আগামী ২০ এবং ২১ জানুয়ারি কলকাতায়বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিট’ নামে একটি শিল্প সম্মেলন আয়োজন করতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার। শিল্প খরার মধ্যে দিয়ে, সাম্প্রতিক কেন্দ্ররাজ্য সংঘাতের আবহে এবারে এই সম্মেলন সফল করাটা রীতিমতো চ্যালেঞ্জের হয়ে দাঁড়িয়েছে রাজ্য সরকারের কাছে।ওই সম্মেলনে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির আসা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে।তবে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় সেখানে যোগ দেবেন বলে জানা গিয়েছে।এমন একটা কঠিন পরিস্থিতিতে বাংলার প্রতিবেশী রাজ্য ঝাড়খণ্ডও তালে তাল রেখে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে একটি বিশ্বমানের শিল্প সম্মেলন আয়োজন করতে চলেছে।আগামী ১৬ এবং ১৭ ফেব্রুয়ারি রাঁচিতেমোমেন্টাম ঝাড়খণ্ডনামে শিল্প সম্মেলন হবে বলে জানা গিয়েছে।তাদের লক্ষ্য,পশ্চিমবঙ্গের মতোই ঝাড়খণ্ডেও আন্তর্জাতিক মানের সম্মেলন আয়োজন করে বিনিয়োগ টানা। সেই উদ্দেশ্য নিয়ে এ্রইরমধ্যে কোমর বেঁধে মাঠে নেমে পড়েছে ঝাড়খণ্ড সরকার। এবার এ রাজ্যের মতো প্রতিবেশি ঝাড়খণ্ডও নিজেদের রাজ্যে বিনিয়োগ টানতে প্রধান অস্ত্র হিসেবে ভূমিপূত্র মহেন্দ্র সিং ধোনির এম এস ধোনির শরণাপন্ন হল।একেবারে পেশাদারী কায়দায় ধোনিকে দিয়ে বিজ্ঞাপন করিয়েছে ঝাড়খণ্ড সরকার। সেই বিজ্ঞাপন এখন থেকেই জাতীয় স্তরের টেলিভিশন সম্প্রচার হতে শুরু করেছে।যেখানে ধোনি নিজেকে ঝাড়খণ্ডের ভূমিপুত্র বলে দাবি করে নিজের রাজ্যকে দেশের এক নম্বরে নিয়ে যাওয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছেন।এবং সেই সাফল্যের শরিক হওয়ার জন্য মাহি বিশ্বের বিনিয়োগকারীদের ঝাড়খণ্ডে আসার আবেদনও জানাচ্ছেন। 

সদ্য জাতীয় একদিন এবং টি-২০ দলের অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন ধোনি তার পরেই তিনি তো রীতিমতো পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের পাশাপাশি অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদেরও মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন।নতুন ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া এম এস কিন্তু অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গকে একটু বেশি চ্যালেঞ্জ জানালেন।কারণ, অতীতে সৌরভকে দিয়ে বাংলায় বিশ্বের উদ্যোগপতি তুলে আনার জন্য একটি রিয়্যালিটি শো আয়োজন করেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার।এমন পরিস্থিতিতে নিশ্চিতভাবে রাজ্যের পাল্টা অস্ত্র হতেই পারেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় রাজ্যে শিল্পের বন্যা বইয়ে দেওয়ার জন্য কি এবার ধোনিকে কড়া টেক্কা দিতে মাঠে নামবেন প্রিন্স অফ ক্যালকাটা?সূত্রের খবর, ভবিষ্যতে রাজ্যে শিল্প বিনিয়োগ টানতে বর্তমান সিএবি প্রেসিডেন্টকে ফের ময়দানে নামানোর পরিকল্পনা রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের।উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গের শিল্প সম্মেলনে যেখানে কেন্দ্রের একজন মন্ত্রীর আসা নিয়েই সংশয় তৈরি হয়েছে, সেখানে বিজেপিশাসিত ঝাড়খণ্ডের শিল্প সম্মেলনে অরুণ জেটলি, রাজনাথ সিংহ, সুষমা স্বরাজ, নির্মলা সীতারামণের মতো মন্ত্রীদের রাঁচিতে আসার কথা জানা গিয়েছে। এছাড়া থাকবেন বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরাও। সেই তালিকায় নাম রয়েছে পশ্চিমবঙ্গরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। দেশের প্রথমসারির শিল্পপতিদের মধ্যে মুকেশ অম্বানি এবং অনিল অম্বানি এই সম্মেলনে আসার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

