জীবনের লড়াইয়ে হার মেনে জুনিয়র ডেল স্টেইন করলেন আত্মহত্যা, কারণ আইপিএল 1

করোনা কালের মধ্যে আরও একটি খারাপ খবর শুনতে পাওয়া যাচ্ছে। সোমবার মুম্বাইয়ের জোরে বোলার করণ তেওয়ারি জীবনের লড়াইতে হেরে সুইসাইড করেছেন। এই সুইসাইড করার বড়ো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে তিনি নিজের বন্ধুকে ফোন করে এই বিষয়ে জানিয়েওছিলেন, কিন্তু যতক্ষণে সেই বন্ধু তাঁর কাছে পৌঁছে তাকে বাঁচাতেন তার আগেই করণ সুইসাইড করে ফেলেছেন। করণ আইপিএলে কন্ট্র্যাক্ট না পাওয়ায় ভীষণই নিরাশ ছিলেন, যারপরই তিনি এই পদক্ষেপ নেন।

করণ তেওয়ারি করলেন সুইসাইড

জীবনের লড়াইয়ে হার মেনে জুনিয়র ডেল স্টেইন করলেন আত্মহত্যা, কারণ আইপিএল 2

মুম্বাই ক্রিকেট ক্লাবের ক্রিকেটার করণ তেওয়ারি সোমবার রাতে নিজের বেডরুমে পাখার সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন। খবরের কথা মানা হলে, সুইসাইডের কারণ ছিল আইপিএল চুক্তি না পাওয়া। মুম্বাইয়ের এই ক্রিকেটারকে স্থানীয় স্তরে জুনিয়র ডেল স্টেইন নামে ডাকা হত। এর কারণ তার অ্যাকশন আর উচ্চতা। পুলিশের মোতাবেক রাত সাড়ে দশটায় গোকুলধাম কোনু কম্পাউন্ডে করণ তেওয়ারি সুইসাইড করেছেন। পুলিশ অ্যাক্সিডেন্টাল ডেথ রিপোর্ট নথিবদ্ধ করেছে। কুরার পুলিশ স্টেশনের সিনিয়র পুলিশ ইনস্পেক্টর বলেছেন,

“আমরা এডিআর নথিভূক্ত করেছি আর ঘটনার তদন্ত চলছে”।

বন্ধুকে জানিয়েছিলেন সুইসাইডের কথা

জীবনের লড়াইয়ে হার মেনে জুনিয়র ডেল স্টেইন করলেন আত্মহত্যা, কারণ আইপিএল 3

বিশ্বের সিনিয়র খেলোয়াড়দের পাশাপাশি তরুণ খেলোয়াড়দের জন্যও আইপিএল আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। প্রত্যেক খেলোয়াড়ই কোনো না কোনো ফ্রেঞ্চাইজির অংশ হয়ে আইপিএল কন্ট্রাক্ট হাসিল করতে চান। এখন কুরার পুলিশ স্টেশনের সূত্রের কথা মানা হলে,

“করণ উদয়পুরে নিজের বেস্ট ফ্রেণ্ডকে ফোন করে জানিয়েছিলেন যে তিনি আত্মহত্যা করতে যাচ্ছেন। আইপিএলে খেলার সুযোগ না পাওয়ার পর তিনি হতাশ ছিলেন। তার বন্ধু করণের বোনকে সূচনা দেন যিনি ওই শহরেই থাকেন। তাঁর বোন তাঁর মাকে জানান, কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরী হয়ে গিয়েছিল। করণকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার আগেই মৃত ঘোষণা করা হয়”।

নিয়মের অনুযায়ী আইপিএলে নাম দিতে পারেননি করণ

জীবনের লড়াইয়ে হার মেনে জুনিয়র ডেল স্টেইন করলেন আত্মহত্যা, কারণ আইপিএল 4

বিসিসিআইয়ের নিয়মের মোতাবেক সেই খেলোয়াড়রাই আইপিএলে নিজের নাম ড্রাফট করতে পারেন যারা যে কোনো এজ গ্রুপে নিজের রাজ্য দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। কিন্তু করণ তেওয়ারি কখনওই রাজ্য স্তরে দলের প্রতিনিধিত্ব করেননি আর এই কারণে তিনি আইপিএলে নিজের নাম ড্রাফট করতে পারেননি। করণের এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু জানিয়েছেন,

“ও একটি রাজ্য দলের হয়ে নির্বাচিত হওয়ার আশা করছিল। ও ওই রাজ্য দলগুলির মধ্যে কয়েকটির সঙ্গে কথাবার্তা বলছিল। ও একজন ভীষণই ভালো ক্রিকেটার ছিল আর ও নিজের শেষ হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাসে নিজের বোলিং আর ব্যাটিংয়ের ভিডিয়ো আপলোড করেছিল। চমকে দেওয়ার মতো বিষয় হলো ও এমন কঠোর পদক্ষেপ নেওয়াকেই বেছে নিল”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *