পুরুষদের মত এবার মহিলা ক্রিকেটেও আয়োজিত হবে আইপিএল! বিসিসিআই করল এই বড় পরিকল্পনা 1

বিসিসিআই অতীতে দুটি দলের নিলাম থেকে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা পেয়েছে। আইপিএল ২০২২ থেকে ৮টির পরিবর্তে ১০ টি দল মাঠে নামবে। এখন বোর্ড শীঘ্রই মহিলা আইপিএল শুরু করার কথা ভাবছে। এতে ৪ থেকে ৫টি দল সুযোগ পেতে পারে। প্রতিটি দলের নিলাম থেকে বোর্ড প্রায় ১০০০ কোটি টাকা পেতে পারে। অর্থাৎ মোট ৫ হাজার কোটি টাকা। টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক হরমনপ্রীত কৌর সহ অনেক খেলোয়াড় মহিলা আইপিএলের দাবি জানিয়েছেন। বর্তমানে ৩টি দলের মধ্যে ৪ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জের আয়োজন করা হচ্ছে। গত মরসুমে করোনার কারণে আয়োজন করা হয়নি।

The women's IPL exhibition match was a success but just a baby step towards  a potential league

ওপেন ম্যাগাজিনের মতে, বিসিসিআই মহিলা আইপিএলের জন্য একটি পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে। এতে ৪ থেকে ৫টি দলকে সুযোগ দেওয়া যেতে পারে। ২০১৮ সালে বোর্ড কর্তৃক মহিলাদের টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জ শুরু হয়েছিল। প্রথম আসরে মাত্র একটি ম্যাচ ছিল। ২০১৯ এবং ২০২০ সালে ৩টি দলের মধ্যে ৪টি ম্যাচ হয়েছিল। ২০২০ সালে, ভারত ছাড়াও, ৭টি দেশের মহিলা খেলোয়াড়রা এতে অংশ নিয়েছিল। এতে ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও থাইল্যান্ডের খেলোয়াড়রা নেমেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ায় দীর্ঘ দিন ধরে আট দলের নারী বিগ ব্যাশের আয়োজন করা হচ্ছে।

Women's IPL imperative for growth of cricket: SRH fielding coach - The  Statesman

আন্তর্জাতিক স্তরে ভারতীয় মহিলা দলের পারফরম্যান্স ভাল হয়েছে। দলটি ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল। কিন্তু তারা পরাজিত হন। একই সময়ে, ২০১৭ ওডিআই বিশ্বকাপেও, ভারতীয় মহিলা দল ফাইনালে প্রবেশ করেছিল এবং রানার্স আপ হয়েছিল। হরমনপ্রীত কৌর অতীতে বলেছিলেন যে, “আন্তর্জাতিক স্তরে খেলার আগে আমরা যদি আইপিএলের মতো ঘরোয়া টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ পাই, তবে আমরা অবশ্যই এর সুবিধা পাব। আন্তর্জাতিক ম্যাচের আগে নারী বিগ ব্যাশে অনেক বড় ম্যাচ খেলেছেন অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়রা।”

Leave a comment

Your email address will not be published.