বিরল রেকর্ডের অধিকারী হলেন এই ভারতীয় ক্রিকেটার, আজ পর্যন্ত করতে পারেননি রোহিত-বিরাটও 1

যারা আইপিএলে দেখেছেন তারা অনেকেই চিনতে পারেন কে গৌতম বা কৃষ্ণাপ্পা গৌতমের নামটি। গত মরশুমে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে খেলে নিজেকে চিনিয়েছিলেন এই ডানহাতি অফস্পিনিং অলরাউন্ডার। এবার তিনি বিরল এক রেকর্ডের মালিক হলেন। ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেট টুর্নামেন্ট কর্নাটক প্রিমিয়ার লিগের এক ম্যাচে দলের হয়ে একাই ৮ উইকেট নেয়ার পাশাপাশি ১৩৪ রান করে অসাধারণ কীর্তি গড়েছেন। যা ক্রিকেটবিশ্বে বিরল।

গড়লেন বিরল রেকর্ড

বিরল রেকর্ডের অধিকারী হলেন এই ভারতীয় ক্রিকেটার, আজ পর্যন্ত করতে পারেননি রোহিত-বিরাটও 2

গত ২৩ আগস্ট বেঙ্গালুরুতে কর্ণাটক প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে শুক্রবার মুখোমুখি হয়েছিল বেল্লারি টাস্কার্স ও নাম্মা শিভামজ্ঞা দল দুটি। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে কৃষ্ণাপ্পার দল বেল্লারি টাস্কার্স নির্ধারিত ১৭ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ২০৩ রান করে। বৃষ্টি বাধা দেওয়ার কারণে এই ম্যাচ ১৭ ওভারের খেলা হয়। এই ম্যাচে ব্যাট হাতে কৃষ্ণাপ্পা একাই করেন ১৩৪ রান। মাত্র ৫৬ বলে ৭টি চার ও ১৩টি ছক্কা হাঁকিয়ে ১৩৪ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

বল হাতেও ছিলেন বিধ্বংসী

বিরল রেকর্ডের অধিকারী হলেন এই ভারতীয় ক্রিকেটার, আজ পর্যন্ত করতে পারেননি রোহিত-বিরাটও 3

তার এই ইনিংসের ফলে জয় তুলে বেল্লারি টাস্কার্সের জয় ছিল শুধু সময়ের অপেক্ষা। আর সেই কাজটিই আরো সহজ করে দেন স্বয়ং কৃষ্ণাপ্পা। বল হাতে বিধ্বংসী বোলিং করে এই স্পিনিং অলরাউন্ডার দলকে এনে দেন ৭০ রানের জয়। অক্ষয় বাল্লাল ও পবন দেশপাণ্ডে প্রতিরোধ গড়ে তুললেও কৃষ্ণাপ্পার ৮ উইকেট শিকারের ইনিংসে নাম্মা শিভামজ্ঞার ইনিংস তাসের ঘরের মতো গুড়িয়ে যায়। ২ উইকেটে ১০২ রান তোলা দলটি ১৩৩ রান তুলতেই গুটিয়ে যায়। ৪ ওভার বল করে ১৫ রান দিয়ে ৮ উইকেট শিকার করেন কৃষ্ণাপ্পা। এর আগে আর কোনো অলরাউন্ডার ব্যাট হাতে সেঞ্চুরির পাশাপাশি ৮ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব দেখাতে পারেননি। সেই বিরল কৃতিত্ব দেখালেন আইপিএলের এই উদীয়মান তারকা। ইতিপূর্বে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ও রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে খেলা এই ক্রিকেটারের এমন কীর্তি স্বভাবতই তাকে ভারতীয় নির্বাচকদের নজরে এনে ফেলেছে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *