IPL 2022

চলতি আইপিএলের (IPL 2022) ৬১ নম্বর ম্যাচে শুক্রবার কলকাতা নাইট রাইডার্সের মুখোমুখি হয় সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। আর এ দিনের এই লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত হায়দ্রাবাদকে ৫৪ রানে হারিয়ে দিল কলকাতা। এ দিন কলকাতা প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রান করে। দলের এই স্কোর পৌঁছানোর পেছনে সবচেয়ে বড় হাত ছিল বিলিংস ও রাসেলের। দুজনেই ৬৩ রানের গুরুত্বপূর্ণ জুটি গড়েন। এই ম্যাচে ২৯ বলে ৩৪ রান করেন বিলিংস। একইসঙ্গে ২৮ বলে অপরাজিত ৪৯ রান করেন রাসেল। হায়দরাবাদের হয়ে ওমরান মালিক ৩৩ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট। এই ম্যাচে জিততে হায়দরাবাদকে এখন ১৭৮ রান করতে হতো। তবে ১২৩ রানেই শেষ হয়ে যায় তাদের ইনিংস।

ম্যাচ জিতে কী বললেন কলকাতা অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার?

IPL 2022: ম্যাচ জিতে উঠে কাকে সিংহভাগ কৃতিত্ব দিলেন শ্রেয়াস !! নামটা দেখলে অবশ্যই চমকে যাবেন 1

এ দিন হায়দ্রাবাদকে হারিয়ে উঠে শ্রেয়াস আইয়ার বলেন, “আমরা যেভাবে ম্যাচটা জিতেছি সেটা সত্যিই অসাধারণ। দলের প্রতিটা ক্রিকেটার নিজের সেরাটা দিয়েছে। আমরা এই ম্যাচে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলেছি। আজ টস জেতাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কারণ, বেশিরভাগ দলই টস জেতার সঙ্গে ম্যাচও জিতেছে। আমরা যা যা প্ল্যান করে মাঠে নেমেছিলাম, শেষ অবধি ঠিক সেটাই করে দেখিয়েছি। তবে সব কিছুর মধ্যে রাসেলের প্রশংসা করতেই হবে। ও যেভাবে ব্যাট ও বল হাতে পারফর্ম করেছে তা সত্যিই অসাধারণ।”

শনিবার, ব্যাট হাতে ফের ফ্লপ হন হায়দ্রাবাদ অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ৯ রান করে আউট হন তিনি। অন্য ওপেনার অভিষেক শর্মা ৪৩ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। তিনিই এ দিন হায়দ্রাবাদের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেন। রাহুল ত্রিপাঠি ৯ রান করে আউট হয়ে যান। কিছুটা লড়াই চালান এইডেন মার্করাম। তিনি করেন ৩২ রান। তিনি আউট হতেই হায়দ্রাবাদের সব আশা শেষ হয়ে যায়। বিষ্ফোরক ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরান এ দিন রান পাননি। মাত্র ২ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান তিনি। কলকাতার হয়ে তিনটি উইকেট তুলে নেন আন্দ্রে রাসেল। ২টি উইকেট পান টিম সাউদি। সব মিলিয়ে শেষ পর্যন্ত ১২৩ রানেই শেষ হয়ে যায় কেন উইলিয়ামসনদের লড়াই।

IPL 2022: ম্যাচ জিতে উঠে কাকে সিংহভাগ কৃতিত্ব দিলেন শ্রেয়াস !! নামটা দেখলে অবশ্যই চমকে যাবেন 2

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করা নাইটদের শুরুটাও অবশ্য খুব একটা ভালো হয়নি। মাত্র ৭ রান করে জ্যানসেনের শিকার হন ওপেনার ভেঙ্কটেশ আইয়ার। তার আউটের পর দলের হাল ধরেন নীতীশ রানা ও রাহানে। একসাথে তারা ৪৭ রানের পার্টনারশিপ ভাগ করে নেয়, যদিও রাহানে আবার ২৪ বলে ২৮ রান করেন এবং উমরান মালিকের বলে আউট হন। পাঁচ উইকেটের পড়ে যাওয়ার পর দলের স্কোর এগিয়ে নেন বিলিংস ও রাসেল দুজনে মিলে গড়েন হাফ সেঞ্চুরির জুটি। এই ম্যাচে ২৯ বলে ৩৪ রান করেন বিলিংস। একইসঙ্গে ২৮ বলে অপরাজিত ৪৯ রান করেন রাসেল। তার ইনিংসের ওপর ভর করেই কেকেআর ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রান করে।

Leave a comment

Your email address will not be published.