IPL 2022

চলতি আইপিএলের (IPL 2022)-এর ৬৬তম ম্যাচটি  ডিওয়াই পাতিল স্টেডিয়ামে কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং লখনউ সুপার জায়ান্টসের মধ্যে খেলা হয়। বুধবারের এই ম্যাচটি ২ রানে জিতে নিল লখনউ। গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন লখনউ অধিনায়ক কেএল রাহুল। প্রথমে ব্যাট করে লখনউ কোন উইকেট না হারিয়ে ২১০ রান করেন। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২০৮ রানেই শেষ হয়ে যায় কলকাতার লড়াই ওপেনার কুইন্টন ডি কক ৭০ বলে ১৪০ এবং কেএল রাহুল ৫১ বলে ৬৮ রান করেন। এর সঙ্গেই ইতিহাসের পাতায় জায়গা করে নিল এই দুই খেলোয়াড়ের এই ইনিংস। আইপিএলে প্রথমবারের মতো কোন দল কোন উইকেট না হারিয়ে পুরো ২০ ওভার ব্যাট করলো।

কেকেআর বোলারদের ক্লাবস্তরে নামালেন ডি কক

IPL 2022

আইপিএলের ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বড় ওপেনিং জুটি। আইপিএলের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ২০০ রানের ওপেনিং পার্টনারশিপ হয় এ দিন। এর আগে, জনি বেয়ারস্টো এবং ডেভিড ওয়ার্নারের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৮৫ রানের ওপেনিং জুটি ছিল। গৌতম গম্ভীর এবং ক্রিস লিনের মধ্যে ১৮৪ রানের জুটি এরপরেই রয়েছে। এ ছাড়া যে কোন উইকেটে এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ জুটি। এর আগে, বিরাট কোহলি এবং এবি ডি ভিলিয়ার্সের মধ্যে অপরাজিত ২১৫ রান এবং কোহলি ও ডি ভিলিয়ার্সের মধ্যে ২২৯ রানের জুটি গড়েন।

এ দিন ২১১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিয়মিত উইকেট হারাতে থাকে নাইটরা। কলকাতার ইনিংসের হাল ধরেন শ্রেয়াস আইয়ার। তবে ২৯ বলে ৫০ রান করে মার্কাস স্টোইনিসের বলে দীপক হুডার হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন আইয়ার। শেষ দিকে মারকাটারি ইনিংস খেলেন রিংকু সিং (৪0)। তাকে সঙ্গত দেন সুনীল নারাইন (২১)। তবে তাতে কাজের কাজ কিছু হয়নি। ম্যাচটা ২ রানে হেরে প্লে অফ থেকে ছিটকে গেল কলকাতা। এ দিন শতরান করার জন্য ম্যাচের সেরা বাছা হয় কুইন্টন ডি কককে। ম্যাচের পর তিনি বলেন,

“সত্যি বলতে আমি আমার নিজের ইনিংসে খুব খুশি। পিচ যেমন ব্যবহার করেছে, ঠিক সেটাকে মাথায় রেখে আমি ব্যাট করেছি। বড় রান করতে পেরে ভালোই লাগছে। তবে ওরা যখন শেষ দিকে ব্যাট করছিল, তখন মনে হয়েছিল যে কোন দিকেই ম্যাচটা যেতে পারে। শেষ ওভার যখন স্টোইনিস বল করতে আসে আমার মনে হয়েছিল ওদের আটকে দেব। কিন্তু রিংকুর বড় বড় শটের জন্য হারের ভয় মনের মধ্যে ঢুকে যায়। তবে ওর ক্যাচ আউটের পর আমরা বুঝতে পারি আমরা জিততে চলেছিল। এটা সত্যি কথা, ক্যাচই ম্যাচ জেতায়।”

Leave a comment

Your email address will not be published.