SHARE

আরও পড়ুন

মহেন্দ্র সিং ধোনিকে সিদ্ধার্থ কৌল বললেন ক্রিকেটের এনসাইক্লোপিডিয়া

মহেন্দ্র সিং ধোনিকে সিদ্ধার্থ কৌল বললেন ক্রিকেটের এনসাইক্লোপিডিয়া
মহেন্দ্র সিং ধোনি ক্রিকেটের সেই সমস্ত খেলোয়াড়দের মধ্যে শামিল যারা নিজেদের পরিকল্পনা আর প্রদর্শনে ক্রিকেট ম্যাচের দিক...

এশিয়া কাপে দলের ভালো প্রদর্শন সত্বেও রবি শাস্ত্রী টুইটারে হচ্ছেন ট্রোল, চমকে দেওয়ার মতো কারণ

এশিয়া কাপে দলের ভালো প্রদর্শন সত্বেও রবি শাস্ত্রী টুইটারে হচ্ছেন ট্রোল, চমকে দেওয়ার মতো কারণ
ইংল্যান্ডে ভারতীয় দলের হারের পর থেকেই দলের কোচ রবি শাস্ত্রী লোকদের নিশানায় এসে গিয়েছেন। প্রথমে দলের খারাপ...

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে নামা নিয়ে রাহুল দ্রাবিড় দিলেন এই বড় বয়ান, বললেন এই কথা

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে নামা নিয়ে রাহুল দ্রাবিড় দিলেন এই বড় বয়ান, বললেন এই কথা
রাহুল দ্রাবিড় ক্রিকেট দুনিয়ায় দ্য ওয়াল নামে জনপ্রিয়। ব্যাটিংয়ে সমস্ত উপলব্ধী হাসিল করা দ্রাবিড় নিজের শান্ত স্বভাবের...

এশিয়া কাপ ২০১৮: আফগানিস্থানের প্রদর্শন দেখে ক্রিকেট তারকারা পর্যন্ত হলেন ভক্ত, ডিন জোন্স বললেন এই কথা

এশিয়া কাপ ২০১৮: আফগানিস্থানের প্রদর্শন দেখে ক্রিকেট তারকারা পর্যন্ত হলেন ভক্ত, ডিন জোন্স বললেন এই কথা
এশিয়া কাপে আজ দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানিস্থানের মুখোমুখি হচ্ছে পাকিস্থান। এই ম্যাচে আরও একবার আফগানিস্থান টস জিতে প্রথমে...

এশিয়া কাপ ২০১৮:ভিডিয়ো: ভারত-পাক ম্যাচ চলাকালীন পাকিস্থানী সমর্থক গাইলেন ভারতীয় জাতীয় সঙ্গীত, ভিডিয়ো হল ভাইরাল

এশিয়া কাপ ২০১৮:ভিডিয়ো: ভারত-পাক ম্যাচ চলাকালীন পাকিস্থানী সমর্থক গাইলেন ভারতীয় জাতীয় সঙ্গীত, ভিডিয়ো হল ভাইরাল
ভারত আর পাকিস্থানের মধ্যে বর্তমান সময়ে সম্পর্ক ঠিক চলছে না। এই কারণে দুই দেশের ক্রিকেদ দলের মধ্যে...