সূর্যকুমার যাদব এই মরশুমে হতেন কেকেআরের অধিনায়ক, শাহরুখ খানের দল করেছে এই বড় ভুল 1

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের ত্রয়োদশ মরশুম মঙ্গলবার শেষ হয়ে গিয়েছে। এই মরশুম শেষ হয়ে যাওয়ার পরও একজন খেলোয়াড় ভীষণই আলোচনার কেন্দ্র হয়ে উঠেছেন। ফাইনাল ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে পৌঁছতে বড় যোগদান দেওয়া খেলোয়াড় সূর্যকুমার যাদব শিরোনামে উঠে এসেছেন, যার উচ্চতা এউ মরশুমে তো আরও বেড়ে গিয়েছে।

সূর্যকুমার মুম্বাইয়ের আগে ছিলেন কেকেআরে

সূর্যকুমার যাদব এই মরশুমে হতেন কেকেআরের অধিনায়ক, শাহরুখ খানের দল করেছে এই বড় ভুল 2

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দলের হয়ে সূর্যকুমার গত তিন মরশুম ধরে খেলছেন। এই দলের হয়ে সূর্যকুমারের ব্যাট দারুণ চলছে। আর তিনি পরপর তিনটি মরশুম ধরে ৪০০-র বেশি রান করতে সফল হয়েছেন। সূর্যকুমার যাদব যেভাবে বছরের পর বছর প্রদর্শন করে চলেছেম তাতে তো তাকে এখন যথেষ্ট পরিপক্ক খেলোয়াড় দেখাচ্ছে। সূর্যকুমার এই দলের আগে চার বছর পর্যন্ত কেকেআর দলের হয়ে খেলেছেন যেখানে তিনি ধীরে ধীরে উপরে উঠে আসছিলেন, কিন্তু তাকে ফ্রেঞ্চাইজি রিলিজ করে দেয়। কেকেআর থেকে বাদ পড়ার পর সূর্যকুমার অসাধারণ প্রদর্শন করছেন। এর মধ্যে কেকেআরের প্রাক্তন অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর বলেছেন যে কেকেআরের দ্বারা সূর্যকুমারকে ছেড়ে দেওয়া সবচেয়ে বড় ভুল হয়েছে।

সূর্যকুমার যাদব কেকেআরে ছিলেন সহঅধিনায়ক

সূর্যকুমার যাদব এই মরশুমে হতেন কেকেআরের অধিনায়ক, শাহরুখ খানের দল করেছে এই বড় ভুল 3

গৌতম গম্ভীর ইএসপিএন ক্রিক ইনফোর সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বলেছেন যে, “মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স সূর্যকুমারকে সহজে হাসিল করেনি। এটা ১৩ বছরে হওয়া কেকেআরের সবচেয়ে বড় লোকসান। কেউ এমন যে তরুণ ছিল, কেকেআরে এসেছিল, চার বছর খেলেছিল, স্বভাবতই সেই সময় আমাদের কাছে যে ব্যাটিং ক্রম ছিল তাতে ও যেখানে খেলত, ও সেখানে রান করতে পারেনি। মনীষ পান্ডে তিন নম্বরে খেলছিল, কিন্তু ও ৬ বা ৭ নম্বরে খেলছিল বা তা নাহলে কেকেআর সূর্যকুমারের হিসেবে ব্যাটিং ক্রম প্রস্তুত করতে পারত। সেই সময় ও সহঅধিনায়ক ছিল, যখন আমি অধিনায়ক ছিলাম। আমি ওকে সহঅধিনায়ক করেছিলাম যাতে পরিবর্তন করতে সুবিধা হয়”।

সূর্যকুমারকে ছাড়া কেকেআরের সবচেয়ে বড় লোকসান

সূর্যকুমার যাদব এই মরশুমে হতেন কেকেআরের অধিনায়ক, শাহরুখ খানের দল করেছে এই বড় ভুল 4

এরপর গম্ভীর আগে বলেন যে, “আমি সূর্যর মধ্যে লীডারশিপ কোয়ালিটি দেখতে পেতাম। ভীষণই নিঃস্বার্থ মানুষ। আপনি ওকে ৬ বা ৮ নম্বরে খেলাম ও যে কোন নম্বরে খেলতে পারত। এমন কোনো চরণ কখনও হবে না যখন ও তিন নম্বরে ব্যাটিং করার জন্য বলবে। আর আপনি এই ধরণের খেলোয়াড় চান। এটা সম্ভবত এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বড় লোকসান। হ্যাঁ খেলোয়াড়রা এক দল থেকে অন্য দলে গিয়েছে। ক্রিস গেল অন্য কোনো দলে গিয়েছে, আরও অনেক খেলোয়াড়ও গিয়েছে। কিন্তু কেকেআরের জন্য এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বড় লোকসা হল সূর্যকুমারকে যেতে দেওয়া, কারণ আপনি এই ধরণের প্রতিভাবান ভারতীয় খেলোয়াড় সহজে পান না”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *