আইপিএল কোনও জরুরি পরিষেবা নয়! ১ হাজার কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে বোর্ডের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের 1

 

দেশে করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। আর এরই মধ্যে চলছিল আইপিএল এর আসর। তবে আজ আইপিএল ২০২১ সালের মরসুম অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় সংক্রামিত হওয়ার পরে বিসিসিআই এই পদক্ষেপ নিয়েছে। একদিন আগে কলকাতা নাইট রাইডার্সের দুজন খেলোয়াড় বরুণ চক্রবর্তী এবং সন্দীপ ওয়ারিয়র করোনা সংক্রামিত হয়েছেন। সিএসকে বোলিং কোচ বালাজি সহ তিন জন সদস্য সংক্রামিত হয়েছিলেন। এবার আইপিএল চালু রাখার জন্য বিসিসিআইয়ের কাছে ক্ষতিপূরণ চেয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের আদালতে।

আইপিএল কোনও জরুরি পরিষেবা নয়! ১ হাজার কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে বোর্ডের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের 2

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ক্রিকেট বোর্ডের কাছে ১ হাজার কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে বম্বে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করলেন বন্দনা শাহ নামের এক আইনজীবী। ক্ষতিপূরণের টাকা দেশের করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য সরকারি হাসপাতালগুলিতে দান করার দাবি তুলেছেন তিনি। ওই মামলায় বলা হয়েছে, আইপিএল কোনও জরুরি পরিষেবা নয়, তাহলে কেন করোনা সংক্রমণের মধ্যেও করা হল টুর্নামেন্ট। বলা বাহুল্য, বায়ো বাবলের মধ্যে হলেও অনেক খেলোয়াড় সংক্রামিত হয়েছেন। সেই কারণে আইপিএল স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সব খেলোয়াড়ের নিরাপত্তা এবং দেশের ক্রমবর্ধমান করোনা মামলার পরিস্থিতির কথা ভেবে।

আইপিএল কোনও জরুরি পরিষেবা নয়! ১ হাজার কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে বোর্ডের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের 3

আইপিএলের কবে শুরু হবে সে সম্পর্কে বিসিসিআই এখনও কোনও তথ্য দেয়নি। এখন সমস্ত খেলোয়াড় তাদের বাড়িতে যাবেন। এমন পরিস্থিতিতে আইপিএল খুব শীঘ্রই শুরু হওয়ার সম্ভাবনা নেই। পরের মাসে ইংল্যান্ডের মাটিতে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলতে হবে টিম ইন্ডিয়াকে। ভারতে করোনা পরিস্থিতি ঠিক হলে, তবে টি- ২০ বিশ্বকাপের আগে বাকি আইপিএল এর ৩১ টি ম্যাচ করা যেতে পারে। এটির সাথে সমস্ত খেলোয়াড়ও প্রস্তুত হওয়ার সুযোগ পাবে। বাকি ম্যাচগুলি ১০ থেকে ১২ দিনের মধ্যে করা যেতে পারে। বিশ্বকাপ যদি ভারতের পরিবর্তে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে অনুষ্ঠিত হয়, তবে বাকি ম্যাচগুলি আগের মরসুমের মতো সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে অনুষ্ঠিত হতে পারে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *