নিলামের আগে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলির নজর সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে, এই খেলোয়াড়রা রয়েছেন টার্গেটে 1

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৪ তম মরশুমের জন্য খেলোয়াড়দের মিনি নিলাম আগামী ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হতে হচ্ছে। আর এর জেরে ঘরোয়া ক্রিকেটারদের নিজেদের প্রমাণ করার শেষ সুযোগ হিসেবে রয়েছে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফি টি টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের নক আউট ম্যাচে। নকআউট ম্যাচের পারফরম্যান্সের উপর নির্ভর করে কিছু ঘরোয়া ক্রিকেটারের ভাগ্য পরিবর্তন হতে পারে এবং আইপিএলে কোনও ফ্র্যাঞ্চাইজি দল থেকে বড় চুক্তি পেতে পারে।

নিলামের আগে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলির নজর সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে, এই খেলোয়াড়রা রয়েছেন টার্গেটে 2

একদিকে কর্ণাটক যেমন নিজেদের শিরোপা ধরে রাখতে চাইবে, অন্য সাতটি দল যারা কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে তারাও কোনও অংশ ছাড়তে চাইবে না। টুর্নামেন্টটি ভারতের ২০২০-২১ ঘরোয়া মরশুমের শুরুও চিহ্নিত করেছিল। কর্ণাটকের পথে পাঞ্জাবের শক্তিশালী দলটি অত্যন্ত বড় বাধা। এই দুটি দলই প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে একে অপরের মুখোমুখি হবে, এটি সম্ভবত একটি বড় ম্যাচ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পাঞ্জাব এলিট গ্রুপ এ থেকে ​​পাঁচটি ম্যাচ জিতে নকআউটে জায়গা করে নিয়েছিল, এদিকে কর্ণাটক এই গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে শেষ আটে জায়গা করে নিয়েছে।

Syed Mushtaq Ali Trophy 2019-20: Best XI of the tournament

এই ম্যাচে উভয় দলের ওপেনারদের উপর নজর থাকবে সকলে। পাঞ্জাবের তরুণ ওপেনার প্রভসিমরন সিং দারুণ ফর্মে রয়েছেন এবং এ পর্যন্ত ২৭৭ রান করেছেন। এদিকে কর্ণাটকের দেবদত্ত পাদিক্কাল পাঁচ ম্যাচে ২০৭ রান করেছেন। এছাড়াও উভয় দলের মিডল অর্ডারও শক্তিশালী। যদিও পাঞ্জাবের সিদ্ধার্থ কৌল এবং সন্দীপ শর্মার মতো অভিজ্ঞ বোলার রয়েছে, ফলে তাদের দলকে আরও খানিকটা ভাল দেখাচ্ছে। এদিকে কর্ণাটক অভিমন্যু মিঠুন এবং প্রসিদ্ধ কৃষ্ণার মাধ্যমে চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করবেন।

Punjab Syed Mushtaq Ali Trophy - CricTracker

দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালটি হবে গত মরসুমের রানার্স আপ তামিলনাড়ু এবং হিমাচল প্রদেশের মধ্যে। তামিলনাড়ুর ওপেনার নারায়ণ জগদীশন এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ ৩১৫ রান করেছেন। অধিনায়ক দীনেশ কার্তিকও বেশ ভালো ফর্মে রয়েছেন। তারকা স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ইয়র্কার বিশেষজ্ঞ টি নটরাজন এবং অলরাউন্ডার ওয়াশিংটন সুন্দরের অনুপস্থিতিতে তামিলনাড়ুর বোলাররাও দুর্দান্ত পারফর্ম করেছিলেন। লেগ স্পিনার মুরুগান অশ্বিন এবং বাঁহাতি স্পিনার আর সাই কিশোর তাদের ভূমিকা ভাল পালন করেছিলেন, তবে বাবা অপরাজিত নতুন বল নিয়ে যথেষ্ট সাফল্য অর্জন করেছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *