MIvsRCB: মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দুর্দান্ত জয়ের পর কায়রন পোলার্ড এই খেলোয়াড়দের দিলেন জয়ের পুরো শ্রেয়

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স আর রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের মধ্যে আইপিএল ২০২০-র ৪৮তম ম্যাচ খেলা হয়েছে। আবুধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলা হওয়া এই ম্যাচে আরসিবির দেওয়া ১৬৫ রানের লক্ষ্যকে মুম্বাই ১৯ ওভারেই হাসিল করে নেয় আর ৫ উইকেটে এক দুর্দান্ত জয় হাসিল করে। এই জয়ের সঙ্গেই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স প্লে অফের জন্য কোয়ালিফাই করে ফেলেছে।

জসপ্রীত বুমরাহের উপর নির্ভর করে থাকতে পারি না

MIvsRCB: মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দুর্দান্ত জয়ের পর কায়রন পোলার্ড এই খেলোয়াড়দের দিলেন জয়ের পুরো শ্রেয় 1

আরসিবির দেওয়া ১৬৫ রানের লক্ষ্যকে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দল ৫ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্য হাসিল করে নেয় আর ৫ উইকেটে এক দুর্দান্ত জয় লাভ করে। এই জয়ের সঙ্গেই মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের ১৬ পয়েন্টস হয়ে গিয়েছে। এই গুরুত্বপূর্ণ জয়ের পর অধিনায়ক কায়রন পোলার্ড পোষ্ট ম্যাচ প্রেজেন্টেশনে বলেন, “আমি বিশ্লেষণ করার চেষ্টা করছি। আমি এবি ডেভিলিয়র্সের উইকেট পেয়েছি। আমরা বুমরাহের উপর নির্ভর করে থাকতে পারি না। বরং আমরা চাই যে বাকি লোকেরাও এগিয়ে এসে দলে জয়ে যোগদান দিক কারণ এটা একটা টিম গেম। আমরা কিছু উইকেট হারিয়েছি কিন্তু সূর্যকুমার আমাদের ম্যাচে বজায় রাখে”।

পোলার্ড করলেন সূর্যকুমারের প্রশংসা

MIvsRCB: মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দুর্দান্ত জয়ের পর কায়রন পোলার্ড এই খেলোয়াড়দের দিলেন জয়ের পুরো শ্রেয় 2

এই ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান সূর্যকুমার যাদব ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেন। তিনি ৪৩ বলে ৭৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন আর দলকে জেতানোর জন্য শেষ পর্যন্ত ক্রিজে টিকে থাকেন। ম্যাচ শেষ হওয়ার পর অধিনায়ক কায়রন পোলার্ড এই ব্যাটসম্যানের জমিয়ে প্রশংসা করেন আর বলেন, “ভাবুন, ওই ব্যাটিং পজিশনে কেউ আসছে আর উইকেট পড়া সত্ত্বেও ওই স্ট্রাইকরেটে ব্যাটিং করছে। আমাদের জন্য যা জরুরী বিষয় তা হলে ও আমাদের জন্য প্রদর্শন বজায় রাখতে পারে। ব্যক্তিগতভাবে যদি আপনি নিয়মিত ভাল করেন তো নিশ্চিতভাবে পুরস্কার পাবেন। আমি সবসময় সেটাই করেছি যা আমাকে দিয়ে দল করাতে চায়। যদি দল ভালো প্রদর্শন করে তো আমি খুশি”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *