ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ রোহিত শর্মা চতুর্থ ডবল সেঞ্চুরি মিস করা নিয়ে বললে এই কথা

তারকা ওপেনার রোহিত শর্মার দুর্দান্ত সেঞ্চুরির সুবাদে ভারতীয় দল পাকিস্তানকে বিশ্বকাপ ২০১৯এর ২২তম ম্যাচে ডাকওয়ার্থ লুইস নিয়মের অন্তর্গত ৯০ রানের ব্যবধানে হারিয়ে দেয়। রোহিত শর্মার এই দুর্দান্ত সেঞ্চুরির সৌজন্য ভারতীয় দল এই টুর্নামেন্টে লাগাতার তৃতীয় জয় তুলে নিয়েছে।

সেঞ্চুরির জন্য পেলেন ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ রোহিত শর্মা চতুর্থ ডবল সেঞ্চুরি মিস করা নিয়ে বললে এই কথা 1

রোহিত এই ম্যাচে মাত্র ১১৩ বলের মুখোমুখী হয়ে ১৪- রানের ম্যারাথন ইনিংস খেলেন। তিনি নিজের এই ইনিংসে ১৪টি চার এবং ৩টি বিশাল ছক্কা মারেন। রোহিত শর্মার এটি ওয়ানডে কেরিয়ারের ২৪তম সেঞ্চুরি ছিল। তার এই দুর্দান্ত ইনিংসের জন্য তাকে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচের পুরস্কার দেওয়া হয়।

যেভাবে আমরা একটা দল হিসেবে খেলেছি, তাতে খুশি

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ রোহিত শর্মা চতুর্থ ডবল সেঞ্চুরি মিস করা নিয়ে বললে এই কথা 2

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ পুরস্কার নিতে গিয়ে রোহিত শর্মা নিজের বয়ানে বলেন,

“যেভাবে আমরা একটা দল হিসেবে খেলেছি, তাতে আমি খুশি। গত ম্যাচ নিউজিল্যাণ্ডের বিরুদ্ধে রদ হওয়ার কারণে আমরা ভীষণই নিরাশ হয়েছিলাম, কিন্তু আজ আমরা চেয়েছিলাম যে পুরো ম্যাচ হোক আর ভালভাবে খেলি”।

ডবল সেঞ্চুরির ব্যাপারে ভাবছিলাম না

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ রোহিত শর্মা চতুর্থ ডবল সেঞ্চুরি মিস করা নিয়ে বললে এই কথা 3

ডবল সেঞ্চুরি করতে না পারা নিয়ে রোহিত শর্মা আগে নিজের বয়ানে বলেন,

“আমি দুঃখী ছিলাম, যখন আমি আউট হই, বিশেষ করে যেভাবে আমি ওই শটটা খেলেছি। ওরা মিড অনকে পেছিয়ে দিয়েছিল আর ফাইন লেগের খেলোয়াড়কে ভেতরে নিয়ে এসেছিল, কিন্তু আমি সামান্য ভুল বুঝেছিলাম আর আমি এটার উপর বেশি ধ্যান দিই নি। যখন আপনি সেট হয়ে গিয়েছে, আপনি তখন যত বেশি সম্ভব রান করতে চান। কিন্তু সত্যি বলতে কি আমি আমার আরেকটা ডবল সেঞ্চুরির ব্যাপারে ভাবছিলাম না। আমার প্রচেষ্টা স্রেফ দলের হয়ে যত বেশি সম্ভব যোগদান দেওয়ার দিকে ছিল”।

রাহুল ভীষণই ভাল খেলেছে

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ রোহিত শর্মা চতুর্থ ডবল সেঞ্চুরি মিস করা নিয়ে বললে এই কথা 4

কেএল রাহুলের ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে রোহিত আগে নিজের বয়ানে আরো বলেন,

“রাহুল ভীষণই ভাল খেলেছে, ও ক্রিজে কিছুটা সময় কাটিয়েছে, যা ভীষণই জরুরী ছিল। উইকেটে সোজা গিয়ে শট খেলা যায় না। কিছু সময় ক্রিকেট থেকে দেখতে হয় যে উইকেট কিভাবে খেলছে। ও আমাকে ভাল সঙ্গ দিয়েছে আর আমরা দুজনকে দলকে একটা ভাল শুরু এনে দিতে সফল হয়েছি”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *