথা বলেছে। এর চেয়ে বড়ো উদাহরণ কী হতে পারে যে, যে ভাই আমাদের এখানে উড়ে এসেছিলেন অভিনন্দন, আমরা তাকে চায় খাইয়ে সম্মানের সঙ্গে ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছি। হিন্দুস্তান তাকেও হিরো বানিয়ে দিয়েছে যাকে আমরা এখানে ফেলে দিয়ে ফেরত পাঠিয়ে ছিলাম এরচ্যী বেশি আমরা আপনাদের জন্য কী করতে পারি। আমার কথার অর্থ হলো যে ভারতের এক পা আগে বাড়ানো উচিত। আপনি মানুষ সেই অনুযায়ীই কাজ করুন”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *