এই বলিউড অভিনেত্রীকে  নির্জন দ্বীপে নিয়ে যাওয়ার অভীপ্সা কুলদীপের 1

কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে বিশ্বচ্য়াম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে হ্য়াটট্রিক করার পর ভারতের চায়নাম্য়ান স্পিনার এখন প্রচারের আলোয়। তরুণ বাঁ-হাতি রিস্ট স্পিনার কুলদীপ যাদব কি খেতে ভালোবাসেন, কি করতে ভালোবাসেন বা মনের গোপন ইচ্ছেটা কি, এখন সবাই তা জানতে চাইছেন। ক্রীড়া অনুরাগীরা এখন কুলদীপে মেতেছেন। আর হবেনই বা কেন? বিশ্ব চ্য়াম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া টিমের বিরুদ্ধে হ্য়াটট্রিক, তাও এতো কম বয়সে।
গত সতেরো সেপ্টেম্বর থেকে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্য়ে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সিরিজ শুরু হয়েছে। চেন্নাইতে প্রথম ম্য়াচে জয়ের পর কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সেও ভারত জিতেছে দ্বিতীয় ম্য়াচে। পাঁচ ম্য়াচের সিরিজে এখন ভারত ২-০ ফলে এগিয়ে গিয়েছে। আরও একটি ম্য়াচ জিতলে ভারত সিরিজ দখল করে নেবে দু’ম্য়াচ বাকি থাকতেই।
চেন্নাইতে প্রথম ম্য়াচেও বল হাতে উজ্জ্বল ভূমিকা নিয়েছিলেন বিরাট কোহলির এই মিস্ট্রি স্পিনার। এর আগে প্রথম চার সাক্ষাতে অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে ছিলেন কুলদীপ। ইডেন ম্য়াচের আগে হুঙ্কারও দিয়ে রেখেছিলেন যে ওয়ার্নার তাঁকে ভয় পান। যাইহোক, ওয়ার্নারকে পঞ্চমবার কুলদীপের শিকার হতে দেখা এখনও অধরা থাকলেও, সেই আক্ষেপ কিন্তু গত বৃহস্পতিবার ‘হ্য়াটট্রিক’ ভুলিয়ে দিয়েছে ইডেনের দর্শকদের। অজি ওপেনার ম্য়াথু ওয়েডের উইকেটে ভাগ্য়বশত পেয়ে গেলেও, পরের দু’টি ডেলিভারি কিন্তু অন্য়বদ্য় ছিল কুলদীপের। অ্য়াস্টন আগার ও প্য়াট কামিন্সকে কোনও সুযোগই দেননি ভারতের এই তরুণ রিস্ট স্পিনার। পরপর দু’ম্য়াচে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওরকম চমকপ্রদ পারফরম্য়ান্সের পর অনেকেই বলছেন, আইসিসি ব়্য়াঙ্কিংয়ে দু’নম্বরে থাকা বোলার রবীন্দ্র জাদেজার দলে ঢোকার দরজা সম্ভবত বন্ধ করে দিলেন কুলদীপ। যদিও লোয়ার মিডল অর্ডার ব্য়াটসম্য়ানদের বিরুদ্ধে কুলদীপের এই সাফল্য় এসেছে। আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টিকে থাকতে গেলে ফ্রন্টলাইন ব্য়াটসম্য়ানদের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক সাফল্য় পাওয়া জরুরি।
এতো অল্প বয়সে খবরের শিরেনামে জায়গা করার মতো পারফরম্য়ান্সের সব কৃতিত্বই আইপিএল ফ্র্য়াঞ্চাইজি কলকাতা নাইট রাইডার্সকে দিয়েছেন কুলদীপ। ২০১৫ সাল চ্য়াম্পিয়ন্স লিগে ভালো পারফর্ম করার পর গত দু’মরশুম কেকেআর’কে সার্ভিস দিয়ে আসছেন তিনি। এপ্রিল-মে মাসে আইপিএল খেলা থাকলেও বলিউডের বাদশাহ শাহরুখ খান ব্র্য়ান্ডিংটা অন্য়দের তুলনায় বেশি ভালো বোঝেন। আর তাই সারা বছর দলকে সাধারণ মানুষের আলোচনার মধ্য়ে রাখতে কিছু না কিছু প্রোগ্রাম করে যায় কেকেআর ফ্য়াঞ্চাইজি। সেই রকম ‘নো ইয়োর নাইট’ শীর্ষক একটি টক শো-এর আয়োজন করা হয়েছিল কুলদীপকে নিয়ে। সেখানে খোলামেলা আলোচনার মধ্য় দিয়ে নিজের ব্য়ক্তিগত অনেক কথাই জানাচ্ছিলেন এই মিস্ট্রি স্পিনার। হঠাই করেই নিজের মনের অভীপ্সা জানিয়ে ফেলেন। তাঁর মনের ইচ্ছে, বলিউড অভিনেত্রী জ্য়াকলিন ফার্নান্ডেজকে নিয়ে একটি নির্জন দ্বীপে একান্ত সময় কাটানোর।
কুলদীপ আরও জানিয়েছেন যে তিনি এফসি বার্সেলোনার খুব বড় ভক্ত। ফুটবল ও ক্রিকেট ছাড়া টেবল টেনিস খেলতে ও সিনেমা দেখতে ভালোবাসেন তিনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *