IPL 2022

IPL 2022-এর ৪৭ তম ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্স ও রাজস্থান রয়্যালস একে অপরের মুখোমুখি হয়। সেই লড়াইয়ে ৭ উইকেটে জিতেছে কলকাতা। নীতীশ রানা এবং রিংকু সিং কলকাতার হয়ে এই ম্যাচে ত্রাতার ভূমিকা পালন করেন। প্রথমে ব্যাট করে ১৫৩ রানের টার্গেট দেয় রাজস্থান। জবাবে কলকাতা ১৯.১ ওভারে ম্যাচ জিতে নেয়। এই সময়ে নীতীশ অপরাজিত ৪৮ রান করেন। রিংকু সিং করেন ৪২ রান।

রাজস্থানের দেওয়া লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে কলকাতার হয়ে ওপেন করতে আসেন বাবা ইন্দ্রজিৎ ও অ্যারন ফিঞ্চ। ১৬ বলে ১৫ রান করে আউট হন ইন্দ্রজিৎ। ব্যক্তিগত স্কোরে মাত্র ৪ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ফিঞ্চ। ৩৪ রানের ইনিংস খেলেন অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার। তিনি ৩২ বল মোকাবেলা করে ৩টি চার ও একটি ছক্কা মেরেছেন। শেষ পর্যন্ত ৩৭ বলে অপরাজিত ৪৮ রান করেন নীতীশ। তার ইনিংসে ছিল ৩টি চার ও ২টি ছক্কা। যেখানে রিংকু সিং ২৩ বলে অপরাজিত ৪২ রান করেন। তার ইনিংসে ছিল ৬টি চার ও একটি ছক্কা।

ম্যাচের রাশ ছিল কলকাতার হাতেই

IPL 2022: রাজস্থানকে নাস্তানাবুদ করলো KKR, মাচের পর গোপন তথ্য ফাঁস শ্রেয়াস আইয়ারের !! 1

রাজস্থানের হয়ে দারুণ বোলিং করেছেন ফাস্ট বোলার ট্রেন্ট বোল্ট। ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে এক উইকেট নেন তিনি। রবিচন্দ্রন অশ্বিন ৪ ওভারে ৩৩ রান দেন। তবে একটি উইকেটও পাননি তিনি। প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা ৪ ওভারে ৩৭ রান দিয়ে এক উইকেট নেন। ৪ ওভারে ৩১ রান দেন যুজবেন্দ্র চাহাল। তবে একটি উইকেটও পাননি তিনি।

প্রথমে ব্যাট করে রাজস্থান রয়্যালস ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান করে। এই সময় হাফ সেঞ্চুরি করেন সঞ্জু স্যামসন। ৪৯ বলে ৭ চার ও একটি ছক্কায় ৫৪ রান করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন শিমরন হেটমায়ার। ১৩ বলে অপরাজিত ২৭ রান করেন তিনি। হেটমায়ার মারেন ২টি ছক্কা ও একটি চার। রিয়ান পরাগ ১৯ রান এবং জস বাটলার ২২ রানের অবদান রাখেন।

কী বললেন শ্রেয়াস আইয়ার?

IPL 2022: রাজস্থানকে নাস্তানাবুদ করলো KKR, মাচের পর গোপন তথ্য ফাঁস শ্রেয়াস আইয়ারের !! 2

খেলা শেষ ম্যাচের জয়ী অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার বলেন, “এইরকম শুরু আমাদের প্রয়োজন ছিল. পাওয়ারপ্লেতে আমাদের বোলাররা মাত্র ৩৬ রান দেয় এবং একটি উইকেট তুকে নেয়। উমেশ তার গতি বাড়িয়েছে। সেই হার্ড লেন্থে বোলিং করেছে এবং একজন অধিনায়ক হিসেবে আপনাকে তাকে বল দিতে হবে। আমি যখনই সুনীল নারিনকে বল করতে বলি, সে আমাকে উইকেট দেয়। কিন্তু ব্যাটসম্যানরা তার বিপক্ষে সুযোগ নেয় না। সে খুবই মিতব্যয়ী, কিন্তু যখন সে উইকেট পায়, তখন সে বড় উইকেট পায়। রিংকু যেভাবে শান্ত হয়ে খেলল তা অসাধারণ। তিনি ভবিষ্যতের একটি বড় সম্পদ।”

Leave a comment

Your email address will not be published.