ফের ম্যাচ গড়াপেটার অভিযোগে নিষিদ্ধ হলেন দক্ষিণ আফ্রিকার আরও এক ক্রিকেটার! 1

ক’মাস আগেই ম্যাচ গড়াপেটা করার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় প্রোটিয়াস ক্রিকেটার গোলাম বদিকে ২০ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড। ম্যাচ গড়াপেটা করার তালিকায় এবার নাম জুড়ে গেল সে দেশেরই প্রাক্তন জোরে বোলার লনওয়াবো সোতসোবের। ম্যাচ গড়াপেটা করার জন্য এই প্রোটিয়া ক্রিকেটারকে এবার অনির্দিষ্টকালে জন্য নিষিদ্ধ করলো দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ড। এই নিষেধাজ্ঞার ফলে সোতশোবে ভবিষ্যতে ক্রিকেট খেলা থেকে শুরু করে কোচিংয়েও যুক্ত থাকতে পারবেন না। এমনকি আগামীদিনে দেশের ক্রিকেট প্রশাসনেও মাথা গলাতে পারবেন না।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ঠিক আগেই, বিসিসিআই আজীবন নির্বাসনে পাঠাল এই খেলোয়াড়কে!

২০১৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ‘রাম স্ল্যাম টি-২০ চ্যালেঞ্জ সিরিজ’-এ খেলাকালিন ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ ওঠে সোতসোবে সহ সে দেশের একাধিক তারকা ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে। তখন থেকেই এ মামলায় তদন্ত শুরু হয়। আগেই এই মামলায় দোষী সাবস্ত করে নিষিদ্ধ করা হয় গোলাম বদিকে।পাশাপাশি ম্যাচ গড়াপেটা করার অভিযোগে সিএসএ সাময়িক সময়ের জন্য নিষিদ্ধ করে জিন সাইমস, পুমি মাতসি্কওয়ে, এতি মাভালাতি, থামি সোলকেলি এবং অ্যালভিরো পিটারসনকেও। দীর্ঘ তদন্ত চালিয়ে এতদিন পর সিএসএ’র দূর্নীতি দমনশাখা প্রাথমিক পর্যায়ে সোতসোবের বিরুদ্ধে ফিক্সিংয়ের প্রমাণ পেয়েছে।

সেখানকার আধিকারিকরা জানতে পেরেছেন, ৩৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারটি রাম স্ল্যাম টি-২০ চ্যালেঞ্জ সিরিজে ম্যাচ ফিক্সিং করেছেন। পাশাপাশি সোতশোবের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও মোবাইল ফোনের রেকর্ড যাচাই করে তারা নাকি জেনেছেন, ওই প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন ম্যাচের ফলাফল প্রভাবিত করার ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন তিনি। এমনকি ম্যাচ গড়াপেটা করার জন্য পরবর্তী সময়ে তিনি নানান সন্দেহভাজন ব্যাক্তিদের কাছ থেকে টাকা সহ দামী উপহার গ্রহণ করেছেন বলে জানতে পেরেছেন তদন্তকারি অফিসাররা।উল্লেখ্য, এর আগে ম্যাচ ফিক্সিংয়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অন্যতম সফল অধিনায়ক হ্যান্সি ক্রোনিয়ে। নিষিদ্ধ হওয়ার অল্পদিন পরই তিনি এক বিমান দুর্ঘটনায় মারা যান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *