পারফেক্ট থ্রো, মনীষ পাণ্ডের ক্রিজে পৌঁছনোর আগে স্যান্টেনার স্ট্যাম্পে মারলেন বল, এই কারণে অ্যাম্পায়ার দিলেন না আউট

ভারত বনাম নিউজিল্যান্ডের মধ্যে মাউন্ট মনগুনইয়ের বে ওভাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলা হওয়া তৃতীয় আর শেষ ওয়ানডে ম্যাচ ঘরের দল কিউয়ি টিম ৫ উইকেটে জিতে নিয়েছে। এই সঙ্গেই নিউজিল্যান্ড টিম ইন্ডিয়াকে একদিনের সিরিজে ক্লীন সুইপ করে দিয়েছে। যতই তৃতীয় একদজনের ম্যাচ কিউয়ি দল জিতুক কিন্তু ম্যাচে ফিল্ডিংয়ের সময় স্পিন বোলার মিচেল স্যান্টেনার মনীষ পান্ডেকে রান আউট করার সুযোগ ভুল করে হারিয়ে ফেলেছিলেন।

মিচেল স্যান্টেনার হারালেন মনীষ পান্ডেকে রান আউট করার সুযোগ

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল টস জিতে অতিথি ভারতকে প্রথমে ব্যাট করার জন্য আমন্ত্রণ জানায়। ভারতের ব্যাট করার সময় ৪৪তম ওভারে মনীষ পান্ডেকে রান আউট করার সুযোগ মিচেল স্যান্টেনার হারিয়ে তাকে জীবনদান দেন। আসলে কেএল রাহুল আর মনীষ পান্ডে ভারতের স্কোরকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন। তখনই মনীষ ৩৫ রানে ব্যাটিং করছিলেন, সেই সময় পান্ডে শট খেলার পর ২ রানের জন্য দৌড়ন। আর কিউয়ি দলের কাছে তাকে রান আউট করার দারুন সুযোগ তৈরি হয়। যখন উইকেট কিপার টম লাথাম দ্রুতগতিতে বল তুলে নন স্ট্রাইকার এন্ডে ছোঁড়েন যেখানে মনীষ পান্ডে ক্রিজে পৌঁছতে পারেননি। সকলেরই মনে হয় যে মনীষ রান আউট হয়ে গেছেন, কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায় বল স্ট্যাম্পে লাগার আগেই স্যান্টেনারের হাঁটুতে লেগে বেলস পড়ে যায়। পরিণাম স্বরূপ মনীষ পান্ডেকে নট আউট দেওয়া হয়।

ভারতীয় ক্রিকেট দল ৫ উইকেট হারে

পারফেক্ট থ্রো, মনীষ পাণ্ডের ক্রিজে পৌঁছনোর আগে স্যান্টেনার স্ট্যাম্পে মারলেন বল, এই কারণে অ্যাম্পায়ার দিলেন না আউট 1

টস হেরে প্রথম ব্যাট করে টিম ইন্ডিয়াকে আরো একবার শুরু থেকেই নড়বড়ে দেখায়। ৩২ রানে ২ উইকেট হারানোর পর শ্রেয়স আইয়ার ৬২, কেএল রাহুল ১১২ আর মনীষ পান্ডের ৪২ রানের সাহায্যে টিম ইন্ডিয়া ২৯৬ রানের সম্মানজনক স্কোর করে। জবাবে শুরু থেকেই কিউয়ি দলের উদ্দেশ্য ভারতকে ক্লীন সুইপ করার দিকে দেখা যায়। নিউজিল্যান্ড মার্টিন গুপ্তিলের ৬৬, হেনরি নিকোলসের ৮০ আর কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের ৫৮ রানের সুবাদে ৪৮তম ওভারের প্রথম বলেই ৫ উইকেট হারিয়ে এই লক্ষ্য হাসিল করে নেয় আর ভারতকে ৫ উইকেটে হারিয়ে দেয়।

৩১ বছর পর ভারত হলো ক্লীন সুইপ

পারফেক্ট থ্রো, মনীষ পাণ্ডের ক্রিজে পৌঁছনোর আগে স্যান্টেনার স্ট্যাম্পে মারলেন বল, এই কারণে অ্যাম্পায়ার দিলেন না আউট 2

ভারতীয় ক্রিকেট দল নিউজিল্যান্ডকে টি-২০ সিরিজে ক্লীন সুইপ করেছিল। অন্যদিকে কিউয়ি দল একদিনের সিরিজে ভারতকে ৩-০ হারিয়ে ক্লীন সুইপ করে দিয়েছে। এমনটা টিম ইন্ডিয়ার সঙ্গে ৩১ বছর পর হলো যখন ভারত কোনো দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ক্লীন সুইপ হলো। এর আগে ১৯৮৯তে দিলীপ বেঙ্গসরকারের অধিনায়কত্বে ভারত ওয়েস্টইন্ডিজের হাতে ক্লীন সুইপ হয়েছিল। আর এখন বিরাটের নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলকে নিউজিল্যান্ড ক্লীন সুইপ করল।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *