আইপিএলের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালু পাঁচশো কোটি ছাড়াল, সেরা টিম হলো কে? 1

কোনও রকম বিতর্ক ছাড়াই স্বচ্ছতার সঙ্গে দশম আইপিএল আয়োজন করায় দর্শক সংখ্য়া বেড়েছে। শুধু তাই নয় ক্লিন ইমেজর কারণে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) পরিচালিত ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ২০১৭ সালের সেরা ক্রিকেট লিগের শিরোপা পেয়েছে সারা বিশ্বে। দর্শক সংখ্য়া বাড়ার জন্য় আইপিএলের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালুও বেড়েছে একলাফে ছাব্বিশ শতাংশ। গত বছর এর পরিমাণ ছিল ৪২০ কোটি মার্কিন ডলার। এবছর তা বেড়ে হয়েছে ৫৩০ কোটি মার্কিন ডলার। ডাফ অ্য়ান্ড ফেল্পসের রিপোর্টে এই খবর জানা গিয়েছে। নিউ ইয়র্কের এই মার্কিনী কর্পোরেট অর্থ উপদেষ্টা ফার্মটি গত ২৩ অগস্ট বুধবার মুম্বইতে এসংক্রান্ত একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে।

আইপিএলের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালু পাঁচশো কোটি ছাড়াল, সেরা টিম হলো কে? 2

আইপিএলের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালু পাঁচশো কোটি ছাড়াল, সেরা টিম হলো কে? 3
মুম্বই ইন্ডিয়ন্স

আইপিএলের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালু পাঁচশো কোটি ছাড়াল, সেরা টিম হলো কে? 4 আইপিএলের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালু পাঁচশো কোটি ছাড়াল, সেরা টিম হলো কে? 5 আইপিএলের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালু পাঁচশো কোটি ছাড়াল, সেরা টিম হলো কে? 6
সংস্থার ম্য়ানেজিং ডিরেক্টর বরুণ গুপ্তা জানান, ”গত মরশুমে আইপিএলের আকর্ষণ বেড়েছে। আর তা ইতিবাচক কারণেই হয়েছে। দর্শকরা বেশি করে দশম আইপিএলকে গ্রহণ করেছেন। দশম আইপিএল’কে কেন্দ্র করে কোনও বিতর্ক হয়নি। তাপরপর সোশ্য়াল মিডিয়াতে এর প্রচারও দারুনভাবে হয়েছিল। মার্কেটিংয়ের দিক থেকে স্ট্র্য়াটেজির চমক সফলভাবে কাজে লেগেছে। আর সবচেয়ে বড় ভূমিকা যাঁদের, সেই ক্রিকেটাররাও দুর্দান্ত অন-ফিল্ড পারফরমেন্স দেখিয়ে দর্শকদের আরও বেশি করে আইপিএল দেখতে উৎসাহিত করেছেন। আর এইসব কারণেই আইপিএল সারা ক্রিকেট বিশ্বের মধ্য়ে সেরা ক্রিকেট লিগ হয়ে উঠে এসেছে এবছর।”
বিপুল মুনাফায় পাঁচ বছরের জন্য় আইপিলের টেলিভিশন সত্ত্ব বিক্রির প্রসঙ্গটিও উল্লেখ করা হয়েছে নিউ ইয়র্কের ওই কর্পোরেট সংস্থার রিপোর্টে। ১৮০ কোটি মার্কিন ডলারের বিনিময়ে এই সত্ত্ব বিক্রি করা হয়। এছাড়া, ২১ কোটি মার্কিন ডলারের বিনিময়ে মোবাইল সত্ত্ব বিক্রি করা হয়েছে। গত ২১ জুলাই আইপিএলের টেলিভিশন ও ডিজিটাল মিডিয়া সত্ত্ব বিক্রি করার জন্য় নতুন করে নিলামের বন্দোবস্ত করেছিল বিসিসিআই। ২০১৮ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত এই সত্ত্ব বিক্রি করা হয়েছে।
প্রকাশিত ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ”গত দশ বছরে আইপিএলে গ্রহণযোগ্য়তা দেখেই বোঝা যাচ্ছে, আগামী পঁচিশ বছরে এই টুর্নামেন্ট কোথায় যেতে পারে। বছরের এপ্রিল-মে মাসে শুধু আইপিএল বিকোবে, অন্য় আর কোনও কিছু না। এমনকী, বলিউড’ও না।”
ভারতের মেট্রো সিটি’র গণ্ডী অতিক্রম করে আইপিএল এখন দেশের গ্রামে-গঞ্জে পৌঁছে গিয়েছে। আর সেই কারণেই ব্য়ান্ড ভ্য়ালু দিনদিন আকাশ-ছোঁয়া হচ্ছে। ভারতের বাজারে আইপিএলের মোট দর্শক সংখ্য়ার পঁয়তাল্লিশ শতাংশ গ্রাম্য় এলাকার।
উল্লেখ্য়, আইপিএলে টিমের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালুর বিচারে এবছর সবাইকে ছাপিয়ে গিয়েছে এবারের আইপিএল চ্য়াম্পিয়ন্স মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। নীতা আম্বানির দলের ব্র্য়ান্ড ভ্য়ালু ১০ কোটি ৬০ লক্ষ মার্কিন ডলার। তারপরেই রয়েছে শাহ রুখ খানের কলকাতা নাইট রাইডার্স (৯ কোটি ৯০ লক্ষ মার্কিন ডলার) এবং তৃতীয় স্থানে দেশ থেকে পলাতক বিজয় মালিয়ার রয়্য়াল চ্য়ালেঞ্জার্স ব্য়াঙ্গালোর (৮ কোটি ৮০ লক্ষ মার্কিন ডলার)। এই তালিকায় পুনে রাইজিং সুপার জায়ান্টস এবং গুজরাট লায়ন্সকে রাখা হয়নি। কারণ, এই দুই টিম আগামী মরশুমে আইপিএলে থাকছে না।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *