ভবিষ্যত নিয়ে এখনও কিছু ভাবিনি : সৌরভ গাঙ্গুলি 1
সৌরভ গাঙ্গুলি

লোধা কমিশনের রায়ের ধাক্কায় রীতিমতো টালমাটাল অবস্থা সিএবিতে। অনুরাগের বিদায়ে একটা সময় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি পদে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সম্ভাবনা যতোটা উজ্জ্বল দেখাচ্ছিল, এখন পরিস্থিতি একেবারে আলাদা। লোধা কমিশনের তৈরি নিয়ম অনুযায়ী বিসিসিআই-এর সভাপতি পদে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে বসতে গেলে তাঁকে এখন বহু কাঠখড় পোড়াতে হবে ৷ বিসিসিআই-এর সভাপতি পদের নির্বাচনে লড়তে গেলে সামনের জুনের পরেই কুলিং অফ পিরিয়ডে যেতে হবে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে ৷ অর্থাৎ মহারাজকে ছাড়তে হবে সিএবি প্রেসিডেন্টের পদ৷ অফ পিরিয়ড কাটিয়ে এসে ফের নির্বাচনে লড়তে পারবেন সৌরভ। সিএবি-র মসনদে বসে থাকার সময় বাবদ এই মুহূর্তে সৌরভের হাতে রয়েছে আরও ৬ মাস। তাহলে এখন তিনি কি করবেন? আগামী ৬ মাস কি সিএবি-র সভাপতির পদে থেকে যাবেন, নাকি সেখান থেকে সরে আসবেন? সামনের জুনের পর কুলিং পিরিয়ডে যাওয়ার পরই বা তিনি কী করবেন? এ প্রশ্নের উত্তরে সৌরভ সরাসরি বলে দেন, “ভবিষ্যত নিয়ে এখনও কিছুই ভাবেননি। দেখা যাক, কি হয়।”

জুনের পর সিএবির প্রশাসক পদে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভবিষ্যত নিয়ে তৈরি হয়ে গেল একগাদা প্রশ্ন। গত বৃহস্পতিবারই লোধা কমিটির নির্দেশ এবং রায়ের ব্যাখ্যা সিএবি সহ বিভিন্ন রাজ্য ক্রিকেট সংস্থায় পৌঁছে গিয়েছে। সেটা হাতে পাওয়ার পরেই সিএবি কর্তাদের মাথায় হাত। ৭ নং ধারায় পরিষ্কার করে লেখা আছে, ২০১৭ র জুনের পর ৩ বছরের কুলিং অফ পিরিয়ডে যেতে হবে সৌরভকে। অফ পিরিয়ড কাটিয়ে এসে তিনি ফের নির্বাচনে লড়তে পারবেন । ফলে বোর্ড সভাপতি হিসাবে মহারাজের স্বপ্নের দৌড় শুরু হওয়ার আগেই শেষ হয়ে গেল।তবে বোর্ডের মসনদে বসার জন্য মহারাজ সরে যাওয়ার কথা ভাবছেন না। ঘনিষ্ট মহলে জানিয়েছেন, আগামী ছয় মাস, তাঁর মেয়াদকালে সিএবি প্রেসিডেন্টের পদেই থাকবেন। লোধার ৪ নম্বর ব্যাখ্যায় এবার সরতে হচ্ছে সিএবি কোষাধক্ষ্য বিশ্বরুপ দে-কে। একইভাবে সরতে হচ্ছে যুগ্ম সচিব সুবীর গঙ্গোপাধ্যায়কেও। এ ব্যাপারে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সাফ মন্তব্য, “আইন তো সবাইকে মানতে হবে। কমিশনে যা বলা রয়েছে, সেটাই করতে হবে। কমিশনের কাছে আর নতুন কোনও ব্যাখ্যা চাইব না।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *